বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > নুসরতের সঙ্গে বিচ্ছেদ! বড় সিদ্ধান্ত নিলেন নিখিল জৈন
ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট প্রাইভেট করে দিলেন নিখিল 
ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট প্রাইভেট করে দিলেন নিখিল 

নুসরতের সঙ্গে বিচ্ছেদ! বড় সিদ্ধান্ত নিলেন নিখিল জৈন

  • নিখিল জৈনের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল এবার তালাবন্ধ। ইনস্টা অ্যাকাউন্ট প্রাইভেট করে দিলেন নিখিল। 

পতি-পত্নী আর ওহ-র ইকুয়েশনটা ধীরে ধীরে স্পষ্ট হচ্ছে। নুসরত-নিখিলের বিবাহবিচ্ছেদের খবরের জল্পনা গত দু-মাসে বারেবারে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তারপর থেকেই  নেটিজেনদের নজর কিন্তু আটকে থেকেছে নিখিল জৈনের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে। গত একমাসে নিখিলের ফলোয়ার সংখ্যা চড় চড়িয়ে বেড়েছে। নিখিল সরাসরি নুসরতকে আক্রমণ না করলেও ইনস্টায় তাঁর ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা বুঝিয়ে দিয়েছে আচমকা তাঁদের মাঝখানের লক্ষ যোজন দূরত্বকে। এর মাঝেই বড় সিদ্ধান্ত নিলেন নিখিল। নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলটি তিনি প্রাইভেট করে দিলেন। যে কেউ আর চাইলেই ঢুঁ মারতে পারবেন না নিখিলের প্রোফাইলে, কেবলমাত্র তাঁর ফলোয়ার তালিকায় থাকা ব্যক্তিরাই নিখিলের পোস্ট দেখতে পারবেন। 

নিখিলের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল 
নিখিলের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল 

নিখিলের ফলোয়ার তালিকায় থাকা ৪১ হাজার ৫০০ জন নেটনাগরিক ছাড়া বাকিদের জন্য তালাবন্ধ নিখিলের প্রোফাইল। নুসরতকে ঘিরে তাঁকে নিয়ে যে চর্চা চলছে তা এড়াতেই কি এই সিদ্ধান্ত?  শুধু তাই নয়, আরও একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিখিল। নিজের ইনস্টাগ্রামের দেওয়াল থেকে তিনি সম্পূর্ণরূপে মুছে দিয়েছেন নুসরত জাহানকে। স্ত্রীকে আনফলো করবার পর একাধিক ছবিও মুছে দিয়েছিলেন নিখিল। তবে দু-দিন আগে পর্যন্ত নিজেদের বিয়ের দুটি ছবি নিখিলের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে রয়ে গিয়েছিল। সেটিও অবশেষে ডিলিট করে দিলেন নিখিল জৈন। এখন নিখিলের সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে অন্তত নুসরতের কোনও জায়গা নেই। 

ভালোবাসা দিবসের দিনই নিখিল ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে নুসরতের নাম না করেই লিখেছিলেন ভালোবাসার মানুষ বদলে গিয়েছে, তবে তিনি একইরকম আছেন। নিখিল লেখেন,  ‘আমি দুঃখিত। তুমি যে কথা আমাকে দিয়েছিলে, তার কথা বলচি আর কি! দেখতে পাচ্ছি, একজন বদলে গিয়ে অন্য মানুষে পরিণত হয়েছে। আমি এখনও সেই আগের মতোই আছি’।

নিখিলের ইনস্টাগ্রাম পোস্ট 
নিখিলের ইনস্টাগ্রাম পোস্ট 

সম্প্রতি রটে যায়, নিখিল নাকি নুসরতকে বিবাহবিচ্ছেদে নোটিশ ধরিয়েছেন। অবশ্য নায়িকা জানান, ডিভোর্স নোটিশের খবর ‘ভুয়ো ও ভিত্তিহীন’। তবে নিখিল তিনি কিন্তু এই খবর সরাসরি নাকোচ করেননি, তাই ডিভোর্স নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি হয়ত এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা… সম্পর্ক জোড়া লাগার আর কোনও সম্ভাবনাই চোখে পড়ছে না ভক্তদের!

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হওয়ার মাত্র দিন কয়েকের মাথায় তুরস্কের বোদরুমে নিখিল জৈনের সঙ্গে রূপকথার বিয়ে সারেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জৈন। ২০১৯-এর ১৯ জুন রীতিনীতি মনে চার হাত এক হয় দুজনের। বিয়ের ঠিক এক বছর আট মাসের মাথায় বিয়ে ভাঙার পথে এই জুটির।

বন্ধ করুন