বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘ভুল কাজ করছো’, বাবার স্মরণসভায় পৌঁছে পাপারাতজিদের উপর চটলেন রণবীর
রেগে গেলেন রণবীর
রেগে গেলেন রণবীর

‘ভুল কাজ করছো’, বাবার স্মরণসভায় পৌঁছে পাপারাতজিদের উপর চটলেন রণবীর

  • শিকেয় করোনাবিধি! বালাই নেই সামাজিক দূরত্ববিধির, বকা খেয়ে অভিনেতার কাছে অবশ্য ক্ষমা চেয়ে নেন চিত্রসাংবাদিকরা।

শুক্রবার প্রয়াত তারকা ঋষি কাপুররে প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। আর দিনে কাপুর পরিবারের তরফে আয়োজন করা হয়েছিল বাৎসরিক পুজো-পাঠের। মা, নীতু কাপুরের কাছে শুক্রবার দুপুরে পৌঁছান রণবীর-আলিয়া। একই গাড়িতে এদিন বাড়ির ভিতর প্রবেশ করেন এই তারকা দম্পতি। বাইরে ছিল উপচে পড়া সাংবাদিকদের ভিড়। 

গাড়ি থেকে নেমেই দ্রুত ভিতরে প্রবেশ করেন আলিয়া। ছবির জন্য এক সেকেন্ডও অপেক্ষা করেননি কাপুর পরিবারের হবু বউমা। অন্যদিকে রণবীর উলটো দিকের দরজা দিয়ে বার হন। এরপর ঢোকবার আগে পাপারাতজিদের উচিত পাঠ পড়ালেন রণবীর। করোনা বিধি বলবৎ থাকা সত্ত্বেও কীভাবে তা লঙ্ঘন করে ছবি তুলতে হুড়োহুড়ি করছেন চিত্রসাংবাদিকরা তা দেখে হয়রান হয়ে যান রণবীর!

সামাজিক দূরত্ববিধি না মানায়, রণবীর বলে বসেন- তোমার ভুল কাজ করছো।বিল্ডিংয়ের ভিতর ঢোকাটাও তাঁদের অনুচিত হয়েছে সেকথাও মনে করিয়ে দেন রণবীর। নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে সঙ্গে সঙ্গেই রণবীরের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন পাপারাতজিরা।

করোনার কথা মাথায় রেখে, এদিন অনলাইনেই ঋষি কাপুরের জন্য পুজোর বন্দোবস্ত করেছিলেন নীতু কাপুর। পিঙ্কভিলাকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে ঋষি কাপুরের দিদি ঋতু জৈন এইকথা জানান। রণবীর ও নীতু এই পুজোয়  যোগ দেন। জুম-এর মাধ্যমে পরিবারের অন্য সদস্যরা অংশ নেন। উল্লেখ্য, কাপুর পরিবারের সবচেয়ে বয়স্ক সদস্য রণধীর কাপুর আপাতত করোনা আক্রান্ত হয়ে আইসিইউতে রয়েছেন। 

আগেই করোনার খপ্পড়ে পড়তে হয়েছে নীতু-রণবীরকে। গত মাসেই কোভিডের কবলে পড়েন রণবীর, আর চলতি মাসের শুরুতেই কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে আলিয়ার। 

গত বছর ক্যানাসারের সঙ্গে দীর্ঘ দু-বছরের লড়াই থামিয়ে না-ফেরার দেশে পাড়ি দেন ঋষি কাপুর। এদিন প্রয়াত স্বামীকে স্মরণ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগঘন বার্তা পোস্ট করেন নীতু কাপুর।

স্মৃতিচারণায় নিতু কাপুর লিখেছেন, ‘গত বছরটা গোটা পৃথিবীর জন্যই দুঃখের ছিল। আমাদের জন্য একটু বেশি দুঃখের ছিল। কারণ আমরা ওঁকে হারিয়েছি। এমন একটা দিনও কাটেনি যেদিন তাঁকে নিয়ে কথা হয়নি বা আমরা তাঁকে মনে করিনি। কখনও ওঁর পরামর্শ, কখনও বা ওঁর বলা মজার কথা মনে পড়েছে'।

অভিনেত্রী আরো লিখেছেন, ‘ওঁর পরামর্শ, ওঁর হাসি সব মনে পড়েছে। ও আসলে আমাদের অস্তিত্বেরই একটা অংশ হয়ে আছে। গোটা বছর আমরা হাসি মুখে ওঁকে স্মরণ করেছি, ওঁ সারাজীবন আমাদের হৃদয়ে থাকবে’।

বন্ধ করুন