বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > রাজ কাপুরের নির্দেশ, ঋষি কাপুরকে ৮ বার চড় মেরেছিলেন পদ্মিনী কোলাপুরে!
'প্রেম রোগ' ছবির একটি দৃশ্যে পদ্মিনী কোলাপুরে এবং ঋষি কাপুর। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
'প্রেম রোগ' ছবির একটি দৃশ্যে পদ্মিনী কোলাপুরে এবং ঋষি কাপুর। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

রাজ কাপুরের নির্দেশ, ঋষি কাপুরকে ৮ বার চড় মেরেছিলেন পদ্মিনী কোলাপুরে!

  • 'প্রেম রোগ' ছবির একটি দৃশ্যে ঋষি কাপুরের সঙ্গে তাঁর অভিনয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে মুখ খুললেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী পদ্মিনী কোলাপুরে।

১৯৮২ সালে মুক্তি পাওয়া সুপারহিট ছবি 'প্রেমরোগ'-য়ে পদ্মিনী কোলাপুরে এবং প্রয়াত বলি-অভিনেতা ঋষি কাপুরের অভিনয় আজও হিন্দি ছবিপ্রেমী দর্শকদের মনে উজ্জ্বল। তবে জানেন কি, এই ছবির শ্যুটিংয়ে একবার ৭-৮ বার ঋষি কাপুরকে কষিয়ে চড় মেরেছিলেন পদ্মিনী। ঋষির বাবা তথা কিংবদন্তি পরিচালক রাজ কাপুরের সামনেই!

সম্প্রতি, টাইমস নাও ডিজিট্যালকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সেই প্রসঙ্গ তুললেন পদ্মিনী নিজেই। 'ছবিতে চিন্টু (ঋষি)-কে একটি চড় মারার দৃশ্য ছিল আমার। অনেকসময় যেটা হয়, তা হল সত্যিকারের চড় অভিনেতারা মারেন না। অভিনয় এবং ক্যামেরার কারসাজিতে ফাঁকিটা পর্দায় ধরা পড়ে না। কিন্তু সেই ছবির শ্যুটিংয়ে ব্যাপারটা আলাদা ছিল। 'প্রেমরোগ' এর পরিচালক তথা ঋষির বাবা রাজ কাপুরেরই নির্দেশ ছিল ঋষিকে চড় মারতে হবে। অগত্যা উপায় না দেখে আলতো করেই মারা শুরু করলাম। ফের বাধা পেলাম। এবারে চিৎকার করে পরিচালকের থেকে নির্দেশ এল, ' এরকম আলতো করে একদম নয়। আরও জোরে!' বেগতিক দেখে ঋষিও সায় দিলেন এই কথায়। অগত্যা আমিও মারা শুরু করলাম চড়'।

তবে ঋষি কাপুরকে একেবার চড় মেরেই ক্ষান্ত হননি পদ্মিনী। সাত থেকে আটবার চড় মেরেছিলেন তিনি। বর্ষীয়ান অভিনেত্রীর কথায়, 'আমার ঠিক মনে নেই কেন। তবে কখনও আলোর সমস্যা হচ্ছিল, কখনও বা টেকনিক্যাল। আবার ক্যামেরার সমস্যাও হতে পারে। শটখানা উৎরে যাওয়ার পরে ভেবেছিলাম ঋষির জায়গায় যদি আমি থাকতাম, তাহলে কী হতো?'

বন্ধ করুন