বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aindrila-Sabyasachi: ‘আমার সব্য’, নেটপাড়ায় সক্রিয় প্রয়াত ঐন্দ্রিলার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট! হাঁ ভক্তরা

Aindrila-Sabyasachi: ‘আমার সব্য’, নেটপাড়ায় সক্রিয় প্রয়াত ঐন্দ্রিলার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট! হাঁ ভক্তরা

সক্রিয় ঐন্দ্রিলার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট

Aindrila-Sabyasachi: ফেসবুকে ফের ‘জীবন্ত’ ঐন্দ্রিলা শর্মা! সব্যসাচীর সঙ্গে হাসিমুখে চলছে তাঁর দিন-যাপন। যা দেখে হয়রান অনুরাগীরা! 

গত ২০শে নভেম্বর প্রয়াত হয়েছেন ঐন্দ্রিলা শর্মা। এই তরুণ অভিনেত্রীর মৃত্যুর ধাক্কা এখনও সামনে উঠতে পারেনি তাঁর পরিবার ও প্রিয়জনেরা। ভক্তদের মনও কেঁদে চলেছে তাঁদের প্রিয় অভিনেত্রীর জন্য। এর মাঝেই আচমকা ‘জীবন্ত’ হয়ে উঠলেন ঐন্দ্রিলা। দিব্যি সব্যসাচীর পাশে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে রয়েছেন তিনি। আর যেন সকলকে বলছেন, ‘তখন কে বলে গো, সেই প্রভাতে নেই আমি? সকল খেলায় করবে খেলা এই-আমি।’

প্রেমিক সব্যসাচী চৌধুরীকে পাশে নিয়ে নেটপাড়ায় আবারও সবার সামনে এলেন 'জিয়ন কাঠি' অভিনেত্রী। ফেসবুক স্টেটাসে লেখা,'শুভ জন্মদিন আমার সব্য'। ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে জন্মদিনের কেক কাটছেন সব্যসাচী। পরিবারের সবার সঙ্গে হই-হুল্লোড় করে চলছে সেলিব্রেশন। নোটিফিকেশন দেখে তো চমকে গিয়েছে ঐন্দ্রিলার লাখো অনুরাগীর। আসলে ঐন্দ্রিলার ভ্যারিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ওই পোস্টটি করেছেন প্রয়াত অভিনেত্রীর মা শিখা শর্মা।

তিন দিন আগে এই ভিডিয়ো নিজের ব্যক্তিগত প্রোফাইল থেকেও শেয়ার করে নিয়েছিলেন শিখা দেবী। সঙ্গে লিখেছিলেন, ‘সব্যর জন্মদিনে ঐন্দ্রিলা আর সব্যর শেষ ভিডিয়ো, মন চাইল খুব তাই শেয়ার করলাম’। আর ঐন্দ্রিলার প্রোফাইল থেকে এই ভিডিয়ো শেয়ার করে তাঁর বার্তা, ‘ঐন্দ্রিলার প্রোফাইলটা অবশ্যই অ্যাক্টিভ রাখব’।

এই নিয়ে শিখা দেবীর বক্তব্য, ‘ফেসবুক অ্যাকাউন্টটা অ্যাক্টিভ থাক। অনেক স্মৃতি আছে। এই ভিডিয়োটা তো মিষ্টির (ঐন্দ্রিলা) প্রোফাইলে ছিল না। তাই শেয়ার করলাম।’ মেয়ের স্মৃতি আগলে রাখতে চাইছেন শিখা শর্মা। তিনি চান না, তাঁর মানিককে কেউ ভুলে যাক। সব্যসাচীর জন্মদিনের এই ভিডিয়ো ঐন্দ্রিলাই পাঠিয়েছিল মা-কে।

গত ৩১শে অক্টোবর ছিল সব্যসাচীর জন্মদিন। অর্থাৎ ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার একদিন আগেই নিজের ‘বেঁচে থাকার কারণ’-এর জন্মদিন সেলিব্রেট করেছিলেন ঐন্দ্রিলা। এই ভিডিয়োতে শেষবার হাসিখুশি প্রাণোচ্ছ্বল ঐন্দ্রিলাকে দেখা গিয়েছে তাঁর মনের মানুষের সঙ্গে। সেই স্মৃতি ভোলার নয়, তাই তো সেটা সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন শিখা শর্মা। তিনি এক সংবাদমাধ্যমে আরও জানান, ঐন্দ্রিলার ফোন নম্বরটিও চালু করেছেন তিনি। তাঁর ‘মিষ্টি’ (ঐন্দ্রিলার ডাকনাম) নিষ্ক্রিয় হতে দিতে চান না। নিজের ফোনে ব্যালেন্স না থাকায় ঐন্দ্রিলার নম্বর থেকে সব্যসাচীকে ফোন করেছিলেন প্রয়াত অভিনেত্রীর মা। তিনি জানালেন, ‘সব্য ফোনটা ধরেনি। পরে আমাকে ফোন করল, সব্য আমাকে বলল ওই নম্বর থেকে ওকে ফোন না করতে।’ সব্যাসাচীকে ঐন্দ্রিলার মা কথা দিয়েছেন এই নম্বর থেকে আর ওকে ফোন করবেন না, কিন্তু মেয়ের নম্বর চালু রাখবেন তিনি। 

ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার পর টানা ২০ দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়েছেন ঐন্দ্রিলা। ২০শে নভেম্বর মাত্র ২৪ বছর বয়সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন দু-বারের ক্যানসার জয়ী অভিনেত্রী। ঐন্দ্রিলার মৃত্যুর পর নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ডি-অ্যাক্টিভেট করেছেন সব্যসাচী। প্রেমিকাকে হারিয়ে অন্তরালেই ছিলেন অভিনেতা, তবে ধীরে ধীরে জীবনের মূলস্রোতে ফিরছেন সব্যসাচী। ঐন্দ্রিলার স্মৃতি আগলে ছোটপর্দায় কামব্যাক করছেন তিনি, স্টার জলসার আসন্ন সিরিয়ালে ‘রামপ্রসাদ’-এর ভূমিকায় থাকছেন সব্যসাচী চৌধুরী। 

 

 

বন্ধ করুন