বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > স্ব-নিয়ন্ত্রণ মেনে চলতে বড় সিদ্ধান্ত আমাজন প্রাইম, নেটফ্লিক্সের মতো OTT প্ল্যাটফর্মগুলির
সরকারি নির্দেশিকার আগেই স্ব-নিয়ন্ত্রণের পথে একধাপ এগোল OTT প্ল্যাটফর্মগুলি (REUTERS)
সরকারি নির্দেশিকার আগেই স্ব-নিয়ন্ত্রণের পথে একধাপ এগোল OTT প্ল্যাটফর্মগুলি (REUTERS)

স্ব-নিয়ন্ত্রণ মেনে চলতে বড় সিদ্ধান্ত আমাজন প্রাইম, নেটফ্লিক্সের মতো OTT প্ল্যাটফর্মগুলির

  • সরকারি নির্দেশিকার আগেই স্ব-নিয়ন্ত্রণের পথে একধাপ এগোল OTT প্ল্যাটফর্মগুলি। 

ইন্টারনেট এবং মোবাইল অ্যাসোশিয়েশন অফ ইন্ডিয়া (IAMAI)  এবং দেশের ১৭টি প্রধান ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বৃহস্পতিবার স্ব-নিয়ন্ত্রণ টুল কিট মেনে চলবার সিদ্ধান্ত নিল। এর আওতায় এই প্ল্যাটফর্মের যে কোনও সদস্য সংস্থার কনটেন্ট সংক্রান্ত অভিযোগের প্রতিকারের চেষ্টা করা হবে, এবং অভিযোগ জমা দেওয়ার নির্দিষ্ট কমিটি গঠন করা হবে। 

বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা দুই প্রধান ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্স ও আমাজন প্রাইম ভিডিয়ো ছাড়াও, জিফাইভ, ভায়াকম ১৮ (ভুট), ডিজনি প্লাস হটস্টার, সোনি লিভ, এমএক্স প্লেয়ার, জিও সিনেমা, এরস নাও, অল্ট বালাজি, হইচই, হাঙ্গামা, শেমারু,ডিসকভারি প্লাসের মতো ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলি এই টুল কিট ব্যবহারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে এবং সেই সংক্রান্ত নথি স্বাক্ষর করেছে। 

দেশজুড়ে এখন ওটিটি প্ল্যাটফর্মের ছড়াছড়ি, তবে বিনোদনের এই মাধ্যমে সেন্সরশিপের কোনও বালাই নেই। এই কারণে মোদী সরকার ঠিক করে ফেলেছে ডিজিটাল মিডিয়া এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্মের বিধি-বিধান বেঁধে দেওয়া হবে। নভেম্বর মাসেই নির্দেশিকা জারি করে নির্দেশিকা জারি করে OTT প্ল্যাটফর্ম এবং অনলাইন নিউজ পোর্টালের কন্টেন্টে নজরদারির বিষয় সাফ করে দিয়েছিল কেন্দ্র। আপতত দেশজুড়ে ৪০টির বেশি ওটিটি (ওভার দ্য টপ) প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। গত বছর সেপ্টেম্বরের শুরুতেই এই টুল কিটের প্রয়োগ ভাবনার কথা আলোচনা করা হয়েছিল। এই মর্মে তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রকের সঙ্গেও আলোচনা করা হয়েছে। তাঁরা সাফ জানিয়েছে টুল কিটের প্রয়োগ কতটা ফলপ্রসূ হচ্ছে তা বিচার-বিশ্লেষণ করে দেখবে মন্ত্রক। কেন্দ্র নিজেও ওটিটি প্ল্যাটফর্মে নিয়ন্ত্রণ আনার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছে শীঘ্রই। গত সপ্তাহেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভেকড় সাংসদে জানান, ওটিটি প্ল্যাটফর্মের গাইডলাইন প্রায় চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। নেটফ্লিক্স ও আমাজন প্রাইমের একাধিক শো সম্প্রতি বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসায় দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা ওটিটি কনটেন্ট নিয়ন্ত্রণের পথ কার্যত পরিষ্কার হয়ে যায়। 

চুক্তি স্বাক্ষর করা ১৭টি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম একটি আভ্যন্তরীন কমিটি স্থাপন করবে, যারা কনটেন্ট নিয়ে জমা পড়া অভিযোগের পর্যালোচনা করবে। এর জন্য প্রত্যেক স্বাক্ষরকরারীর নির্দিষ্ট উপদেষ্টা কমিটি থাকবে। প্রত্যেক কমিটিতে কমপক্ষে তিনজন সদস্য থাকবেন। দেশের প্রচলিত আইন মেনেই কাজ করবে এই কমিটি, জানিয়েছে ইন্টারনেট এবং মোবাইল অ্যাসোশিয়েশন অফ ইন্ডিয়া।

বন্ধ করুন