বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বচ্চনের কন্ঠে কোভিড সর্তকতা শুনতে নারাজ, কলার টিউন বন্ধের দাবিতে হাইকোর্টে মামলা
অমিতাভের ব্যারিটোন কন্ঠ পছন্দ নয়!
অমিতাভের ব্যারিটোন কন্ঠ পছন্দ নয়!

বচ্চনের কন্ঠে কোভিড সর্তকতা শুনতে নারাজ, কলার টিউন বন্ধের দাবিতে হাইকোর্টে মামলা

  • অমিতাভের ব্যারিটোন কন্ঠে কোভিড-১৯ সতর্কতা শুনতে রাজি নন দিল্লির এক বাসিন্দা, তাই দায়ের হল জনস্বার্থ মামলা। 

ফোন করলেই শোনা যাচ্ছে অমিতাভের ব্যারিটোন ভয়সে। নিজের সেই কন্ঠে আপনাকে  করোনা নিয়ে সচেতন করছেন খোদ এই অতিমারীর কবলে পড়া অমিতাভ। কিন্তু গত কয়েক মাস যাবত্ বিগ বি-র এই কন্ঠ শুনে শুনে বিরক্ত অনেকেই। আসলে করোনা সংক্রমণের পর থেকে ফোনের কলার টিউনে স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সর্তক করবার কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য মন্ত্রক। কিন্তু এ বার সেই কলার টিউন সরিয়ে ফেলতে দিল্লি হাইকোর্টে দায়ের হল জনস্বার্থ মামলা!

দিল্লির বাসিন্দা তথা সমাজকর্মী রাকেশ এই জনস্বার্থ মামলাটি দায়ের করেছেন। বৃহস্পতিবার দিল্লি হাইকোর্টে বিচারপতি ডি এন প্যাটেল এবং জ্যোতি সিংয়ের ডিভিশন বেঞ্চে রাকেশের আবেদনের শুনানি হওয়ার কথা ছিল। তবে মামলাকারীর কৌঁসুলি সশরীরে আজ আদালতে হাজির না থাকতে পারবার কারণে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত পিছিয়ে গিয়েছে মামলা শুনানি। রাকেশ আবেদনে জানিয়েছেন, জনগণকে অতিমারী থেকে সচেতন করতে অমিতাভ বচ্চনকে দিয়ে এই সর্তকতামূলক বার্তা প্রচার করানো হচ্ছে, যিনি সপরিবারে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আবেদনে আরও বলা হয়েছে, অমিতাভ এর মাধ্যমে কোনও দেশ সেবা করছেন না, বরং এর মাধ্যমে তিনি ভারত সরকারের কাছ থেকে মোট টাকা আয় করেছেন। অথচ বহু করোনা যোদ্ধা রয়েছেন যাঁরা মাঠে নেমে কাজ করছেন, দুঃস্থদের প্রয়োজনীয় খাবার,বস্ত্র দিয়ে সাহায্য করছেন, এমনকি নিজেদের উপার্জিত অর্থ গবীর মানুষের মধ্যে বিলিয়ে দিচ্ছেন। বহু করোনা যোদ্ধাই বিনা পারিশ্রমিকে দেশ সেবায় নিয়োজিত রয়েছেন।

অমিতাভ বচ্চন কোনও সমাজকর্মী নন, এবং তাঁর পুরোনো রেকর্ডও সঠিক নয়- উল্লেখ রয়েছে আবেদনের প্রতিলিপিতে। উল্লেখ্য দেশের একাধিক আদালতে অমিতাভের বিরুদ্ধে বহু মামলা ঝুলছে সেই বিষয়ের কথা ইঙ্গিত করেই একথা বলা হয়েছে।

বন্ধ করুন