বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > করোনার ভয়! পিপিই কিট, মাস্ক, গ্লাভস পরে সবজি কিনতে গেলেন রাখি সাওয়ান্ত
পিপিই কিট পরে রাখি সাওয়ান্ত
পিপিই কিট পরে রাখি সাওয়ান্ত

করোনার ভয়! পিপিই কিট, মাস্ক, গ্লাভস পরে সবজি কিনতে গেলেন রাখি সাওয়ান্ত

  • অনেকেই রাখির এই পদক্ষেপকে পাবলিসিটি স্টান্ট বলেই গন্য করেছেন। কারও কারও মতে, করোনার সময়ে জনসচেতনাতা বাড়াবে রাখির শেয়ার করা এই ভিডিয়ো। 

ইন্টারনেট সেনসেশন রাখি জানেন কীভাবে জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে হয়। এবার পিপিই কিট পরে বাজারে সবজি কিনতে দেখা গেল রাখি সাওয়ান্তকে। শুধু তাই নয়, চলল দর কষাকষিও। রাখি নিজেই সবজি কেনার সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। আপাতত তা ভাইরাল।

পিপিই কিট, হাতে গ্লাভস আর মুখে মাস্ক পরে বাজার করতে গিয়েছন তিনি। যদিও মুখের মাস্ক কখনও আপনা থেকে নেমে যাচ্ছে, তো কখনও ইচ্ছে করে নামিয়ে দিচ্ছেন। সঙ্গে রাখি স্পেশ্যাল ডায়ালগবাজি তো আছেই। মাস্ক না পরার জন্য দোকানদারকে কথা শোনাতেও ছাড়ছেন না তিনি। 

তবে, রাখির কাছে এই ভিডিয়ো মজার হলেও, সবজি নিয়ে তাঁর দর কষাকষি পছন্দ হয়নি নেটাগরিকদের। ভিডিয়োর একটি পর্যায়ে দেখা যাচ্ছে, রসুনের একটা প্যাকেট ২০০ টাকা চেয়েছিলেন দোকানি। রাখি ১৫০ দিতে চান। দোকানি রাজি না-হওয়ায় তা ছুড়ে রাখেন তিনি। এমনকী, ‘আমি আপনার দোকান ভাইরাল করে দিলাম’-এর মতো কথা বলতেও তাঁকে শোনা যায়। সেখানে উপস্থিত এক ব্যক্তি রাখিকে পয়সাওয়ালা বললে, রাখি উত্তরে 
বলে— ‘যদি পয়সাওয়ালা হইও, তোমাদের জন্য রোজগার করি নাকি? রিয়েলিটি শো-তে কত পরিশ্রম করি!’

রাখি সাওয়ান্তের এই ব্যবহার নিয়েই চলছে সমালোচনা। যেখানে করোনার কারণে সব ব্যবসাতেই মন্দা, সেখানে ফুটপাথের দোকানে দরদাম করা পছন্দ করেননি রাখির অনুরাগীরা। আবার এটিকে অনেকে রাখির পাবলিসিটি স্ট্যান্ট বলেই মনে করেছেন। খবরে থাকতে এরকম হামেশাই করে থাকেন। কিছুদিন আগে ক্যানসার আক্রান্ত মায়ের জন্য কাঁদতে কাঁদতে রাস্তায় বসে পড়ছেন রাখি, এরকম ভিডিয়োও ভাইরাল হয়েছিল। দু’ দিন আগে মাস্ক খুলে পাপারাৎজির সামনে ‘করোনা ভাগ যাও ইহাসে’ বলে চিৎকার করতেও শোনা গিয়েছে।

বন্ধ করুন