বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > একটা কয়েন ফ্লিপে নিয়েছিলেন জীবনের বড় সিদ্ধান্ত, ৪৬-তে পা সেই প্রীতি জিন্টার
অভিনেত্রী প্রীতি জিন্টা (HT_PRINT)
অভিনেত্রী প্রীতি জিন্টা (HT_PRINT)

একটা কয়েন ফ্লিপে নিয়েছিলেন জীবনের বড় সিদ্ধান্ত, ৪৬-তে পা সেই প্রীতি জিন্টার

  • ১৯৯৮ সালে ‘দিল সে’ চলচ্চিত্র দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক হয় প্রীতির। অভিনয়ের পাশাপাশি আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কর্ণধারও তিনি।

কয়েন ফ্লিপ করে জীবনের বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অভিনেত্রী প্রীতি জিন্টা। ২০০০ সালের দোরগোড়ায় বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় প্রীতি। সর্বদা মুখে হাসি লেগে থাকা এই অভিনেত্রী সিনেমা দুনিয়ার পেয়েছেন বলিউড ডিম্পলকন্যার খেতাব। ‘তা রা রাম পাম’ ছবির অফার এসেছিল প্রীতির কাছ। তবে দুর্ভাগ্যবসত ছবিটি না করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। 

অভিনেত্রীর ৪৬তম জন্মদিনে জানা যায়, তিনি নাকি কয়েন ফ্লিপ করেই জীবনের বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন একসময়। এটাই নাকি তাঁর স্টাইল। কয়েন ফ্লিপ করে টেল আসে তাই তিনি নাকি অফার গ্রহণ করেননি।

সিমি গারেওয়ালের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে প্রীতি জানিয়েছেন, যখন শেখর কাপুরের সঙ্গে তাঁর প্রথম দেখা হয় শেখর তাঁকে ‘তা রা রাম পাম’ ছবির জন্য অফার করেন। তিনি শেখর কাপুরের সামনে বাচ্চা সুলভ আচরণ করেন, নিজেকে কুল দেখানোর চেষ্টা করেন। শেখরকে বলেন, ‘একটি কয়েন ফ্লিপ করার পর যদি হেড আসে তবে ছবিটিকে নিজের কেরিয়ার হিসেবে বেঁছে নেবেন। যদি টেল আসে তবে তিনি এগোবে না। সবটাই ভাগ্যের উপর।’

 

প্রীতি জিন্টা
প্রীতি জিন্টা

এরপরই সিমিকে প্রীতি বলেন, তখন টেল এসেছিল। তাই ছবিটির জন্য চুক্তি করেননি তিনি। যা শুনে সিমি অবাক হয়ে যান। প্রীতিকে বলেন, একটা ছবির এত বড় অফার এত হালকা ভাবে নিলেন! উত্তরে প্রীতি বলেন, তখন সবটাই তাঁর কাছে স্টাইল ছিল। এটাও সেটারই অংশ ছিল।

হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া পুরনো এক সাক্ষাৎকারে প্রীতি জানিয়েছিলেন, ‘তা রা রাম পাম’-এর অংশ না হওয়াটা তাঁর ভাগ্যে ছিল না। তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ছবি হাতছাড়া হওয়ার পর তিনি দুঃখ পাননি? উত্তরে প্রীতি বলেন, তাঁর মনে একটাই শব্দ ঘুরছিল ‘ওহ’। তিনি আরও জানান, সেই সময় তিনি সবাইকে বলতে পারতেন তাঁর হাতে ‘তা রা রাম পাম’ নামে একটি ছবির অফার রয়েছে। তবে এখন সেটাও বলতে পারেন না।

বন্ধ করুন