বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Parineeti Chopra : অবশেষে স্বপ্নপূরণ, মাস্টার ডিগ্রি অর্জন করে উচ্ছ্বসিত পরিণীতি

Parineeti Chopra : অবশেষে স্বপ্নপূরণ, মাস্টার ডিগ্রি অর্জন করে উচ্ছ্বসিত পরিণীতি

পরিণীতি চোপড়া

'এখন আমি এখন একজন মাস্টার স্কুবা ডাইভার!!! এটা একেবারেই পরাবাস্তব অনুভূতি! আমার নয় বছরের স্বপ্ন অবশেষে সত্যি হয়েছে... । সেই সমস্ত বছরের মনোযোগ, উদ্ধারকাজ, প্রশিক্ষণ এবং কাজ বন্ধ রেখে কঠোর পরিশ্রমে অবশেষে এটা সফল হয়েছে।

অভিনেত্রী হিসাবেই তাঁর পরিচিতি। তবে পড়াশোনায় তিনি বরাবরই তুখোড় পরিণীতি চোপড়া। দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় তিনি দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছিলেন। ম্যানচেস্টার বিজনেস স্কুল থেকে বিজনেস, ফাইন্যান্স ও ইকোনমিক্স এই তিনটি বিষয়ে স্নাতক হয়েছেন। আবার মিউজিকেও পরিণীতির রয়েছে স্নাতক ডিগ্রি। এবার আরও একটি ডিগ্রি অর্জন করে ফেললেন। তাও আবার মাস্টার ডিগ্রি। কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমেই এই ডিগ্রি অর্জন করে ফেলেছেন পরিণীতি।

তা কীসে মাস্টার ডিগ্রি পেয়ে শিক্ষকতার যোগ্যতা অর্জন করলেন পরিণীতি চোপড়া? পরিণীতি জানিয়েছেন তিনি স্কুবা ডাইভিং-এ মাস্টার ডিগ্রি করে ফেলেছেন। অভিনেত্রী জানাচ্ছে, তিনি বিগত ৯ বছর ধরে স্কুবা ডাইভিং-এর মাস্টার ডিগ্রি করার ইচ্ছা করে লালন করেছিলেন। তারপর ধীরে ধীরে কঠোর প্রশিক্ষণ এবং অনুশীলনের মধ্যে দিয়ে এই ডিগ্রি পেয়েছেন।

পরিণীতি চোপড়া সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন, যেখানে স্কুবা ডাইভার হিসেবে তাঁর জীবনের বিভিন্ন মুহূর্ত দেখানো হয়েছে। পরিণীতিকে ভিডিওতে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘জীবন বলেছে, এটা তোমার জন্য। প্রথমে শখ হিসাবে শুরু করেছিলাম, তারপর এটা আমার কাছে গভীর আবেগ হয়ে উঠেছে। ব্যস্ত সময়সূচী থেকে সময় বের করা, কঠোর প্রশিক্ষণ এবং উদ্ধারকাজে অংশ নেওয়া যেকারণে ডুবুরি হয়ে বারবার জলে নেমেছি। শুধু একদিনের জন্য নয় টানা ৯ বছর। অবশেষে একজন মাস্টার স্কুবা ডাইভারের খেতাব অর্জন করেছি।’

ভিডিওটি শেয়ার করে পরিণীতি ইনস্টাগ্রামের ক্যাপশানে লিখেছেন, 'এখন আমি এখন একজন মাস্টার স্কুবা ডাইভার!!! এটা একেবারেই পরাবাস্তব অনুভূতি! আমার নয় বছরের স্বপ্ন অবশেষে সত্যি হয়েছে... । সেই সমস্ত বছরের মনোযোগ, উদ্ধারকাজ, প্রশিক্ষণ এবং কাজ বন্ধ রেখে কঠোর পরিশ্রমে অবশেষে এটা সফল হয়েছে।

নিজের প্রশিক্ষকদের ধন্যবাদ জানিয়ে অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘আমি সত্যিই সম্মানিত বোধ করছি। আমার এই যাত্রা ওঁদের নিরন্তর সমর্থন, প্রশিক্ষণ এবং সাহায্য ছাড়া সম্ভব ছিল না। @paditv কে ধন্যবাদ জানানোটাও যথেষ্ট নয়। আপনি এখন পরিবারের মতো। এছাড়াও, আমাকে সবকিছু শেখানোর জন্য আনিস এবং শামীন আদেনওয়ালাকে ধন্যবাদ। আপনি চিরকালের জন্য আমার ডুবুরি সত্ত্বার অভিভাবক। আবার ডাইভিংয়ে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে আছি।’

পরিণীতির এই সাফল্যে তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অনুরাগীরা। শেষবার পরিণীতিকে সুরাজ বরজাতিয়ার 'উঁচাই' ছবিতে দেখা গিয়েছে। এরপর তাঁকে দেখা যাবে  ইমতিয়াজ আলীর ‘চমকিলা’ ছবিতে।

বন্ধ করুন