বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > পরমব্রত, ঋদ্ধি, ঋতব্রত, অনুপমরা এবার করোনার সঙ্গে লড়বেন প্রথম সারিতে, পাটুলিতে চালু হল Covid Relief Home

পরমব্রত, ঋদ্ধি, ঋতব্রত, অনুপমরা এবার করোনার সঙ্গে লড়বেন প্রথম সারিতে, পাটুলিতে চালু হল Covid Relief Home

পাটুলিতে তৈরি হল Covid Relief home।

পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, তন্ময় ঘোষ, অনুপম রায়, পিয়া চক্রবর্তী, ঋদ্ধি সেন, সুরঙ্গনা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঋতব্রত মুখোপাধ্যায়দের উদ্যোগে চালু হল কোভিড রিলিফ হোম। 

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সবচেয়ে বেশি সমস্যা দেখা দিয়েছে হাসপাতালে শয্যার অভাব। দিশাহারা হয়ে হাসপাতালে চক্কর কাটছেন করোনা রোগী ও তাঁদের পরিবারেরা। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে এগিয়ে এলেন টলিউডের বেশ কিছু চেনা মুখ। পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, তন্ময় ঘোষ, অনুপম রায়, পিয়া চক্রবর্তী, ঋদ্ধি সেন, সুরঙ্গনা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঋতব্রত মুখার্জীরা তৈরি করে ফেলেছেন ‘Citizen’s Response’। এঁদের সঙ্গে যুক্ত আছেন। আপাতত পাটুলির একটি ছোটো ঘরে করোনা রোগীদের চিকিৎসা করা হবে। থাকছে অক্সিজেন-সহ সমস্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা। 

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে গেলে হাসপাতালে বেড খুঁজে পেতে বেশ কিছুটা সময় চলে যায়। সেই সময়টায় রোগীর অবস্থা যাতে আরও খারাপ না হয়, তারই উদ্দেশে এটি তৈরি করা হয়েছে। এক সাক্ষাৎকারে ঋতব্রত মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন,  ‘অক্সিজেন স্যাচুরেশন লেভেলে ঘাটতি দেখা দেওয়ার পর এবং হাসপাতালের বেড খুঁজে পাওয়ার মাঝখানে অনেক সময় ঘন্টা দু’য়েকের ব্যবধান থেকে যাচ্ছে। এই সময়কালে রোগীর স্বাস্থ্যে অবনতি ঘটতে পারে। আমরা চেষ্টা করছি ঠেকনা দেওয়ার মতো খানিকটা অক্সিজেন, খানিকটা খাবার, জল, ওষুধপত্র ইত্যাদির ব্যবস্থা করার। ডাক্তার থাকবেন। তাঁর পরামর্শ অনুযায়ী যতটা করা সম্ভব আমরা সেটা করার চেষ্টা করছি। আপাতত ছোটো একটা জায়গা ভাড়া করা হয়েছে। সেখানে অক্সিজেন-সহ অন্যান্য ব্যবস্থা রাখা হয়েছে প্রাথমিকভাবে।’

টলিগঞ্জের তারকাদের এই উদ্যোগকে সোশ্যাল মিডিয়ায় যেমন কুর্নিশ জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ, তেমনই সাধুবাদ জানিয়েছেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ও। টুইট করে ‘Citizen’s Response’-র পোস্টার শেয়ার করে অভিনেতা লিখেছেন, ‘অসাধারণ এক উদ্যোগ নিয়েছে গোটা টিম। তোমাদের সাফল্য কামনা করি।’

অন্য দিকে, পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের মতো তারকারা সামিল হয়েছেন করোনার লড়াইয়ে। হাসপাতালে শয্যা, রক্ত, প্লাজমা, অক্সিজেন, চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ওযুধ খুঁজে দিতে অনবরত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা। বলা চলে, করোনা থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করতে সামিল হয়েছে গোটা বাংলা ইন্ডাস্ট্রি।

বন্ধ করুন