বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে আনফলো করলেন নুসরত-নিখিল! সত্যি কি বিয়ে ভাঙছে?
নিখিল-নুসরতের সংসারে ভাঙন!
নিখিল-নুসরতের সংসারে ভাঙন!

ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে আনফলো করলেন নুসরত-নিখিল! সত্যি কি বিয়ে ভাঙছে?

  • বিয়ে ভাঙার জল্পনার মাঝে এবার ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে আনফলো করে দিলেন নুসরত-নিখিল। 

বিয়ের দেড় বছরের মাথাতেই নুসরত-নিখিলের সুখী গৃহকোণে ভাঙন! সবকিছু একেবারেই ঠিক নেই দুজনের দাম্পত্য জীবনে। পাশাপাশি গত কয়েকদিনে নুসরতের সঙ্গে যশ দাশগুপ্তর প্রেমের জল্পনা দানা বেঁধেছে। এর মাঝেই ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে আনফলো করে দিলেন নিখিল-নুসরত! হ্যাঁ, শুক্রবার নুসরতের জন্মদিনেই ঘটল এই অঘটন। সাতমাস ধরে নুসরতের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল নিখিলহীন। সেই থেকে জল্পনা শুরু হয় ফাটল ধরেছে নুসরত-নিখিলের ভালোবাসার নীড়ে। 

শুক্রবার দিনভর নুসরতকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন টলিপাড়ার বন্ধুরা। তালিকায় নাম রয়েছে যশ দাশগুপ্তের, তবে না শুভেচ্ছা বার্তা আসেনি নিখিলের তরফে। এরপর শনিবার সকালেই ইনস্টাগ্রামে চোখ রাখতে দুজনের দূরত্বের কাহিনিটা আরও স্পষ্ট হল। ইনস্টাগ্রাম আর একে অপরকে ফলো করেন না নিখিল-নুসরত। নিখিলের ক্লোথিং লাইন রঙ্গোলি ইন্ডিয়াকে যদিও এখনও ফলো করছেন নুসরত। এই সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসার নায়িকা। অন্যদিকে নুসরত-নিখিলের জুটির ফ্যানপেজ ও নুসরতের একটি ফ্যানপেজকে এখনও ফলো করছেন নিখিল, তবে নুসরত জাহানকে নয়।
 

ক্রমেই বাড়ছে দূরত্ব
ক্রমেই বাড়ছে দূরত্ব

যশের সঙ্গে প্রেম, নিখিলের সঙ্গে ঘর ভাঙার গুঞ্জন নিয়ে ক্যালকাটা টাইমসের কাছে অবশেষে মুখ খুলেছে নুসরত। তিনি জানিয়েছেন, ‘আমার ব্যক্তিগত জীবন জনগণের জন্য নয়। মানুষ সবসময় আমাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে। এইবার আমি আর কিছু বলব না। মানুষ আমার বিচার করুক আমার কাজ দিয়ে, আমার অভিনয় দিয়ে। আমি ভালো বা খারাপ অভিনেত্রী সেটা বলুক। এটা আমার ব্যক্তিগত জীবন এবং এটা আমি কারুর সঙ্গে ভাগ করে নেব না’।

সংবাদ প্রতিদিনকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে নুসরত নিজের মুখে জানিয়েছেন ব্যক্তিগত কারণে এখন আর এক ছাদের তলাতেও থাকছেন না তাঁরা। আলিপুরের শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে এখন নুসরতের ঠিকানা বালিগঞ্জে বাপের বাড়ি। 

সূত্রের খবর বৃহস্পতিবার বন্ধুদের নিয়ে জন্মদিন সেলিব্রেট করেছেন নুসরত, সেই পার্টিতে শামিল হননি নিখিল জৈন। দম্পতির মাঝের দূরত্ব যে ক্রমশ বাড়ছে তা কিন্তু বেশ স্পষ্ট।

বন্ধ করুন