বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Palak Tiwari: গা ভর্তি ভারী গয়না, শাড়ি পরে লাস্যময়ী লুকে পলক! মেয়েকে দেখে কী বললেন শ্বেতা?
পলক তিওয়ারির নতুন ফটোশ্যুট।

Palak Tiwari: গা ভর্তি ভারী গয়না, শাড়ি পরে লাস্যময়ী লুকে পলক! মেয়েকে দেখে কী বললেন শ্বেতা?

  • পলক তিওয়ারি একটি জুয়েলারি ব্র্যান্ডের জন্য তাঁর নতুন ফটোশুটের ঝলক শেয়ার করেছেন। মা শ্বেতা তিওয়ারি এবং ভক্তরাও ইনস্টাগ্রামে পলকের ঐতিহ্যবাহী ভারতীয় সাজ-পোশাকের প্রশংসা করেছেন।

অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি কন্যা পলক তিওয়ারি। মাত্র ২২ বছর বয়সে ‘রোজি: দ্য স্যাফ্রন চ্যাপ্টার’ ছবি দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করেন পলক। মিউজিক ভিডিয়ো, ব়্যাম্পে ওয়ার্ক থেকে বিনোদন জগতে গুটি গুটি পায়ে প্রবেশ করেছেন শ্বেতা কন্যা।

সম্প্রতি নেটমাধ্যমে ফ্য়াশন ফটোশ্যুটের একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন পলক। ঐতিহ্যবাহী সোনা এবং হিরের গয়না সহ গোলাপী এবং সোনালী সিল্ক শাড়িতে দেখা মিলেছে পলকের। অনুরাগীরা প্রশংসা করে ‘সুন্দরী’র তকমা দিয়েছেন। অভিনেত্রীকে আগামীতে সলমন খানের আসন্ন ছবি ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’-এ দেখা যাবে। আরও পড়ুন: মায়ের মৃত্যু শয্যায় একটা কথা বলে আঘাত দিয়েছিলেন শাহরুখ! জানিয়েছেন আফসোসের কথা

মেয়ের নতুন ফটোশ্যুটের ভিডিয়ো দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ মা শ্বেতা তিওয়ারি। পলকের ছবির কমেন্টে শ্বেতা লেখেন, ‘হে ভগবান! আমার বেবি।’ ভিডিয়োতে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন নেটিজেন। শ্বেতা তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ভিডিয়োটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘খুব মিষ্টি দেখতে আমার মেয়েকে!!’ আরও পড়ুন: সরু সরু খালে গিয়ে মাছ ধরা, কাঁকড়া তোলেন ঝড়খালির গীতা! দিদিকে শোনালের সেই গল্পই

শ্বেতার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করা ভিডিয়ো
শ্বেতার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করা ভিডিয়ো

কেরিয়ারের শুরুর দিকে রাজা চৌধুরীর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন শ্বেতা। বিয়ের এক বছর পর মেয়ে পলকের জন্ম দেন তিনি। ২০০৭ সালে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ তুলে রাজার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয় শ্বেতার। এরপর ২০১৩ সালে অভিনব কোহলির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন অভিনেত্রী। ২০১৯ সালে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ তুলে দ্বিতীয় বিয়েও শেষ হয়েছিল অভিনেত্রীর। সিংগত মাদার শ্বেতা। মেয়ে পলক এবং ছেলে রেয়াংশ শ্বেতার কাছেই থাকে। আরও পড়ুন: ‘ভয়ে মরে যাওয়ার মতো অবস্থা’, নকল ভেবে আসল সাপের সঙ্গে শ্যুটিং করেছিলেন অমিতাভ

বম্বে টাইমসকে দেওয়া পুরনো সাক্ষাৎকারে পলক বিয়ের বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেছিলেন, 'আমি মাকে দেখে এইটুকু বুঝেছি, বিয়ের ক্ষেত্রে তাড়াহুড়ো করতে নেই। কোনও মানুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর আগে তাঁকে ভালো করে জেনেবুঝে নিতে হবে। সঙ্গীকে নিয়ে বিন্দুমাত্র সংশয় থাকলে সেই মুহূর্তে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসা উচিত। কোনও সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসাটাই মহিলাদের কাছে বেশ শক্ত। শুধু আমার মা নয়, সারা বিশ্বেই মহিলাদের একই হাল। আমরা সঙ্গীর ভালোটুকু আকঁড়ে ধরতে চাই। আর সেটাই কাল হয়ে দাঁড়ায়। এটা কিন্তু ভালোবাসা নয়। আর এই ধরনের সমঝোতার ভালোবাসা আমি চাই না, কখনই চাই না।’

 

বন্ধ করুন