বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার রেমো ডি' সুজার শ্যালকের মৃতদেহ, তদন্ত শুরু পুলিশের

ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার রেমো ডি' সুজার শ্যালকের মৃতদেহ, তদন্ত শুরু পুলিশের

রেমো ডি'সুজা-জেসন ওয়াটকিনস। (ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)

মুম্বইয়ের যমুনা নগরের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে রেমো ডি' সুজার শ্যালক জেসন ওয়াটকিনসের দেহ। 

দুঃসংবাদ নেমে এল পরিচালক ও কোরিওগ্রাফার রেমো ডি'সুজার পরিবারে। মুম্বইয়ের যমুনা নগরে শ্যালক জেসন ওয়াটকিনসের বাড়ি থেকেই উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর দেহ। বন্ধুর বিয়ের অনুষ্ঠাননে হাজির হতে গোয়ায় গিয়েছিলেন রেমো এবং তাঁর স্ত্রী লিজেল ডি'সুজা। সেখানেই তাঁদের কানে আসে এই দুঃসংবাদ।

নিজের ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে জেসন ওয়াটকিনসের দেহ। এরপর দ্রুত তাঁকে কুপার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে কোনওরকম ধ্বস্তাধস্তি কিংবা মারামারির কোনও চিহ্ন নেই।

ভাইয়ের এই মৃত্যু সংবাদে স্বভাবতই ভেঙে পড়েছেন রেমোর স্ত্রী লিজেল। নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ভাইয়ের ছবি দিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে তাঁকে কোনওদিন ক্ষমা না করার কথাও জানিয়েছেন তিনি। লিখেছেন, 'কেন? কীভাবে তুমি আমার সঙ্গে এটা করতে পারলে? আমি তোমাকে কখনো ক্ষমা করব না'।

লিজেলের সেই ইনস্টাগ্রাম স্টোরি। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
লিজেলের সেই ইনস্টাগ্রাম স্টোরি। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)

 উল্লেখ্য, রেমো পরিচালিত ছবিতে সহ পরিচালক হিসাবে কাজ করতেন জেসন। প্রসঙ্গত, জেসনের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে মা মারা যাওয়ার পর থেকেই অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। 

লিজেলের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
লিজেলের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)

তাঁরা আরও জানিয়েছেন, সম্ভবত গাঁজা সেবনেও আসক্ত হয়েছিলেন জেসন।

বন্ধ করুন