বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ, মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শে চলছেন! কেমন আছেন পুনম পাণ্ডে?
স্যাম বম্বে-পুনম পাণ্ডে
স্যাম বম্বে-পুনম পাণ্ডে

স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ, মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শে চলছেন! কেমন আছেন পুনম পাণ্ডে?

  • স্যাম বম্বের বিরুদ্ধে দু'বার গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ তুলেছিলেন পুনম পাণ্ডে।

স্বামী মারধর করেছেন। স্বামীর উপর গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ তুলেছিলেন অভিনেত্রী পুনম পাণ্ডে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বলিউডের বিতর্কিত নায়িকার স্বামীকে গ্রেফতারও করেছিল মুম্বই পুলিশ। বিয়ের ঠিক ২১ দিনের মাথায় স্বামীর বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ এনেছিলেন তিনি। দেড় বছরের দাম্পত্যে বারবার গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হয়েছেন বলে দাবি তাঁর। 

দু’বার স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন অভিনেত্রী। স্বামী স্যাম বম্বের সঙ্গে বিচ্ছেদ পুনম পাণ্ডের। বর্তমানে কেমন আছেন তিনি? সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মডেল-অভিনেত্রী জানিয়েছেন, আপাতত ভালো আছেন তিনি। মনরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে চলছেন। ফের প্রেম করবেন কিনা? সেই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে পুনম বলেন, আগামী পাঁচ বছর এসবের ধারে কাছে থাকবেন না তিনি। পাঁচ বছর পর ভেবে দেখতে পারেন। এখন প্রেম-টেমে একদমই যাবেন না। 

কাজের সূত্রে স্যাম বম্বে একজন প্রযোজক, পরিচালক এবং এডিটর। বিজ্ঞাপনের পরিচালক হিসেবে তিনি দীপিকা পাড়ুকোন, তামান্না ভাটিয়া, অল্লু অর্জুন, যুবরাজ সিং-র মতো তারকাদের সঙ্গে কাজ করেছেন। দিশা পাটানি আর টাইগার শ্রফের ‘বেফিকরে’র পরিচালক স্যাম।

পুনম পাণ্ডে মারধরের অভিযোগ এনেছিলেন স্বামী স্যাম বম্বের বিরুদ্ধে
পুনম পাণ্ডে মারধরের অভিযোগ এনেছিলেন স্বামী স্যাম বম্বের বিরুদ্ধে

বিয়ের আগে স্যামের সঙ্গে তিন বছর সম্পর্কে ছিলেন পুনম। ২০২০ সালের জুলাই মাসে বাগদান পর্ব সারেন স্যাম-পুনম। পরিবার ও কিছু বন্ধুদের উপস্থিতিকে সেই বছর ১ সেপ্টেম্বর সাত পাকে বাঁধা পড়েন। সেপ্টেম্বর মাসেই গোয়ায় মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে পুনম তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ এনেছিলেন। প্রথমবার বিয়ের তিন সপ্তাহের মাথায় স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন পুনম। 

দক্ষিণ গোয়ার ক্যানাকোনা থানায় স্বামী স্যাম বম্বের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানি এবং শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। সেই বার স্যামকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গত নভেম্বর মাসে স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করে মুম্বই পুলিশ। স্যামের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার পরেই হাসপাতালে ভর্তি হন পুনম। তাঁর মাথায়, চোখে এবং মুখে আঘাতের চিহ্ন ছিল বলে জানা যায়। এরপরই স্বামীর থেকে আলাদা হয়ে যান পুনম।

পুনম এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ‘আমাদের একটা বিষয় নিয়ে তর্ক হয়। আর ও রেগে গিয়ে আমার গলা টিপে ধরে। আমার মনে হয়েছিল আমি মরে যাব। আমার মুখে ঘুষি মারে। আমার চুল ধরে টেনে খাটের সাথে মাথা ঠুকে দেয়। মাটিতে ফেলেও পারে। কোনওরকমে ওর হাত ছাড়িয়ে হোটেলের ঘর থেকে বেরিয়ে আসি। তারপর হোটেলের বয়রা পুলিশে খবর দেয়।’

 

 

বন্ধ করুন