বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘নিজের ভাইয়ের সঙ্গে গুজব রটিয়েছিল’, 'ট্যাবলয়েড কালচার' নিয়ে বিস্ফোরক রবিনা!
রবিনা টন্ডন। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
রবিনা টন্ডন। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)

‘নিজের ভাইয়ের সঙ্গে গুজব রটিয়েছিল’, 'ট্যাবলয়েড কালচার' নিয়ে বিস্ফোরক রবিনা!

  • কেরিয়ারের তুঙ্গে থাকাকালীন গসিপ ম্যাগাজিনগুলোর অন্যতম লক্ষ্য ছিলেন তিনি, দাবি রবিনা টন্ডনের।

কেরিয়ারের তুঙ্গে থাকাকালীন গসিপ ম্যাগাজিনগুলোর অন্যতম লক্ষ্য ছিলেন তিনি, দাবি রবিনা টন্ডনের। সম্প্রতি, দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নব্বইয়ের দশকের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী জানিয়েছেন সেইসময় তাঁর নামকে কেন্দ্র করে কাছের বন্ধুদের সঙ্গেও সম্পর্কের গুঞ্জন রব উঠেছে। এমনকি একবার আপন ভাইয়ের সঙ্গেও তাঁর সম্পর্ক আছে বলে রটিয়েছিল গসিপ ম্যাগাজিনের কর্তারা।

রবিনা জানান নিজের সহ-অভিনেতাদের সঙ্গে জমাটি বন্ধুত্ব ছিল। আর এটাই নাকি মেনে নিতে দারুণ অসুবিধে হতো গসিপ ম্যাগাজিনের কর্তাদের। সেই সময় তারকাদের অনেক সময়ই নির্দিষ্ট কিছু ম্যাগাজিনের সম্পাদকদের ‘মুখাপেক্ষী’ হয়ে থাকতে হত।ফিল্ম কম্পম্যানিয়ন-কে দেওয়া সেই সাক্ষাৎকারে রবিনা আরও বলেন, ' সেই সময়ে রাতের পর রাত না ঘুমিয়ে কাটিয়েছি। শুধু ভাবতাম কেন আমার সঙ্গেই এঁরা এমন করছেন? অপমানে, কান্নায় কাটিয়েছি বহু মুহূর্ত। তার জন্য একমাত্র দায়ী 'সেইসব খবর'।আমার পরিবারের সদস্যরাও সমানভাবে কষ্ট পেত।'

সামান্য থেমে রবিনার সংযোজন, 'একবার তো নিজের ভাইয়ের সঙ্গে আমার নাম জুড়ে দিয়েছিল স্টারডাস্ট ম্যাগাজিন! গোটা গোটা অক্ষরে সেই ম্যাগাজিনে লেখা হয়েছিল ইদানিং রবিনার সঙ্গে এক সুদর্শন ব্যক্তিকে দেখা যাচ্ছে। আমরা জানতে পেরেছি এই ব্যক্তি রবিনার প্রেমিক ছাড়া আর কেউ নয়।' বলি-অভিনেত্রী জানান, ওই সময়ে সামান্য কোনও ঘটনাকেও নাকি নুন-মশলা মাখিয়ে মাখো মাখো খবরে রূপান্তরিত করে পেশ করতে ওস্তাদ ছিল ওইসব ম্যাগাজিন।তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দেশের 'ট্যাবলয়েড কালচার'-এ যে পরিবর্তন এসেছে তাতে তিনি যে খুশি সেকথাও জানিয়েছেন রবিনা টন্ডন।

বন্ধ করুন