বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Projapoti Box Office Collection: ফাটাফাটি ব্যবসা! বিতর্ক ছাপিয়ে শুরুর ১০ দিনে কত আয় করল দেব-মিঠুনের প্রজাপতি?

Projapoti Box Office Collection: ফাটাফাটি ব্যবসা! বিতর্ক ছাপিয়ে শুরুর ১০ দিনে কত আয় করল দেব-মিঠুনের প্রজাপতি?

দেব-মিঠুন

Projapoti Box office Collection: কুণাল ঘোষের মন্তব্যকে বুড়ো আঙুল! প্রথম সপ্তাহের পর দ্বিতীয় সপ্তাহেও ফাটাফাটি ব্যবসা ‘প্রজাপতি’র। ১০ দিনে কত কোটির কালেকশন করল এই ছবি? 

মিঠুনের জন্য ভরাডুবি হয়েছে ‘প্রজাপতি’র- কুণাল ঘোষের কটাক্ষকে ভুল প্রমাণ করে রমরমিয়ে ব্যবসা করছে ‘প্রজাপতি’। বছরের প্রথমদিন ছক্কা হাঁকিয়েছে এই ছবি। একদিনে ১ কোটি টাকার ব্যবসা করে সকলকে অবাক করে দিয়েছে। এবার ‘প্রজাপতি’ নিয়ে সামনে এল নতুন পরিসংখ্যান। ছবি মুক্তির পর প্রথম ১০ দিনে কত টাকা আয় করেছে এই ছবি? 

জানা গেল দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রবেশের পর থেকে ‘প্রজাপতি’র উড়ান আরও বেশি করে ডানা মেলেছে। প্রথম দশদিনে দেশের বক্স অফিসে সবমিলিয়ে ৪ কোটি টাকার ব্যবসা করে নিয়েছে এই ছবি, খবর সূত্রের। যা প্রশংসনীয়। ১লা জানুয়ারি এই ছবির আয় ছিল ১ কোটির বেশি, যা গুঁড়িয়ে দিয়েছে বাংলা বক্স অফিসের পুরোনো সব রেকর্ড। 

পরিচালক অভিজিৎ সেনের এই ছবিতে বাবা-ছেলের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে মিঠুন এবং দেবকে। ক্রিসমাসে ‘প্রজাপতি’র পাশাপাশি মুক্তি পেয়েছে ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত অভিনীত ‘হত্যাপুরী’ এবং পরিচালক জুটি শিবপ্রসাদ-নন্দিতা রায়ের ‘হামি ২’। টাকার অঙ্কের নিরিখে এই তিন ছবির মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করেছে ‘প্রজাপতি’। তবে শহরের একাধিক হলে তিন ছবির নামের পাশেই ঝুলছে ‘হাউসফুল’ বোর্ড। এক কথায় বাঙালি দর্শক হলমুখী বাংলা ছবি দেখতে। 

মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ২ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা আয় করেছে প্রজাপতি। দ্বিতীয় সপ্তাহেও সেই ট্রেন্ড বজায় থাকল, বরং শুরুর তিন দিনেই প্রায় ২ কোটি টাকার কামাই করল এই ছবি- যা একথায় দুর্দান্ত! প্রথম সপ্তাহে এই ছবির শো সংখ্যা ছিল ১৮৯, দ্বিতীয় সপ্তাহে তা একলাফে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮৯-এ! এই পরিসংখ্য়ানই বলে দিচ্ছে দর্শক ‘প্রজাপতি’ নিয়ে কতখানি উত্তেজিত। 

জানিয়ে রাখি, তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ দিন কয়েক আগে এক সাংবাদিক বৈঠকে বেঁফাস মন্তব্য করে বসেন। তিনি বিজেপি নেতা মিঠুনকে কটাক্ষের বদলে অভিনেতা মিঠুনের সমালোচনায় মুখর হন, বলেন- 'মিঠুন চক্রবর্তীকে নিয়ে সিনেমা বানানোয় ফ্লপ হয়েছে প্রজাপতি'। এই মন্তব্যের পালটা জবাবও দেন দেব। জানিয়ে দেন সিনেমাটা তাঁর বিষয়, এই নিয়ে বিতর্ক তৈরির চেষ্টা না করাই ভালো। 'মিঠুনদাকে স্ক্রিপ্ট অনুযায়ী প্রয়োজন পরলে আবারও ছবিতে নেব। উনি হ্যাঁ বা না বলতে পারেন ওঁর ইচ্ছা অনুযায়ী।’

দেব-মিঠুন ছাড়াও এই ছবিতে দেখা মিলেছে মমতা শঙ্কর, কণীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, অম্বরীশ ভট্টাচার্য, শ্বেতা ভট্টাচার্য, কৌশানি মুখোপাধ্যায়ের। টনিক ও প্রজাপতির সাফল্যের পর আগামী বছরের শেষেও পর্দায় ফিরবে অভিজিৎ সেন ও দেব জুটি। তিন নম্বর ছবির ঘোষণাও ইতিমধ্যেই সেরে ফেলেছেন অভিনেতা। 

বন্ধ করুন