বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মিস ওয়ার্ল্ডের ব্যাকস্টেজে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন প্রিয়াঙ্কা! কপালে দাগ হয়ে যায়..
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

মিস ওয়ার্ল্ডের ব্যাকস্টেজে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন প্রিয়াঙ্কা! কপালে দাগ হয়ে যায়..

ফাইলানের আগের মুহূর্তে চোট পেয়ে প্রিয়াঙ্কা কপালে পড়েছিল দাগ.. কীভাবে পরিস্থিতি সামলেছিলেন দেশি গার্ল? 

২০০০ সালে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মাথায় উঠেছিল মিস ওয়ার্ল্ড এর মুকুট। এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। একের পর এক সাফল্যের সিঁড়ি চড়েছেন তিনি। তবে খেতাব জেতার আগের মুহূর্তের অভিনেত্রীর সঙ্গে আচমকা একটি ঘটনা ঘটে। যাঁর জেরে কপালে চোট পান তিনি। দাগ বসে যায় মুখে… সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার ফাইনালে এমনই অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মুখে পড়েন মিস ইন্ডিয়া। 

প্রিয়াঙ্কা যখন মিস ওয়ার্ল্ডের প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুত হচ্ছিলেন সেই সময় মেকআপ রুমে একজন তাঁকে আচমকা পিছন থেকে ধাক্কা দেন। চুল কার্লি করছিলেন অভিনেত্রী, চুল কোঁকড়ানোর সেই মেশিনের গরমের ছ্যাঁকা তাঁর কপালে গিয়ে লাগে এবং কপালে কালসিটে দাগ পড়ে যায়। পরে সামনে চুল রেখে সেই দাগ ঢাকার চেষ্টা করেন অভিনেত্রী।

‘টুনাইট শো স্টিয়ারিং জিমি ফ্যালন’এর শো-তে ২০০০ সালে মিস ওয়ার্ল্ড জয়ের মুহূর্ত স্মরণ করেন প্রিয়াঙ্কা। তিনি বলেন, ‘সেই সময় আমার কপালে একটা দাগ পড়ে গিয়েছিল। আমি নিজেকে ঠান্ডা রাখার চেষ্টা করছিলাম কিন্তু সেই সময় আমার কিছু করার ছিল না। আমি চেষ্টা করছিলাম আমার চুল কোকড়ানোর, ৯০ জন মেয়ে ব্যাকস্টেজে সেই সময় মেকআপ এবং চুল করার জন্য ঘুরছিল। চুল কোঁকড়ানোর সময় পিছন থেকে কেউ আমাকে আচমকা গুঁতো মারে। এরপরই আমার কপালে দাগ বসে যায়’। 

তিনি আরও বলেন, সেই সময় কনলিসার দিয়ে তাঁর কাপলের সেই দাগ ঢাকার চেষ্টা করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত সামনে থেকে কোঁকড়ানো চুল বার করেন। এখন যখন পিছন ফিরে সেই ছবি দেখেন সেসব কথা মনে পড়ে তাঁর। কোনও দুর্ঘটনাই অবশ্য প্রিয়াঙ্কার মুকুট জয়ের অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়নি। বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান দখল করে দেশকে সম্মান এনে দিয়েছিলেন বলিউডের বর্তমান গ্লোবাল আইকন।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা জানান, তাঁর সবচেয়ে সুন্দর লুকসের কথা, তবে একইসঙ্গে অদ্ভুত ও অস্বস্তিকর পরিস্থিতি ঘটনাও। ২০০০ সালে মিস ওয়ার্ল্ড হওয়ার মূহূর্তে তিনি যে পোশাকে ছিলেন তা বেশ অস্বস্তিকর এবং অসুবিধাজনক ছিল। তিনি বলেন, ‘২০০০ সালে যখন আমি মিস ওয়ার্ল্ড হই, তখন আমার (অফ-শোল্ডার) ড্রেস আমার শরীরে টেপ দিয়ে আটকানো ছিল। সেই সময় শেষ পর্যন্ত যখন আমি জয়ী হয়েছিলাম, তখন সেটা আমার কাছে খুব চিন্তার বিষয় ছিল টেপটা যেন খুলে না বেরিয়ে আসে। আমি পুরো সময় হাঁটছিলাম দুটো হাত জোড়া করে, ‘নমস্কার’এর ভান করে। লোকে ভেবেছিল হয়তো নমস্কার করছি, কিন্তু আমি আমার ড্রেসটাকে ধরে রাখার জন্য ওটা করেছিলাম’। 

চলতি মাসের শুরুতে মুক্তি পেয়ছে  প্রিয়াঙ্কার আত্মজীবনী ‘আনফিনিসড’। বইয়ে জীবন সম্পর্কে তাঁর অভিজ্ঞতা, দুঃখ, সমাজ এবং পক্ষপাতিত্বের মতো নানা বিষয় নিয়ে লিখেছেন অভিনেত্রী।

বন্ধ করুন