বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > যত ব্যস্ততা থাকুক,আমি বাংলাদেশে ইদ উদযাপন করা ছাড়া কিছু ভাবতে পারি না: জয়া আহসান
দুই বাংলার হার্টথ্রব জয়া আহসান, এ বছর নিদের দেশেই ইদ পালন নায়িকার
দুই বাংলার হার্টথ্রব জয়া আহসান, এ বছর নিদের দেশেই ইদ পালন নায়িকার

যত ব্যস্ততা থাকুক,আমি বাংলাদেশে ইদ উদযাপন করা ছাড়া কিছু ভাবতে পারি না: জয়া আহসান

  • এবার গোটা রমজান মাস-জুড়ে অভিনেত্রী এক দারুণ উদ্যোগ নিয়েছিলেন। বহু দুস্থদের ইফতার করিয়েছেন। পথবাসীদের হাতে তুলে দিয়েছেন নতুন পোশাক।

সোমবার ‘চাঁন রাত’ ছিল। মঙ্গলবার পবিত্র ‘ইদ’। বছরের একদিন সবাই যেন অপেক্ষা করে থাকে তাঁদের শ্রেষ্ঠ উৎসবের জন্যে। অভিনেত্রী জয়া আহসানও এই দিনটিকে বিশেষ ভাবে উদযাপন করছেন। পরিবার, ঘনিষ্ঠদের সঙ্গে এ বছর দুর্দান্ত ইদ কাটিয়েছেন জয়া। নিজের দেশের বাইরে তাঁর ইদ পালন করার কথা ভাবতেই পারেন না তিনি। কাজের শত ব্যস্ততার ফাঁকে ইদের সময় বাংলাদেশেই থাকেন বলে জানিয়েছেন জয়া।

বাংলাদেশের বাইরে একবার কলকাতায় ইদ পালন করেছিলেন অভিনেত্রী। সেই নিয়ে তাঁর কাছে এক মন খারাপের অভিজ্ঞতা রয়েছে। এ বিষয় কথা বলতে গিয়ে অভিনেত্রী পুরনো এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ‘আমি একবার কলকাতায় ইদ করতে গিয়ে কেঁদেছিলাম। মিষ্টি পোলাও, মাটন খেয়ে কেঁদেছিলাম। ফ্রিজ খুলে বাসি পরেজ খেতে হয়েছিল আমাকে। আমি ওই ইদটা নিতে পারব না। এবার ইদ করছি, ভবিষ্যতে দেশের বাইরে ইদ করার ইচ্ছে নেই।’

সম্প্রতি জয়ার কথায়, ‘আমার কাজে যত ব্যস্ততা থাকুক না কেন আমি বাংলাদেশে ইদ উদযাপন করা ছাড়া কিছু ভাবতে পারি না। আর দেশের বাইরে কখনই ইদ পালন করব না।’ এবার গোটা রমজান মাস-জুড়ে অভিনেত্রী এক দারুণ উদ্যোগ নিয়েছিলেন। বহু দুস্থদের ইফতার করিয়েছেন। পথবাসীদের হাতে তুলে দিয়েছেন নতুন পোশাক।

'কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২২'-এ প্রদর্শিত হয়েছে জয়া আহসানের সিনেমা ‘ঝরা পালক’। ছবির কেন্দ্রে কবি জীবনানন্দ দাশের জীবনকথা। দুই বয়সের কবিকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন মন্ত্রী ব্রাত্য বসু এবং রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়। কবির স্ত্রীর ভূমিকায় জয়া আহসান। সদ্য ইরানি পরিচালকের ‘ফেরেশতা’র শ্যুটিং শেষ করেছেন। এছাড়া অভিনেত্রী বেশ কিছু সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায়।

বন্ধ করুন