বাড়ি > বায়োস্কোপ > রিয়াকে টেনে নেটদুনিয়ায় বাঙালি মেয়েদের কদর্য আক্রমণ, প্রতিবাদে সরব নুসরত, স্বস্তিকা
প্রতিবাদী নুসরত,স্বস্তিকা 
প্রতিবাদী নুসরত,স্বস্তিকা 

রিয়াকে টেনে নেটদুনিয়ায় বাঙালি মেয়েদের কদর্য আক্রমণ, প্রতিবাদে সরব নুসরত, স্বস্তিকা

  • ‘বাঙালি মেয়েরা পয়সার কাঙাল’, তাঁরা ‘বড় মাছ ধরতে পারে’, বাঙালি মেয়েরা ‘জাদুটোনা করে’.. রিয়া চক্রবর্তীর জন্য এখন নেটিজেনদের নিশানায় বাঙালি মেয়েরা!

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্য ক্রমেই জটিল হচ্ছে। আর সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন তাঁর গার্লফ্রেন্ড রিয়া চক্রবর্তী। শুরু থেকেই রিয়ার বিরুদ্ধে নানারকমের ক্ষোভ, অশ্লীল শব্দ উঠে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার বাদ যাচ্ছে না বাঙালি মেয়েরা। রিয়ার প্রসঙ্গে টেনে সমগ্র বাঙালি মেয়ে জাতি এখন সোশ্যাল মিডিয়ার একটা বড় অংশের নিশানায়। ‘বাঙালি মেয়েরা পয়সার কাঙাল’, তাঁরা ‘বড় মাছ ধরতে পারে’, বাঙালি মেয়েরা ‘জাদুটোনা করে’.. এই ধরণের কুরুচিকর মন্তব্যে ছেয়ে গিয়েছে টুইটার,ফেসবুক। আর এতেই বেজায় চটেছেন নুসরত জাহান। টলিউডের অন্যতম ঠোঁটকাটা নায়িকা স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় তিনিও মোক্ষম জবাব দিয়েছেন নিজের মতো করে। 

একাধিক টুইটে যখন বাংলা সংস্কৃতি নিয়ে বিরূপ মন্তব্যে উড়ে এসেছে। এক নেটিজেনের মন্তব্য, ‘রিয়া চক্রবর্তী বাংলা আর বাঙালিদের তো জনপ্রিয় করে দিল!’ জবাবে বসিরহাটে সাংসদ কড়া ভাষায় বলেন-'তুমি যদি আচমকাই পৃথিবীতে অবতরণ করো, তাহলে বলে রাখি, বাংলা তার নিজস্ব সমৃদ্ধ সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের জন্য সবসময়েই  বিখ্যাত। গোটা বিশ্ব আমাদের সত্যজিৎ রায় এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে চেনে। এবার তোমায় আমরা একটু ফেমাস করে দিলাম, যাও!'

পাশাপাশি নুসরত এও জানান, ‘কাউকে সমর্থন করে একথা বলছি না। কেউ যদি দোষী হয়, তাহলে আইন নিশ্চয়ই তাকে শাস্তি দেবে। ভারতীয় বিচার ব্যবস্থার উপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে,…তবে একজনের জন্য সমগ্র জাতির অপমান আমি কখনোই বরদাস্ত করব না’।

'মাছ-মিষ্টি-মশলার' পাঠ এদিন টুইটারে ভালোভাবে পড়িয়ে দেন নুসরত। তাঁর কথায় ব্যক্তিগত এজেন্ডা পূরণের জন্য কোনওভাবেই বাঙালির জাতির উপর আক্রমণ বরদাস্ত নয়।

 টুইটারে একজন বাঙালি মেয়েদের সম্পর্কে মন্তব্য করে-সারা জীবন যদি বাঙালি মেয়েদের চাকর হতে চাও বা ক্রেডিট কার্ড হতে চাও-তাহলেই পা বাড়িও। জবাবে অত্যন্ত রসিকতার সঙ্গে কিন্তু স্পষ্ট ভাষায় স্বস্তিকা জানান-'আমি তো রুই বা ভেটকি ভালবাসি। এরপর সরষের তেলে ভাল করে ভেজে গরম ভাতে কাঁচালঙ্কা দিয়ে খেতে ভালবাসি। বাঙালি মেয়েরা কেউ আছো? আমার সঙ্গে যোগ দিতে চাও?' যেখানে কারুর নাম করেনি স্বস্তিকা।কিন্তু তাঁর ইঙ্গিত বুঝে নিতে অসুবিধা হয় না। উল্লেখ্য সুশান্তের শেষ ছবি দিল বেচারায় কিজি বসুর মায়ের চরিত্রে দর্শকদের মন জয় করেছেন এই বাঙালি নায়িকা। তিনি আবার ডিটেক্টিভ ব্যোমকেশ বক্সীতে সুশান্তের লাভ ইন্টারেস্ট হিসাবে অভিনয় করেছিলেন। সুশান্তের সঙ্গে দুটো ছবিতে কাজ করা যে স্বস্তিকার কাছে বড়ো পাওনা তা একাধিক সাক্ষাত্কারে জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

বন্ধ করুন