বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের কোন কোন সম্পত্তি রয়েছে রিয়ার কাছে ? দেখুন কী বলছেন অভিযুক্ত নায়িকা
রিয়া চক্রবর্তী (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
রিয়া চক্রবর্তী (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

সুশান্তের কোন কোন সম্পত্তি রয়েছে রিয়ার কাছে ? দেখুন কী বলছেন অভিযুক্ত নায়িকা

  • সুশান্তের একটি ডায়রি পাতা (রিয়ার মতে) এবং ছিছোড়ের সিপার বোতল শেয়ার করে রিয়া দাবি করেন- প্রয়াত বয়ফ্রেন্ডের শুধুমাত্র এই সম্পত্তি তাঁর কাছে রয়েছে। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে কোটি কোটি টাকা সরানোর অভিযোগ রয়েছে তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে। সুশান্তের মৃত্যুর মূল অভিযুক্তর বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের মামলা দায়ের করে তদন্তও শুরু করেছে ইডি। শুক্রবারই এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের ম্যারাথন জেরার মুখোমুখি হতে হয় রিয়াকে। সেখানে নায়িকার আয়-ব্যায়ের হিসাব, সম্পত্তির হিসাব সব বিস্তারিত জানতে চান তদন্তকারীরা। উল্লেখ্য সুশান্ত সিং রাজপুতের দুটি কোম্পানির ডিরেক্টরের পদেও রয়েছেন রিয়া ও তাঁর ভাই এবং বাবা।সুশান্তের আরও দুটি কোম্পানিও রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে। সেই চারটি কোম্পানি সম্পর্কেও তথ্য জানতে চায় ইডি। 

আর এই জিজ্ঞাসাবাদের ঠিক পরের দিনই মিডিয়ার সঙ্গে সুশান্তের সঙ্গে সম্পর্কিত কোন সম্পত্তি রিয়ার কাছে রয়েছে তা ভাগ করে নিলেন রিয়া! এদিন ইন্ডিয়া টুডের সঙ্গে সুশান্তের ডাইরির একটি পাতা এবং একটি সিপার বোতলের ছবি শেয়ার করে দেন রিয়া। সুশান্তের কেবলমাত্র এই দুটি জিনিস নাকি রয়েছে রিয়া চক্রবর্তীর কাছে। সেই ডায়রির পাতায় লেখা রয়েছে ‘কৃতজ্ঞতার তালিকা’। সেই তালিকায় লেখা রয়েছে- আমি নিজের জীবনের জন্য কৃতজ্ঞ, আমার জীবনে লিল্লুর থাকার জন্য কৃতজ্ঞ, আমার জীবনে বেবুর থাকার জন্য কৃতজ্ঞ, আমার জীবনে স্যারের উপস্থিতির জন্য কৃতজ্ঞ, আমি কৃতজ্ঞ যে ম্যাম আমার জীবনে রয়েছেন এবং অবশ্যই ফাজ আমার জীবনে থাকবার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। আমি কৃতজ্ঞ যে আমি জীবনে এত ভালোবাসা পেয়েছি'। 

রিয়া জানিয়েছেন, এটা ওর (সুশান্তের) হাতে লেখা। লিল্লু হল শৌভিক, বেবু হলাম আমি। আমার বাবা-মা'কে ও স্যার এবং ম্যাম বলে ডাকত। আর ফাজ ওর পোষ্য। রিয়া জানিয়েছেন সুশান্তের ছবি ছিছোড়ের একটি মার্চেনডাইস, একটি সিপার বোতল যেটি সুশান্তের সেটি তার কাছে রয়েছে, শুধু মাত্র এই দুটি-আর কিছু নেই। 

রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানেসিন্ধে জানিয়েছেন, ‘রিয়াকে জেরা করা হয়েছে এবং তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে এবং উনি ইডির সঙ্গে তদন্তে পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন। উনি কোথাউ আত্মগোপন করে নেই। ওঁনাকে আবার ডাকা হয়েছে,উনি সঠিক সময়েই হাজির হবেন’।

 রিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকে নিজের উপর উঠা অভিযোগ নিয়ে কোনওরকম মন্তব্য করেননি রিয়া। এফআইআর দায়ের খবর প্রকাশ্যে আসবার পরের দিন, ২৮শে জুলাই শুধুমাত্র ২০ সেকেন্ডের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করে বলেছিলেন,  'আমার ভগবান এবং বিচার ব্যবস্থার প্রতি পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমি নিশ্চিত আমি সুবিচার পাব। যদিও ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে আমার সম্পর্কে বহু ভয়ঙ্কর কথা বলা হচ্ছে আমি কোনওরকম মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকছি আমার আইনজীবীদের পরামর্শে। যেহেতু মামলাটি আদালতে বিচারাধীন। সত্যমেব জয়তে। সত্যের হয় হবেই'।

আপতত সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তভার কেন্দ্রের নির্দেশে নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছে সিবিআই। অন্যদিকে আর্থিক তছরুপের মামলায় ১১ অগস্ট ফের ইডির জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হতে পারে রিয়া চক্রবর্তীকে। 

বন্ধ করুন