বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত: অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন জানাচ্ছেন রিয়া চক্রবর্তী
রিয়া চক্রবর্তী 
রিয়া চক্রবর্তী 

সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত: অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন জানাচ্ছেন রিয়া চক্রবর্তী

  • আদালতে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন আবেদন জানাতে চলেছেন রিয়া চক্রবর্তী।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আসে চাঞ্চল্যকর মোড়। সুশান্তের গার্লফ্রেন্ড রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পুরো পরিবার ও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন প্রয়াত অভিনেতার বাবা কেকে সিং। সুশান্তের পরিবারের তরফে আসা এই গুরুতর অভিযোগের খবর সামনে আসার পরই তড়িঘড়ি জলেবি অভিনেত্রীর বাড়িতে হাজির হন তাঁর আইনজীবী। তখনই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল আইনি লড়াইয়ের জন্য ঘুঁটি সাজাচ্ছে রিয়া। এবার জানা গেল অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন জানাচ্ছেন রিয়া চক্রবর্তী। ডিএন'তে প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে আজই আদালতে আন্তর্বতীকালীন জামিনের আবেদন জানাতে পারেন রিয়া। গতকাল রাতে তিনঘন্টা ধরে আইনজীবী আনন্দিনি ফার্নান্দেজের সঙ্গে আলোচনা করেন রিয়া ও তাঁর পরিবার। যদিও সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রত্যাশা মতোই মুখ খোলেননি আইনজীবী। 

 রিয়া ও অভিনেত্রীর পরিবারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা (আর্থিক ও মানসিক) এবং তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মতো অভিযোগ এনেছেন কেকে সিং। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৪১,৩৪২,৩৮০,৪০৬, ৪২০-ধারায় রিয়ার পুরো পরিবারের বিরুদ্ধে পাটনার রাজীব নগর থানায় অভিযোগ জানিয়েছে সুশান্তের পরিবার। গত শনিবার দায়ের করা হয়েছে এই এফআইআর।

রিয়ার জন্য সুশান্তের সঙ্গে তাঁর পরিবারের দূরত্ব তৈরি হয়েছিল। সুশান্তকে পরিবারে সঙ্গে যোগযোগ রাখতে দিতেন না অভিনেত্রী। শুধু তাই নয়, সুশান্তের মৃত্যুর মাত্র কয়েকদিন আগে ৮ ই জুন সুশান্তের সঙ্গে সব সম্পর্ক ভেঙে চলে যান রিয়া। নানানভাবে সুশান্তকে ব্ল্যাকমেল করছিলেন অভিনেত্রী, অভিযোগ সুশান্তের পরিবারের। সুশান্তের এক বিশ্বস্ত দেহরক্ষীকেও চলতি বছর মার্চের শেষে ছাঁটাই করে দেন রিয়া। গত এক বছর ধরে সুশান্তের যাবতীয় ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ডে নিজের হেফাজতে রেখেছিলেন রিয়া। অভিনেত্রীর বিদেশ ভ্রমণ থেকে অন্যান্য খরচ চলত সেই টাকায়। এফআইআরে আরও দাবি করা হয়েছে সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা সরিয়েছে রিয়া ও তাঁর পরিবার। সুশান্তের বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার আগে যাবতীয় ক্যাশ, গহনা, ল্যাপটপ-সবকিছু সঙ্গে নিয়ে যান রিয়া। সুশান্তের মেডিক্যাল রিপোর্টও সঙ্গে করে নিয়ে গিয়েছিলেন রিয়া। তিনি সুশান্তকে হুমকি দেন, সুশান্তের মেডিক্যাল রিপোর্ট মিডিয়ায় ফাঁস করে দেওয়ার, যাতে তাঁকে মানুষজন পাগল ভাবে। 

ইতিমধ্যেই এই মামলার তদন্ত করতে মুম্বই পৌঁছেছে পাটনা পুলিশের চার সদস্যের একটি দল।যাঁর নেতৃত্বে রয়েছেন নিশান্ত সিং। ইতিমধ্যেই সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তের দায়িত্বে থাকা মুম্বই পুলিশের ডেপুটি কমিশনার অভিষেক ত্রিমুখের সঙ্গে সাক্ষাত্ করেছে পাটনা পুলিশ টিম। রিয়া ও তাঁর পরিবারকে এবার পাটনা পুলিশের জেরার মুখে পড়তে হবে।

বন্ধ করুন