চিনে উহানে আটকে পড়া পাকিস্তানেদের দেশে ফেরাতে অস্বীকার করা পাক সরকারের সমালোচনায় আদনান সামি (সৌজন্যে-টুইটার)
চিনে উহানে আটকে পড়া পাকিস্তানেদের দেশে ফেরাতে অস্বীকার করা পাক সরকারের সমালোচনায় আদনান সামি (সৌজন্যে-টুইটার)

পাক মুসলিমরা কী সুবিধে ভোগ করছে? করোনা মোকাবিলায় পাক সরকারের সমালোচনায় আদনান

  • পাকিস্তানি মুসলিমদের তাদের সরকার তো অপ্রয়োজনীয় জঞ্জালের মতো তাদের ফেলে দিয়েছে? বললেন আদনান সামি।
  • করোনো ভাইরাস মোকাবিলায় উহান থেকে পাক নাগরিকদের উদ্ধার করতে অস্বীকার করেছে পাকিস্তান। এই ঘটনার জেরেই আদনানের এই মন্তব্য।

বিশ্বজোড়া করোনা ভাইরাস আতঙ্কের মাঝেই চিনের উহান প্রদেশে আটকে পড়া পাকিস্তানি নাগরিকদের দেশে ফেরাতে রাজি নয় পাকিস্তান। শনিবার পাক সরকারের এই অবস্থান সামনে আসার পর থেকেই সমালোচনার মুখে পাকিস্তান। এই ইস্যুতে এবার পাক সরকারকে কটাক্ষ করলেন আদনান সামি।

টুইট বার্তায় ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন আদনান। আদনান লেখেন, ‘ভারতীয় মুসলিমরা আজীবন ভারতের প্রতি নিজেদের বিশ্বস্ততা প্রমাণ করতে গিয়েই কাটিয়ে দেবে-এই সব কথা তো অনেকেই বলে থাকেন, তবে আমার প্রশ্ন হল পাকিস্তানি মুসলিমরা কি সুফল ভোগ করছে, তাদের সরকার তো অপ্রয়োজনীয় জঞ্জালের মতো তাদের ফেলে দিয়েছে? লজ্জাজনক!’



টুইট বার্তার সঙ্গে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন আদনান সামি, যেখানে দেখা যাচ্ছে উহানে আটকে পড়া ভারতীয় পড়ুয়াদের দেশে ফিরেয়ে আনতে পৌঁছে গিয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার ক্রু। বাস করে এয়ারপোর্টে আনার মুহূর্তের সেই ভিডিও ফ্রেমবন্দি করে পাক সরকারের কঠোর সমালোচনায় ব্যস্ত এক পাকিস্তানি ছাত্র।

ভারত সরকারের উদ্যোগে ইতিমধ্যেই এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ বিমানে শনিবার ৩২৪ জন ভারতীয়কে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। রবিবার ৩২৩ জন ভারতীয়কে উহান থেকে নিয়ে রওনা দিয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান।

যদিও নিজেদের অবস্থানে অনড় পাকিস্তান। ইমরান খানের স্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টা জাফর মির্জা জানিয়েছেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, এটা আমাদের জাতি,দেশ তথা বিশ্বর সার্বিক মঙ্গলে উচিত হবে যে আমাদের প্রিয়জন যাঁরা উহানে আটকে রয়েছেন তাঁরা সেখানেই আপতত থাকুন’। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন মেনেই নাকি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইমরান খান সরকার। ১ কোটি ১০ লক্ষ জনবসতিপূর্ণ উহানে প্রায় ৮০০ জন পাকিস্তানি পড়ুয়া রয়েছেন, যাঁদের মধ্যে ইতিমধ্যেই ৪ জন করোনো ভাইরাসে আক্রান্ত।

এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের জেরে চিনে ৩০৪ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্তের সংখ্যা চোদ্দ হাজার পার করেছে। সব মিলিয়ে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি গোটা বিশ্ব। আগেই করোনাভাইরাস সংক্রমণকে ‘আন্তর্জাতিক উদ্বেগ উত্পন্নকারী স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থা’ বলে ঘোষণা করেথেন WHO-এর ডিরেক্টর জেনারেল তেদ্রোস আধানোম ঘেব্রেইসাস।

এরপর আদনান অপর একটি ভিডিও বার্তা শেয়ার করেছেন,যেখানে উহানে আটকে থাকা এক পাকিস্তানি ছাত্র সরকারি সিদ্ধান্তে হতাশ হয়ে পাক সেনার কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেছে। ভিডিওর ক্যাপশন হিসাবে আদনাম সামি লিখেছেন, ‘দুঃখজনক এবং লজ্জাজনক’।



প্রসঙ্গত জন্মসূত্রে পাকিস্তানি আদনান সামি বর্তমানে ভারতের নাগরিক।

বন্ধ করুন