বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > করোনার বিরুদ্ধে লড়াই, তহবিল গড়লেন প্রিয়াঙ্কা! বিশ্ববাসীর কাছে অনুদানের আর্জি
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (AP)
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (AP)

করোনার বিরুদ্ধে লড়াই, তহবিল গড়লেন প্রিয়াঙ্কা! বিশ্ববাসীর কাছে অনুদানের আর্জি

  • 'ভারত আমার দেশ, কিন্তু রক্তাক্ত পরিস্থিতিতে রয়েছে ভারত’ তহলবিল গড়ে সাহায্যের আর্তি দেশি গার্লের।

ভারতে করোনা মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ আচড়ে পড়েছে। গ্লোবাল আইকন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া সেই পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে বিশ্ববাসীকে ভারতীয়দের পাশে দাঁড়ানোর আনুরোধ করেছেন। সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে কোভিড ১৯-এ ভারতে ত্রান পরিষেবায় সাহায্য করতে অনুরোধ করেছেন। তিনি দেশের মারাত্মক পরিস্থিতি নিয়েও কথা বলেছে, কারণ হাসপাতালগুলি রোগীদের বেডের ব্যবস্থা করতে পারছে না। অক্সিজেন সরবরাহ এবং জীবন রক্ষাকারী ওষুধগুলিরও সংকট রয়েছে। 

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন প্রিয়াঙ্কা। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘কেন আমাদের নজর নেওয়ার প্রয়োজন আছে জানো? এখনই কেন এত জরুরি? আমি এখানে লন্ডনে বসে আমার পরিবার এবং বন্ধুদের থেকে শুনতে পাচ্ছি ভারতে হাসপাতালে বেডের অভাবের কথা, আইসিইউতে কোনো রুম ফাঁকা নেই, অ্যাম্বুলেন্স খুব ব্যস্ত, অক্সিজেনের ঘাটতি, শ্মশানগুলি গণ-শ্মশান পরিণত হয়েছে কারণ মৃত্যুর পরিমাণ এত বেড়ে গেছে। ভারত আমার দেশ, কিন্তু রক্তাক্ত পরিস্থিতিতে রয়েছে ভারত’।

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের, বিশ্ব সম্প্রদায় হিসাবে যত্ন নেওয়ার প্রয়োজন। আমি বলছি কেন প্রয়োজন- কারণ যতক্ষণ না সবাই নিরাপদে থাকছে, তবে কেউই নিরাপদ নয়। সুতরাং, দয়া করে আপনার সংস্থানগুলি ব্যবহার করুন এবং এই মহামারীটি বন্ধ করতে সাহায্য করার জন্য আপনার সাধ্যমতো সহায্যের হাত বাড়িতে দিন। দান করুন’।

দেশি গার্লের কথায়, ‘আমি বুঝতে পেরেছি অনেকে অবশ্যই রাগ করবেন এবং এই সম্পর্কে ভাববেন, 'আমরা কেন এই জায়গায় প্রথম স্থানে আছি? এটা কেন ঘটছে?' আমরা তা মোকাবিলা করব তবে তৎকালীন পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার পর। অনুগ্রহ করে অনুদান করুন এবং আপনার যথাসাধ্য, যতটা পারেন করুন। ভারতের আপনাকে দরকার’।

তিনি পোস্টের ক্যাপশনে লেখেন, ‘আপনি যা কিছু করতে পারেন, সেটাই পার্থক্য গড়বে। ৬৩ মিলিয়ন মানুষ আমাকে ইনস্টাগ্রামে ফলো করে। আপনারা ১০ ডলার থেকে ১ লক্ষ টাকার মধ্যে অনুদান করলে, সেটাই ১ মিলিয়নের কাছাকাছি গিয়ে পৌঁছবে, যেটা বিশাল। আমাদের অনুদান সরাসরি স্বাস্থ্যসেবা শারীরিক অবকাঠামোতে গিয়ে পৌঁছবে (কোভিড কেয়ার সেন্টার, আইসোলেশন কেন্দ্র এবং অক্সিজেন জেনারেশন প্ল্যান্ট সহ) চিকিৎসা সরঞ্জাম, এবং ভ্যাকসিন সমর্থন এবং মোবিবিলাইজেশন’।

প্রিয়াঙ্কা বলেছিলেন যে তিনি এবং তার স্বামী নিক জোনাস ইতিমধ্যে অনুদান করেছেন এবং ‘চালিয়ে যাবেন’। অভিনেত্রী বলেন, তিনি কতটা অনুভব করে হদয় থেকে একথা বলছেন, যেন মানুষ এগিয়ে এসে একটু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়।

 

বন্ধ করুন