বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'অমিত মেরা প্যায়ার হ্যায়', সিলসিলার আইকনিক দৃশ্য পর্দায় ফের জীবন্ত করলেন রেখা
অমিতাভ-রেখা 
অমিতাভ-রেখা 

'অমিত মেরা প্যায়ার হ্যায়', সিলসিলার আইকনিক দৃশ্য পর্দায় ফের জীবন্ত করলেন রেখা

  • সিলসিলা ছবিতে অমিতাভ-রেখা-জয়া'র ত্রিকোণ প্রেম কাহিনি ফের একবার প্রাণ পেল ‘ডান্স দিওয়ানে’র মঞ্চে।

বলিউডের এভারগ্রিন বিউটি তিনি, তাঁর রূপের জাদুতে মুগ্ধ আসমুদ্রহিমাচল। সচরাচর জনসমক্ষে দেখা যায় না রেখাকে। তবে যখন তিনি প্রকাশ্যে আসেন, রূপে-লাস্যে মুগ্ধ করেন এই বলি সুন্দরী। চলতি সপ্তাহান্তে কালার্সের ডান্স দিওয়ানের মঞ্চে দেখা মিলবে তাঁর। শোয়ের নতুন প্রমো সামনে এসেছে, সেখানে মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে যশ চোপড়ার ‘সিলসিলা’ ছবির আইকনিক দৃশ্য রিক্রিয়েট করলেন রেখা। 

১৯৮১ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। ত্রিকোণ প্রেমের এই কাহিনিতে অভিনয় করেছিলেন রিয়েল লাইফ জুটি অমিতাভ-জয়া, এবং রেখা। বিবাহিত অমিতাভের সঙ্গে রেখার প্রেমের গল্প তখন বলিউডের অলিতেগলিতে, আর ‘সিলসিলা’তে খোদ অমিতাভ পত্নীর সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করে নিয়েছিলেন রেখা। সেখানেও বিবাহিত অমিতাভের প্রেমিকার ভূমিকায় তিনি। ‘সিলসিলা’ ছবিতে রেখা-জয়ার আইকনিক সিনও আজও গেঁথে আছে দর্শকদের মনে। ডান্স দিওয়ানের মঞ্চে জয়ার লাইন গুলো গড়গড়িয়ে বললেন মাধুরী। শুরুতেই ধকধক গার্ল বলে উঠেন, ‘তুমি কি চাও?’, রেখার পালটা জবাব- আমার চাওয়া নিয়ে কী হবে?, মধুরী একটু থেমে বলেন, ‘তুমি ওঁনার সঙ্গ ছেড়ে দাও'। আবেগতাড়িত রেখার উত্তর, 'এটা আমার হাতে নেই, যেটা আমার হাতে নেই সেটা আমি কী করে করব?' দৃঢ় কন্ঠে মাধুরীর সপাট জবাব,'অমিত আমার স্বামী', রেখা সবশেষে যোগ করেন, ‘উনি আমার একমাত্র ভালোবাসা, আর সেই ভালোবাসাই আমার ভাগ্য’। 

রেখা-মাধুরীর এই কথোপকথনের শেষেই প্রমোতে বেজে উঠল ‘দেখা এক খাওয়াব’-এর ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর। জানা যাচ্ছে এই শো-তে নিজের বেশ কিছু আইকনিক গানে নাচতে দেখা যাবে রেখাকে। দিন কয়েক আগেই শো-তে রেখার লুক প্রকাশ্যে এনেছিল চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। 

রিয়ালিটি শো-এর মঞ্চে অতিথি শিল্পী হিসাবে হাজির হয়ে হামেশাই নজর কাড়েন রেখা। এপ্রিলেই ইন্ডিয়ান আইডল ১২-এর মঞ্চে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রীকে। সেখানেও বেশ কিছু বিতর্কিত মন্তব্য করতে দেখা যায় তাঁকে। শো-এর সঞ্চালক জয় ভানুশালি বিচারক, নেহা কক্কর, রেখার উদ্দেশে প্রশ্ন রেখেছিলেন, ‘আপনারা কি কখনও দেখেছেন কাউকে কোনও মহিলাকে কোনও পুরুষের জন্য পাগল হতে, তাও বিবাহিত পুরুষের প্রেমে পড়তে?’ জয়ের প্রশ্ন শেষ হওয়ার আগেই রেখার সটান জবাব ছিল, ‘আরে আপনি আমাকেই বলুন না’।

রেখা, অমিতাভের প্রতি নিজের দুর্বলতার ও ভালোবাসার কথা বহুবার প্রকাশ্যে জানালেও, এই ব্যাপারে কোনওদিনই মুখ খোলেনি বচ্চন পরিবার। সিমি গেরেওয়ালের টক শো'তে রেখাকে অমিতাভের সঙ্গে প্রেম সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল। জবাবে রেখা সপাট জানান, ‘অবশ্যই! এটা খুব বোকা বোকা প্রশ্ন’। এরপর উত্তরটিকে সার্বিক করে বলেন, ‘আমি এমনও কোনও পুরুষ, মহিলা বা শিশুকে দেখিনি যে সম্পূর্নরূপে, প্রচণ্ডরকমভাবে, এবং প্যাশানেটলি ওই মানুষটাকে ভালোবাসে না। আমিই বা কেন ছাই বাদ যাব?’

জীবনে একবারই বিয়ে করেছিলেন বলিউডের এভারগ্রিন বিউটি রেখা। তবে দাম্পত্য সুখ খুব বেশি দিন স্থায়ী হয়নি নায়িকার জীবনে। ১৯৯০ সালের মার্চ মাসে ব্যবসায়ী মুকেশ আগারওয়ালকে বিয়ে করেছিলেন রেখা। বিয়ের সাত মাস পূর্ণ হওয়ার আগেই ১৯৯০ এর ২রা অক্টোবর আত্মহত্যা করেন রেখার স্বামী। এরপর আর বিয়ে করেননি রেখা। গত ৩১ বছর ধরে নিঃসঙ্গ জীবন কাটাচ্ছেন।

বন্ধ করুন