বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'সন্তানদের ছবি তুলতে বারণ করলে বরাবর কথা শুনেছে পাপারাতজিরা' : রবিনা টন্ডন
প্রশংসায় ভরালেন রবিনা
প্রশংসায় ভরালেন রবিনা

'সন্তানদের ছবি তুলতে বারণ করলে বরাবর কথা শুনেছে পাপারাতজিরা' : রবিনা টন্ডন

  • মুম্বইয়ের চিত্র সাংবাদিকদের প্রশংসায় ভরালেন রবিনা। গোপনীয়তাকে মর্যাদা দেওয়ার জন্য দিলেন ধন্যবাদ। 

মেয়ের নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা বজায় রাখবার স্বার্থে বিরাট-অনুষ্কা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেয়ের ছবি সংবাদমাধ্যম বা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ না করবার। এই মর্মে গত বুধবার বিরুষ্কার তরফে আনুষ্ঠানিকভাবে বার্তা পাঠানো হয় মুম্বইয়ের সকল পাপারাতজিদের কাছে। সেখানে লিখিত বার্তায় সদ্য মেয়ের বাবা-মার আবেদন- নবজাতকের ছবি না তুলতে। বিরুষ্কার সেই বার্তা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন মায়ানগরীর সবচেয়ে জনপ্রিয় পাপারাতদি ভাইরাল ভায়ানি। তিনি সেই পোস্টের শেষে জানান, ‘আমরা মেনে নিয়েছি এবং আমার গোটা টিমের কাছে এই বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে’।

মেয়ের স্বার্থে নেওয়া বিরুষ্কার এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেন রবিনা টন্ডন। পাশাপাশি ভাইরাল ভায়ানির ইনস্টা পোস্টের কমেন্ট বক্সে রবিনা নিজের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। লেখেন- ‘সম্পূর্ণরূপে সহমত এই মনোভাবের সঙ্গে, এবং আমাদের ফটোগ্রাফারদের অশেষ ধন্যবাদ মানুষের ইচ্ছার মর্যাদা দেওয়ার জন্য। তোমরা সবসময় আমার অনুরোধও রক্ষা করেছো যখনই আমি বারণ করেছি আমার সন্তানদের ছবি তুলতে যখন ওঁরা ছোট ছিল আপনারা কথা রেখেছেন। এই সুযোগের সদ্বব্যবহার করে আমিও আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি, আমার কথার মর্যাদা রাখবার জন্য’। 

রবিনার ভাইরাল কমেন্ট 
রবিনার ভাইরাল কমেন্ট 

বিরাট-অনুষ্কার যতদিন পর্যন্ত অনুমতি না দিচ্ছেন ততদিন তাঁদের মেয়ের ছবি তোলা হবে না, জানিয়েছেন মুম্বইয়ের পাপারাতজিরা। আগেও ভাইরাল জানিয়েছেন যে সকল বলিউড তারকারা নিজেদের সন্তানদের ছবি তুলতে ফটোগ্রাফারদের নিষেধ করে সেই অনুরোধ রাখা হয়। এর আগে রানি মুখোপাধ্যায় ও আদিত্য চোপড়ার তরফেও তাঁদের মেয়ের ছবি তুলতে বারণ করা হয়েছিল। শিল্পা শেট্টিও একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত মেয়ের ছবি পাপারাতজিদের তুলতে নিষেধ করেছিলেন। এখন অবশ্য খোশমেজাজে ছবির জন্য মেয়েকে নিয়ে পোজ দেন শিল্পা।

 বিরাট-অনুষ্কার তরফে যে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি পাঠানো হয়েছে সেখানে লেখা রয়েছে- ‘নমস্কার, এত বছর ধরে আপনারা আমাদের যে ভালোবাসা দিয়েছেন তাঁর জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আমরা খুশি হয়ে আপনাদের সঙ্গে এই মুহূর্ত ভাগ করে নিচ্ছি। বাবা-মা হিসাবে আমাদের একটা অতি সাধারণ অনুরোধ রয়েছে আপনাদের কাছে। আমরা নিজেদের সন্তানের গোপনীয়তা বজায় রাখতে চাই, এই কাজে আপনাদের সাহায্য ও সমর্থন প্রয়োজন’। বিরুষ্কার তরফে যোগ করা হয়েছে- ‘আমরা আগামিতেও নিশ্চিত করব আমাদের সবরকমের কনটেন্ট আপনাদের কাছে পৌঁছে দিতে যা কিছু সহযোগিতা করা সম্ভব সেগুলো মেনে চলা। আমরা আবেদন জানাচ্ছি, দয়া করে আমাদের সন্তানের কোনওরকম ছবি আপনারা তুলবেন না বা কোথাউ ছড়িয়ে দেবেন না। আশা করছি আপনারা বুঝবেন আমরা কোন পরিস্থিতি থেকে এই কথাগুলো বলছি, এবং এর জন্য আগাম ধন্যবাদ’।

বন্ধ করুন