বাড়ি > বায়োস্কোপ > শ্যুটিং জট কাটাতে আজ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের সঙ্গে বৈঠকে বসছে টলিপাড়া
বৃহস্পতিবারের বৈঠকের দিকেই তাকিয়ে সকলে
বৃহস্পতিবারের বৈঠকের দিকেই তাকিয়ে সকলে

শ্যুটিং জট কাটাতে আজ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের সঙ্গে বৈঠকে বসছে টলিপাড়া

  • আজ দুপুরে টেকনিশিয়ান স্টুডিওতে বৈঠকে বসবে প্রযোজক, চ্যানেল কর্তৃপক্ষ, আর্টিস্ট ফোরাম, টেকনিশিয়ানদের ফোরামের প্রতিনিধিরা। হাজির থাকবেন অরূপ বিশ্বাস।

করোনা সংকটে গত ১৮ মার্চ থেকে শ্যুটিং বন্ধ টলিগঞ্জে। ১লা জুন থেকেই শ্যুটিংয়ের সরকারি অনুমতি পেয়েছে টলিগঞ্জ। কিন্তু শ্যুটিং শুরুর ব্যাপারে বেশ কিছু জটিলতা রয়েছে যা না মিটলে শ্যুটিং শুরু কোনওভাবেই সম্ভবকর নয়। কলাকুশলী ও টেকনিশিয়ানদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে করোনা সংকটের মধ্যেই কীভাবে শ্যুটিং শুরু সম্ভব? সেই সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানেই বৃহস্পতিবার ফের বৈঠকে বসছে প্রযোজক, চ্যানেল কর্তৃপক্ষ, আর্টিস্ট ফোরাম, টেকনিশিয়ানদের ফোরামের প্রতিনিধিরা। যেখানে হাজির থাকবেন রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। এদিন দুপুর ২টো নাগাদ টেকনিশিয়ান স্টুডিওতে বৈঠক শুরু হবে।

এর আগে মঙ্গলবার করোনা আবহে শ্যুটিংয়ের নির্দেশিকা নিয়ে প্রায়ে সাড়ে তিন ঘন্টা বৈঠক চলে আর্টিস্ট ফোরাম, ইম্পা, ফেডারেশনসহ বিভিন্ন সংগঠনের। শ্যুটিং শুরুর ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্ত না হলেও বেশ কিছু বিষয় নিয়ে সেইদিনই সহমত পোষণ করেছে এই সংগঠনগুলি। মূলত সিনেমা নয় সিরিয়ালের শ্যুটিং শুরুর কথা মাথায় রেখেই আলোচনা করা হয়েছে এইদিন। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে-

১.ঘনিষ্ঠ দৃশ্য বা চুম্বন দৃশ্য এড়িয়ে যাওয়া হবে। অর্থাত্ আলিঙ্গন-চুম্বন ছাড়াই করোনা পরবর্তী বাংলা সিরিয়ালের দেখা মিলবে।পরবর্তীতে হয়ত ছবি থেকেও বাদ পড়বে অন্তরঙ্গ দৃশ্য।

২.৬৫ বছরের বেশি বয়সের অভিনেতাদের নিয়ে কাজ করার ক্ষেত্রে আপাতত আগ্রহী নন প্রযোজকরা। ১০ বছর বা তার কম বয়সী শিল্পীদের দিয়েও কাজ করানো যাবে কিনা সেই ব্যাপারেও সন্দেহ রয়েছে।যদিও এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হওয়ার কথা বৃহস্পতিবারের বৈঠকে।

৩.একসঙ্গে ৬ জন শিল্পীকে ফ্লোরে রাখার প্রস্তাব প্রযোজকদের তরফে।অর্থাত্ ৩৫ জনের ইউনিটে ৬ জন অভিনেতা বা অভিনেত্রী থাকবেন। তাঁদের প্যাক আপ হলে মেক আপ রুম স্যানিটাইজ করে পরবর্তী শিল্পীদের শেডিউল রাখা হবে।

শিল্পীদের বয়সের সীমা বেঁধে শ্যুটিংয়ের বিষয়ে অন্তিম সিদ্ধান্ত নিক সরকার,এমনটাই চাইছেন প্রযোজকরা।কারণ মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে ৬৫ বছর বেশি বয়সী এবং ১০ বছরের কম বয়সী শিল্পীরা ফ্লোরে থাকতে পারবে না। যার জেরে অমিতাভ বচ্চন, নাসিরুদ্দিন শাহর মতো অভিনেতা কিংবা মনিরতনম বা শ্যাম বেনেগালের মতো বর্ষীয়ান পরিচালকরা কাজের সুযোগ পাবেন না। তাই নিময় শিথিলের আবেদন উঠছে সেখানেও। 

প্রত্যেক শিল্পীর জন্য আলাদা মেক-আপ কিট থাকাও প্রায় বাধ্যতামূলক হতে চলেছে,পরচুলা কিংবা অন্যান্য সামগ্রীর ব্যবহারেও আসবে একাধিক নিষেধাজ্ঞা তাই প্রোডাকশনের মূল্য অনেকখানি বেড়ে যাবে সে ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই।

মঙ্গলবারের বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গ মোশন পিকচার আর্টিস্ট ফোরামের জেনারেল সেক্রেটারি অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায় প্রস্তাব দেন করোনা আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হলে, তাঁর পরিবারকে ২৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে  প্রযোজকের তরফে। প্রযোজকরা জানিয়েছেন, এরকম দাবি মানা কোনভাবেই সম্ভব নয়। তার পরিবর্তে সকলে মিলে একটা ফান্ড তৈরি করার উদ্যোগ নেওয়া যেতে পারে। এই ব্যাপারেও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে আজ।

 

 

বন্ধ করুন