বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘সিস্টার্স গোল’, দিদি প্রিয়াঙ্কাই দিলেন বোন পরিণীতিকে সাফল্যের চাবিকাঠি
প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে পরিণীতি
প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে পরিণীতি

‘সিস্টার্স গোল’, দিদি প্রিয়াঙ্কাই দিলেন বোন পরিণীতিকে সাফল্যের চাবিকাঠি

নিজের ওপর চেপে যাওয়া ফ্লপ তকমা ছেড়ে ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসছেন পরিণীতি চোপড়া। পরপর তিনটি ছবির মুক্তিতে খানিকটা আত্মবিশ্বাসী। জানালেন, প্রিয়াঙ্কার থেকে পেয়েছেন সঠিক ছবি বেছে নেওয়ার পরামর্শ।

কেরিয়ারের শুরু থেকেই পরিণীতি চোপড়ার পাশে থেকেছেন প্রিয়াঙ্কা। প্রয়োজনে সঠিক পরামর্শ দিতেও পিছপা হননি। পরিণীতি জানালেন পরপর তাঁর তিনটি ছবি মুক্তি পাওয়ায় খুব খুশি নিক-ঘরণী। স্বীকার করলেন, দিদির কাছ থেকেই জেনেছেন ভালো ছবি বাছার মূল মন্ত্র।

কেরিয়ারের শুরুর দিকটা একটু টলোমলো হলেও ধীরে ধীরে সাফল্যের মুখ দেখেছেন ‘ইশকজাদে’-স্টার। পরিনীতির কথায়, শুরুর দিকটায় না বুঝে কিছু ভুল ছবি বেছেছিলেন নিজের জন্য। ধীরে ধীরে প্রিয়াঙ্কার পরামর্শে বুঝতে শিখেছেন কোন ছবি তাঁর জন্য ঠিক হবে। 

মাত্র কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানেই মুক্তি পেয়েছে পরিণীতির তিনটি ছবি- স্পোর্টস বায়োপিক ‘সানিয়া’, নেটফ্লিক্স রিমেক ‘গার্ল অন দ্য ট্রেন’ আর ‘সন্দীপ অর পিঙ্কি ফারার’।

এক সাক্ষাৎকারে পরিণীতি জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে প্রায় প্রতিদিনই তাঁর কথা হয়। নায়িকার কথায়, 'একজন মেন্টর বা বড় দিদির যেমন হওয়া উচিত ও ঠিক তাই। আমার থেকে ওর অভিজ্ঞতা প্রায় ২০ বছর বেশি। যখনই আমি ভালো কাজ করেছি আমার পিঠ চাপড়েছে। খারাপ হলে আমার ভুলগুলো বুঝিয়েছে। যখন একের পর এক ছবি ফ্লপ হচ্ছিল, তখন পাশে বসিয়ে বুঝিয়েছে কী করে নিজের জন্য ভালো ছবি বাছব।’

পরিণীতি আরও বলেন, ‘সদ্য মুক্তি পাওয়া তিনটে ছবিই প্রিয়াঙ্কা দেখেছে। ও খুব খুশি। বলেছে পুরনো আমিকে নাকি খুঁজে পেয়েছে।’

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে ‘লেডিস ভার্সেস রিকি বহল’ ছবি দিয়ে বলিটাউনে পা রাখেন পরিনীতি চোপড়া। 

বন্ধ করুন