বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > নির্বাচনী ব্যস্ততা তুঙ্গে, তবুও একসঙ্গে ডিনার ডেটে যশ-নুসরত!

'কুছ তো লোগ কয়েহেঙ্গে', হিন্দি গানের এই লাইন মনে প্রাণে বিশ্বাস করেন যশরত জুটি। তাই তাঁদের বন্ধুত্ব নিয়ে য়তই সমালোচনা হোক না কেন, সেই বিষয় নিয়ে বিশেষ পাত্তা দিতে রাজি নন দুজনেই। নির্বাচনের উত্তাপ, গেরুয়া শিবির বনাম তৃণমূলের যুযুধান লড়াই- কোনও কিছুই এই মিষ্টি সম্পর্ককেও তেঁতো করতে করতে পারেনি। তাই তো রবিবার রাতে দুজনের ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে উঠে এল মিষ্টি ছবি। 

ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে পাঁচতারা হোটেলে সাজানো টেবিলের লোভনীয় ডেসার্টের ছবি শেয়ার করেন নুসরত। ক্যাপশনে লেখেন, ‘টেবিলে আমার ফেবারিট খাবার…আর সঙ্গে ফেবারিট যশ দাশগুপ্ত’। নুসরতের এই পোস্টের জবাবও দিয়েছেন যশ। তিনি পালটা লেখেন, ‘তোমার এই আনন্দটা খুব সিরিয়াসলি নিচ্ছি’। 

যশ ও নুসরতের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি
যশ ও নুসরতের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি

রাজনীতির ময়দানে নুসরতের তুলনায় অনেকখানি নতুন যশ। তবুও বিরোধী শিবিরের ভালো বন্ধুর কাছে কোনওরকম রাজনীতির টিপস নিতে রাজি নন তিনি, সে কথা বহুবার নিজের মুখে জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু তাই বলে একসঙ্গে বসে মিষ্টিমুখ করতে তো আর বাধা নেই? 

নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে কোনও রাখঢাক রাখেনি ‘যশরত’। নেটমাধ্যমে একফ্রেমে ধরা না দিলেও  একসঙ্গে সময় কাটানোর মুহূর্ত গুলো কিন্তু তুলে ধরেন। কদিন আগেই একসঙ্গে কফির কাপে চুমুক দিয়েছিলেন এই জুটি। বিজেপি যশের যোগদানের পর তৃণমূল সাংসদ নুসরতের সঙ্গে তাঁর গভীর বন্ধুত্ব কতখানি ঠিকবে, তা নিয়ে অনেকেই সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন। বলা বাহুল্য সব সন্দেহে জল ঢেলে দিচ্ছে এই নুসরত-যশের ইনস্টাগ্রামের এই মিষ্টি ছবি। 

চলতি বছরের শুরু থেকেই যশ-নুসরতের প্রেম সম্পর্ক ব্যাপক চর্চায়। যশের জন্যই নাকি ঘর ভেঙেছে নুসরতের, এমনই অভিযোগ রয়েছে। যদিও সেই দাবি খারিজ করে দিয়েছেন যশ। তাঁর মতে ‘আমরা শুধুই ভালো বন্ধু’। অন্যদিকে নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুলতে না-রাজ তিনি। তৃণমূলের হয়ে পথে নেমে প্রচার করছেন, আর সময় সুযোগ পেলে বন্ধুদের সঙ্গেও আড্ডা দিতে ভুলছেন না। 

 

 

বন্ধ করুন