বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মিঠুনের সঙ্গে ভাঙা প্রেম, পরে বিবাহিত বনি কাপুরের সাথে ঘর বাঁধেন শ্রীদেবী
মিঠুনের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার পর বনির প্রেমে পড়েন শ্রীদেবী
মিঠুনের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার পর বনির প্রেমে পড়েন শ্রীদেবী

মিঠুনের সঙ্গে ভাঙা প্রেম, পরে বিবাহিত বনি কাপুরের সাথে ঘর বাঁধেন শ্রীদেবী

  • প্রথম দেখাতেই শ্রীদেবীর প্রেমে পড়েন বনি কাপুর, জানেন এই বিতর্কিত প্রেমের কাহিনি? 

দেখতে দেখতে তিনটে বছর পেরিয়ে গেল। শ্রী-হীন বলিউড। ২০১৮ সালের আজকের দিনেই লক্ষ লক্ষ ভক্তকে কাঁদিয়ে না-ফেরার দেশে চলে যান শ্রীদেবী। তবে আজও তাঁকে স্মরণ করে কেঁদে উঠেন অনুরাগীরা। এমনই ম্যাজিক্যাল তাঁর অভিনয় কেরিয়ার। 

প্রথম দেখাতেই রীতিমতো শ্রীদেবীর প্রেমে হাবুডুবু খেয়েছিল বনি কাপুর। বিবাহিত, দুই সন্তানের বাবা হওয়া সত্ত্বেও শ্রীদেবীর মোহ কাটিয়ে কোনওদিনই উঠতে পারেননি বনি কাপুর। এমনকি সেকথা স্বীকার করেছিলেন নিজের তত্কালীন স্ত্রী মোনার কাছেও।

প্রযোজক বনি কাপুর এবং অভিনেত্রী শ্রীদেবীর সম্পর্ক নিয়ে বহু গুঞ্জন ঘোরফেরা করেছে বলিউডে। আশির দশকে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে শ্রীদেবীর প্রেমের চর্চা ছিল বলিউডের হটকেক, এরপর আচমকাই শ্রীদেবীর জীবনে এন্ট্রি নেন বিবাহিত বনি কাপুর। কেমনভাবে শুরু হয়েছিল এই প্রেমের গল্পটা?

জানা যায়, শ্রীদেবীর ‘ষোলা সাওয়ান’ (১৯৭৯) দেখার পরই বনি কাপুর ঠিক করেন তিনি তাঁর প্রোডাকশন হাউসে মিস্টার ইন্ডিয়া সিনেমায় তাঁকে কাস্টিং করবেন। কারণ তামিল ছবিতে শ্রীদেবী দেখেই প্রেমে পড়ে গিয়েছিলেন বনি। অন্যদিকে, শ্রীদেবীর মা মেয়ের অভিনয় কেরিয়ারের যাবতীয় খুঁটিনাটির দেখাশোনা করতেন। তাই বনির প্রথম লক্ষ্য ছিল শ্রীদেবীর মা’কে হাত করা। 

২০১৩তে ‘ইন্ডিয়া টুডে বিজনেস সাবমিটে’ গিয়ে বনি কাপুর খোলসা করেন, সমসাময়িক অভিনেত্রীদের তুলনায় সবথেকে বেশি পারিশ্রমিক নিতেন শ্রীদেবী। আমি জানতাম সেই সময় শ্রী প্রায় ৮-৮.৫ লক্ষ টাকা পারিশ্রমিকে একটা সিনেমা করেছিল। আমি ওর মাকে জানিয়েছিলাম, না আমি ১১ লক্ষ টাকা পারিশ্রমিক দেব। তিনি যা চাইছেন আমি তাঁর থেকে বেশি পারিশ্রমিক দিতে রাজি আছি শুনে উনি ভেবেছিলেন আমি বম্বের একজন উন্মাদ প্রোডিউসার। যাক, এভাবেই আমি তাঁর মায়ের কাছে সহজে পৌঁছাতে পেরেছিলাম।

তবে বনি কাপুরের সঙ্গে শ্রীদেবীর সম্পর্কটা বন্ধুত্বের গণ্ডিতেই আটকে গিয়েছিল। শোনা যায়, সেই সময় মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন শ্রীদেবী। বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমে এমনও দাবি করা হয়, চুপিসাড়ে বিয়েটাও সেরে নিয়েছিলেন তাঁরা। তবে নিজেদের সম্পর্ককে মান্যতা দিতে চাননি মিঠুন। স্ত্রী যোগিতা বালিকে ছেড়ে শ্রীদেবীর সঙ্গে ঘর বাঁধতে রাজি ছিলেন না মিঠুন চক্রবর্তী।  অন্যদিকে শ্রীদেবীর প্রেমে ব্যর্থ বনি কাপুর ১৯৮৩ সালে মোনা সৌরির সঙ্গে বিয়ে করেন। সেটা ছিল অ্যারেঞ্জড ম্যারেজ। 

কিন্তু ফের বনি কাপুরের জীবনে এন্ট্রি নেন শ্রীদেবী। মিঠুনের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার পর ভেঙে পড়েছিলেন শ্রীদেবী, সেইসময় তাঁর পাশে দাঁড়ান বনি। 

১৯৯৬ সালে বিয়ের পর্ব সারেন শ্রীদেবী-বনি 
১৯৯৬ সালে বিয়ের পর্ব সারেন শ্রীদেবী-বনি 

বনি কাপুর জানিয়েছেন, মিস্টার ইন্ডিয়া’র শ্যুটিংয়ের সময় শ্রীদেবীর জন্য সেরা মেক-আপ রুম, সেরা পোশাক- সবকিছুর ব্যবস্থা করবার চেষ্টা করেছিলেন। সেই সময় মোনা সৌরির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন বনি কাপুর। তাঁদের দুই সন্তান অর্জুন কাপুর ও অনুশুলা কাপুর। বনি শ্রীদেবীর পিছু পিছু সুইজারল্যান্ড পর্যন্ত চলে গিয়েছিলেন চাঁদনির শ্যুটিং চলাকালীন। শ্রীদেবীও বনি কাপুরে অনুভূতি এবং আচরণ দেখে ধীরে ধীরে প্রতিক্রিয়া দিতে শুরু করেছিলেন। বনি জানান, ‘শ্রীদেবী বুঝতে পেরেছিল আমার অনুভূতিগুলো সত্যি ছিল। আমি পালানোর মতো মানুষ নই। কোনওভাবে এগুলোই অবস্থান করেছিল'। 

শেষ পর্যন্ত ১৯৯৬ সালে বনি আর শ্রীদেবী সাত পাঁকে বাঁধা পড়েন। তাঁদের দুই কন্যা সন্তান-জাহ্নবী আর খুশি। আমৃত্যু বনির সঙ্গে সুখে সংসার করেছেন শ্রীদেবী।  

২০১৮ সালের ২৪ ফেব্রুয়রি দুবাইয়ের এক পাঁচতারা হোটেলের বাথটবে ডুবে অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় শ্রীদেবীর। তদন্তে উঠে এসেছে এই মৃত্যু ছিল নিছকই দুর্ঘটনা। সেইসময় হোটেল রুমেই ছিলেন বনি কাপুর। 

বন্ধ করুন