বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > শেষ ৭২ ঘন্টায় লুকিয়ে পল্লবীর মৃত্যুরহস্যের জট? সাগ্নিকের মা-বাবা'কেও জিজ্ঞাসাবাদ
পাকাচ্ছে রহস্যজট

শেষ ৭২ ঘন্টায় লুকিয়ে পল্লবীর মৃত্যুরহস্যের জট? সাগ্নিকের মা-বাবা'কেও জিজ্ঞাসাবাদ

  • শনিবার গড়ফা পুলিশ পল্লবী মৃত্যুরহস্যের মূল অভিযুক্ত সাগ্নিক চক্রবর্তীর বাবা-মা'কে জিজ্ঞাসাবাদ করল। 

অভিনেত্রী পল্লবী দে-র মৃত্যুরহস্যের জট খুলতে নেমে একটানা অভিনেত্রীর লিভ ইন পার্টনারকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। মৃত্যুর দু-দিন আগে শ্যুটিং ছিল না অভিনেত্রীর (শুক্র ও শনিবার), বাড়ি থেকে অল্প কিছুক্ষণের জন্য শনিবার বাইরে গিয়েছিলেন পল্লবী ও সাগ্নিক। তাঁদের মধ্যে কোনও গণ্ডোগোল হয়েছিল ওইদিন? শেষ ৭২ ঘন্টায় ঠিক কী ঘটেছিল? সাগ্নিকের কাজ থেকে বারবার জানতে চাইছে পুলিশ।

অন্যদিকে পল্লবীর উপর শারীরিক নির্যাতন চালাতো সাগ্নিক, গায়ে হাত তুলত এমন অভিযোগ এনেছে পল্লবীর বাবা-মা। এই বিষয়টিকেও গুরুত্ব দিয়ে দেখছে পুলিশ। শনিবার তদন্তকারীরা অভিযুক্তর বাবা-মা'কে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সাগ্নিক পুলিশ জেরায় জানিয়েছে, পল্লবী যে ধারাবাহিকে অভিনয় করছিলেন (মন মানে না) সেটা শীঘ্রই শেষ হচ্ছিল। তাই নতুন কাজের খোঁজ করছিলেন অভিনেত্রী। শুক্র ও শনিবার একাধিক পরিচালক ও টিভি সিরিয়ালের নির্মাতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে কাজের খোঁজ চালাচ্ছিলেন। কাজের সুযোগ আছে কিনা তা জানতে চাইছিলেন। পুলিশ সূত্রে খবর, সাগ্নিকের বয়ানে জানানো হয়েছে, পল্লবীর হাতে টাকা ফুরিয়ে আসছিল বলে চিন্তায় ছিলেন অভিনেত্রী। বেশ কয়েকটি মিউচুয়াল ফান্ডে টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন তিনি, এছাড়াও ইএমআই দিয়ে গয়না কিনেছিলেন। সেইসবের টাকা কোথা থেকে মেটাবেন তা ভাবাচ্ছিল পল্লবীকে। অন্যদিকে পুলিশ জানতে পেরেছে ভুয়ো কল সেন্টার চালাতেন সাগ্নিক।

রবিবার সকালে পরিচারিকাকে নিয়ে কথা কটাকাটি হয় দুজনের,এমনটা জানিয়েছেন সাগ্নিক। তবে সত্যি কি তাই? নাকি অন্য কিছু নিয়ে গোলমাল হয়েছিল দুজনের? অভিনেত্রীর পরিচারিক সেলিমা সর্দারকেও ইতিমধ্যেই জেরা করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে পাটুলির এক রেস্তোরাঁতে খাওয়া-দাওয়া করেছিলেন পল্লবী-সাগ্নিক। সেইসব তথ্যও যাচাই করছে পুলিশ।

বন্ধ করুন