বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কেন বন্ধ হয়েছিল সুশান্তের স্বপ্নের ছবি পানি? মুম্বই পুলিশকে জানালেন আদিত্য চোপড়া
রেকর্ড হল আদিত্য চোপড়ার বয়ান 
রেকর্ড হল আদিত্য চোপড়ার বয়ান 

কেন বন্ধ হয়েছিল সুশান্তের স্বপ্নের ছবি পানি? মুম্বই পুলিশকে জানালেন আদিত্য চোপড়া

  • সুশান্ত সিং রাজপুত নয়, পরিচালক শেখর কাপুরের সঙ্গে মতপার্থক্যের জেরেই পানি প্রোজেক্ট থেকে দূরে সরে যায় যশ রাজ ফিল্মস।পুলিশকে দেওয়া বয়ানে জানিয়েছেন আদিত্য চোপড়া।

সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার মামলায় সোশ্যাল মিডিয়ায় সিবিআই তদন্তের দাবি ক্রমেই জোরালো হচ্ছে। অন্যদিকে এই মামলার তদন্ত জোরকদমে চালাচ্ছে মুম্বই পুলিশ। কেন আত্মহত্যা করেছেন সুশান্ত? সেই কারণ জানতে সবরকম অ্যাঙ্গেল খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারী। সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে বারবার বলিউডে তাঁকে 'একঘরে' করে দেওয়া কিংবা তাঁর হাত থেকে একাধিক ছবি ছিনিয়ে নেওয়া কিংবা ঘোষণার পরেও কাজ বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সেই ক্ষেত্রে বারবার বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে এসেছে যশ রাজ ফিল্মস ও আদিত্য চোপড়ার নাম।

এই মামলায় শনিবার পুলিশি জেরার মুখে পড়েন যশরাজ কর্ণধার,রানি মুখোপাধ্যায়ের স্বামী আদিত্য চোপড়া। এদিন ভারসোভা থানায় প্রায় চারঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় আদিত্য চোপড়াকে। নিজের দুই আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়ে পুলিশের কাছে নিয়ের বয়ান রেকর্ড করতে পৌঁছেছিলেন যশ রাজ প্রধান। পুলিশ সূত্রে খবর, যশ রাজ ফিল্মসের সঙ্গে সুশান্তের ঘোষিত প্রোজেক্ট পানি বন্ধ হওয়ার কারণ নিয়ে এদিন সাফাই দিয়েছেন আদিত্য চোপড়া। 

পুলিশকে দেওয়া বয়ানে আদিত্য চোপড়া জানিয়েছেন, পরিচালকের সঙ্গে ক্রিয়েটিভ ডিফারেন্স এবং বাজেট সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মতপার্থক্যের জেরেই সেই ছবি বন্ধ হয়। তার সঙ্গে সুশান্তের কোনও যোগ নেই। অথচ সুশান্তের মৃত্যুর পর শেখর কাপুর সোশ্যাল মিডিয়ায় স্পষ্ট বলেছিলেন, ‘যশ রাজ ফিল্মস জানিয়েছিল আমরা সুশান্তের সঙ্গে পানি তৈরি করব না, পানি তৈরি হবে না’।

সুশান্তের কেরিয়ারের দ্বিতীয় ছবি শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স (২০১৩) এবং তিন নম্বর ছবি ডিটেক্টিভ ব্যোমকেশ বক্সী (২০১৫)-র প্রযোজক ছিলেন আদিত্য চোপড়া। যশ রাজ ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন সুশান্ত। ২০১২ সালের নভেম্বর মাসে তিন ছবির চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

ঠিক কী ঘটেছিল সুশান্ত সিং রাজপুতের ড্রিম প্রজেক্ট পানির সঙ্গে?

২০১২ সালের ৩০ শে অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে পানির ঘোষণা সারে প্রযোজক সংস্থা যশরাজ ফিল্মস। যদিও সেই ঘোষণায় ছবির কাস্টের নাম উল্লেখ ছিল না। তবে বলা হয়েছিল ২০১৩-র মাঝামাঝি সময় থেকেই পানির শ্যুটিং শুরু করবেন পরিচালক শেখর কাপুর।যদিও শেখর কাপুর পানির ঘোষণা সেরেছিলেন আরও আগে, ২০১০ সালের কান চলচ্চিত্র উত্সবে। ২০১২-র অক্টোবরে যশ রাজ ফিল্মসের তরফে জারি প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয় ২০৫০ প্রেক্ষাপটে তৈরি হবে পানি, যেখানে ফুটে উঠবে জলের সমস্যা। এরপর ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে শেখর কাপুর আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে জানান- তাঁর ছবিতে মুখ্য চরিত্রে দেখা যাবে সুশান্ত সিং রাজপুতকে।ছবির নায়িকা হবেন পাশ্চাত্যের কোনও নায়িকা। ছবির শ্যুটিং শুরু হবে ২০১৪-র মাঝামাঝি সময়ে। যদিও সেই কাজ শুরু হয়নি। বছর ঘুরে যায়, এরমধ্যেই ২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে যশরাজ ব্যানারে রিলিজ করে সুশান্তের কেরিয়ারের তৃতীয় এবং এই হাউসে প্রয়াত অভিনেতার দ্বিতীয় ছবি ডিটেক্টিভ ব্যোমকেশ বক্সী। ২০১৫'র শেষের দিকে মিডিয়ায় খবর ছড়িয়ে পড়ে পানি থেকে সরে দাঁড়িয়েছে প্রযোজক সংস্থা যশরাজ ফিল্মস।

এখানেই শেষ নয়, পানি বন্ধ হওয়ায় আদিত্য চোপড়া সুশান্তকে কথা দিয়েছিলেন তাঁর পরিচালনায় বেফিকরে ছবিটিতে অভিনয় করবেন সুশান্ত। কিন্তু তাঁকে কিছু না জানিয়েই সেই ছবিটিতে কাস্ট করা হয় রণবীর সিংকে। এরপরই আদিত্য চোপড়ার সঙ্গে মনোমালিন্য হয় সুশান্তের। তিনি যশরাজ ফিল্মসের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করেন। ২০১৫ সালের ১০ই ডিসেম্বর ডিএনএতে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, যশরাজ ফিল্মসের তরফে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছে. ‘সুশান্ত আর আমাদের ট্যালেন্ট টিমের অংশ নয়। আমরা ওর ভবিষ্যত জীবনের জন্য অনেক শুভকামনা জানাই’।

বন্ধ করুন