বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘শোভন কই?', ইমন-নীলাঞ্জনের বিয়ের ছবি দেখে প্রশ্ন নেটিজেনের, মোক্ষম জবাব গায়িকার
সিঁদুরদানের মুহূর্ত 
সিঁদুরদানের মুহূর্ত 

‘শোভন কই?', ইমন-নীলাঞ্জনের বিয়ের ছবি দেখে প্রশ্ন নেটিজেনের, মোক্ষম জবাব গায়িকার

  • দিদি শোভনদার কী হল? শোভনদা কই? প্রাক্তন প্রেমিক নিয়েও ইমনকে কটাক্ষ নেট নাগরিকদের। পালটা দিলেন গায়িকা। 

ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতেই সাত পাক ঘুরে বিয়ের বাঁধনে বাঁধা পড়ছেন ‘নীলামন’। ইমন-নীলাঞ্জনের বিয়ের পর সবে ১০ দিন পার হয়েছে। তবে বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না সদ্যবিবাহিতা গায়িকার। দু-দিন আগেই নীতি পুলিশির স্বীকার হয়েছিলেন ইমন। বিয়ের পর প্রথম স্টেজ শো করতে গিয়ে শাঁখা-পলা না পরায় কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছিল ইমনকে। আর এবার প্রাক্তন প্রেমিকের প্রসঙ্গ টেনে ইমনকে ট্রোল করবার চেষ্টা করলেন এক নেট নাগরিক। পালটা জবাবও দিলেন ইমন। 

বিয়ের একগুচ্ছ ছবি ফেসবুকের দেওয়ালে শেয়ার করেছেন জাতীয় পুরস্কার জয়ী গায়িকা। সেই অ্যালবামে ইমন-নীলাঞ্জনের সামাজিক বিয়ের অনুষ্ঠানের আসরে হাজির অতিথিদের ছবিও ধরা পড়েছে।  দুর্নিবার, উজ্জয়নী,অভিষেক রায়দের সঙ্গে ইমন-নীলাঞ্জনের একটি গ্রুপফিতে এক জনৈক লেখেন- ‘দুর্নিবার আছে, শোভন কই?’ 

ইমনের সপাট জবাব
ইমনের সপাট জবাব

দমে যাওয়ার পাত্রী নন ইমনও। সপাট জবাব দিয়েছেন ওই নেটনাগরিককে। তিনি লেখেন- শোভন বাড়িতে আছে দাদা। 

এই প্রথম নয়, নীলাঞ্জনের সঙ্গে নিজের সম্পর্কে অফিসিয়্যাল সিলমোহর দেওয়ার পর থেকেই প্রাক্তন প্রেমিকের প্রসঙ্গ টেনে ইমনকে অস্বস্তিতে ফেলবার চেষ্টা অনেকেই করেছেন। বিয়ের আগেই ইমন-নীলাঞ্জনের এক ছবিতে এক নেট নাগরিক মন্তব্য করেন- ‘দিদি শোভনদার কী হল’। জবাবে ইমন লেখেন- 'শোভন দা সুস্থ আছেন'।

ট্রোলের কাছে মাথানত করেননি ইমন 
ট্রোলের কাছে মাথানত করেননি ইমন 

দীর্ঘ একটা সময় ধরে গায়ক শোভন গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে প্রেম সম্পর্কে আবদ্ধ ছিলেন ইমন। বয়সের ফারাক থাকলেও এই জুটির রসায়ন নজড় কাড়ত অনুরাগীদের। তবে গত বছরের শুরুতেই সম্পর্কে ইতি টানেন দুজনে। প্রেম সম্পর্কে ইতি টানলেও প্রাক্তনের প্রতি কোনও ক্ষোভ বা অভিমান জমা করে রাখেননি ইমন। সম্প্রতি একসঙ্গে একটি মিউজিক্যাল প্রোজেক্টে কাজও করেছেন। 

টলিপাড়ায় জোর গুঞ্জন শোভনও নাকি ইতিমধ্যেই মনের মানুষ খুঁজে পেয়েছেন। স্বস্তিকা দত্তের সঙ্গে শোভনের প্রেম সম্পর্কের খবর ডানা মেলেছে গত কয়েক মাসে। তবে ইমন-শোভনের ভাঙা সম্পর্ক নিয়ে ট্রোলারদের মাথাব্যাথার অন্ত নেই। 

বন্ধ করুন