বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > শাবানা-স্মিতা-দীপ্তিই ছিল পরিচালকদের পছন্দ, আমার ভাগ্যে ভালো রোল জোটেনি : নীনা
সম্প্রতি, প্রকাশিত হয়েছে নীনার আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'. ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম
সম্প্রতি, প্রকাশিত হয়েছে নীনার আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'. ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম

শাবানা-স্মিতা-দীপ্তিই ছিল পরিচালকদের পছন্দ, আমার ভাগ্যে ভালো রোল জোটেনি : নীনা

  • বরাবরই অন্যধারার ছবির মুখ হিসেবে গুরুত্ব পেয়ে এসেছেন শাবানা আজমি, স্মিতা পাতিল, দীপ্তি নাভালরা, মন্তব্য নীনা গুপ্তার। পরিচালক শ্যাম বেনেগাল, গোবিন্দ নিহলানির উদ্দেশে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি।

পরিচালক শ্যাম বেনেগাল, গোবিন্দ নিহলানির উদ্দেশে নিজের ক্ষোভ উগরে দিলেন নীনা গুপ্তা। জানালেন বরাবরই অন্যধারার ছবির মুখ হিসেবে গুরুত্ব পেয়ে এসেছেন শাবানা আজমি, স্মিতা পাতিল, দীপ্তি নাভালরা। শ্যাম বেনেগাল, গোবিন্দ নিহলানির প্রসঙ্গ টেনে বললেন তাঁরা নীনাকে কোনওদিন হয়তো বাণিজ্যিকভাবে সফল অভিনেত্রী মনেই করেননি কিংবা ভরসা পাননি।

সম্প্রতি, প্রকাশিত হয়েছে এই বর্ষীয়ান অভিনেত্রীর আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'। এই বইয়ে নিজের ব্যক্তিগত জীবনের নানান ঘটনা উপুড় করে দিয়েছেন তিনি। দীর্ঘ বছরের বলিউডে তাঁর কেরিয়ারের অভিজ্ঞতাও তিনি তুলে ধরেছেন এই আত্মজীবনীতে। সেই প্রসঙ্গে আউটলুক ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রশ্নত্তোর পর্ব চলাকালীন এহেন মন্তব্য করেন নীনা। 

পাশাপাশি আরও জানান যে তিনি জানতেন না ইন্ডাস্ট্রিতে কীভাবে মিশতে হয়, কথাবার্তা চালাতে হয়। অভিনেত্রীর কথায়, ' এই ইন্ডাস্ট্রিতে কেউ তোমার বন্ধু হবে না। সবাই সবার কাজটা করতে ব্যস্ত থাকে আর তোমাকে নিজের আখেরে ঘোচাতে হবে। এটাই নিয়ম। আমি কথাবার্তায় ততটা পারদর্শী ছিলাম না বলে কেবলই মনে হতো বারবার যদি পরিচালক, প্রযোজকদের কাছে নিজের ব্যাপারে ঘ্যানঘ্যান করি তাহলে তাঁরা মনে হয় আরও আমার ধারপাশে ঘেঁষবে না।' এখানেই না থেমে অভিনেত্রীর আরও দাবি যে তিনি যথেষ্ট লাজুক ছিলেন তাই ইন্ডাস্ট্রিতে কীভাবে কাজকম্মো হয় তা তাঁর বুঝতে সময় লেগেছে। অনেকসময় ধরতেই পারেননি। তাই অনেকসময় ভুল করে বসেছেন। বিস্তর বোকাও বনেছেন।

 

নীনার আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'। ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম
নীনার আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'। ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম

আবার টাইমজ নাও-কে দেওয়া অন্য একটি সাক্ষাৎকারে নীনা জানিয়েছেন যে প্রখ্যাত পরিচালক গোবিন্দ নিহলানির সঙ্গে তাঁর সখ্যতা থাকলেও 'গোবিন্দজী' কোনওদিন নীনাকে তাঁর পরিচালনায় অভিনয়ের প্রস্তাব দেননি। তবে শুধু তাঁকেই নয়,তাঁর সমসাময়িক অন্য সমস্ত অভিনেত্রীদের ক্ষেত্রেও একই কথা খাতে। অন্যধারার ছবির মুখ হিসেবে সবসময়ই গুরুত্ব পেয়েছিলেন স্মিতা পাতিল, শাবানা আজমি, দীপ্তি নাভালরা। ' অথচ এই নয় যে আমি দেখতে খুব কুৎসিত ছিলাম কিংবা অভিনয়টা জানতাম না।এমনটা মোটেও নয়। আজ বুঝি কীভাবে কথাবার্তা চালানো উচিৎ সেই বিষয়ে কোনও ধারণাই ছিল না আমার। তাই হয়তো...' আক্ষেপের সুরে মন্তব্য নীনার।

 

বন্ধ করুন