বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > রণবীর কাপুরের ফোন নম্বর ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন তাঁর ভাগ্নি, কারণ শুনলে চমকে উঠবেন!
মামা রণবীর কাপুরের ফোন নম্বর স্কুলের মেয়েদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন সামারা। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
মামা রণবীর কাপুরের ফোন নম্বর স্কুলের মেয়েদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন সামারা। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

রণবীর কাপুরের ফোন নম্বর ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন তাঁর ভাগ্নি, কারণ শুনলে চমকে উঠবেন!

  •  'দ্য কপিল শর্মা শো'-এ হাজির হয়েছিলেন নীতু কাপুর এবং এবং তাঁর বড় মেয়ে ঋদ্ধিমা কাপুর সাহানি।গল্প-আড্ডার ফাঁকে ঋদ্ধিমার মেয়ে অর্থাৎ সামারা একবার তাঁর মামা অর্থাৎ রণবীর কাপুরের  মেয়েদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিল!

সম্প্রতি, 'দ্য কপিল শর্মা শো'-এ হাজির হয়েছিলেন নীতু কাপুর এবং এবং তাঁর বড় মেয়ে ঋদ্ধিমা কাপুর সাহানি। ছোটপর্দার বিভিন্ন রিয়েলিটি শোতে অতিথি হিসেবে নীতুকে দেখা গেলেও ঋদ্ধিমার দেখা প্রায় পাওয়া যায় না বললেই চলে। শো কিচ্ছুক্ষণ শুরু হওয়ার পর দেখা গেল হাসতে হাসতে কপিলের হাত ধরে অনুষ্ঠানের মঞ্চে প্রবেশ করছেন নীতু। একটু পরে বর্ষীয়ান বলি-অভিনেত্রীকে সঙ্গ দিতে কপিলের শোয়ে হাজির হলেন তাঁর মেয়ে তথা রণবীর কাপুরের দিদি ঋদ্ধিমা-ও।

গল্প-আড্ডার ফাঁকে ঋদ্ধিমা কপিলের কাছে ফাঁস করলেন তাঁর মেয়ে অর্থাৎ সামারা একবার তাঁর মামা অর্থাৎ রণবীরের ফোন নম্বর স্কুলের মেয়েদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিল! তা কেন ছোট্ট সামারা এই কাণ্ড করতে চেয়েছিলেন? সেই জবাবও দিয়েছেন তার মা। আসলে, স্কুলে 'ক্যাপ্টেন' নির্বাচনীতে অংশগ্ৰহণ সামারা। ভোটযুদ্ধে জেতার জন্য মনে মনে দারুণ এক মতলব ঠাউরেছিল সে। প্রায় ভেবেই নিয়েছিল তাঁর মামা তথা জনপ্রিয় বলি-তারকা রণবীর কাপুরের ফোন নম্বর যদি সে তাঁর স্কুলের ছাত্রীদের দিয়ে দে, তাহলে নিরঙ্কুশভাবে এই ভোটে জিতবে সে। কে না চায় রণবীর কাপুরের সঙ্গে ফোনে একবার কথা বলতে? যদিও মেয়ের মতলবের কথা জানতে পেরেই আঁতকে উঠেছিল ঋদ্ধিমা। শেষপর্যন্ত মায়ের কাছে কড়াভাবে 'না' শোনার পর নিরস্ত্র হয়েছিল ছোট্ট সামারা।

কপিলের শোয়ে ঋদ্ধিমা আরও জানিয়েছেন 'বেশরম' ছবির নায়কের অজানা 'কীর্তি'-র কথাও। তিনি তখন লন্ডনে পড়াশোনা করছেন। একবার ছুটিতে বাড়ি ফিরেছেন। রণবীরের এক বান্ধবী সেই সময়ে তাঁদের বাড়িতে হাজির হয়েছেন 'বরফি'-র নায়কের সঙ্গেই। উঁহু, বান্ধবী নয়, প্রেমিকা', পাশ থেকে ফুট কাটলেন নীতু। মায়ের কথায় হেসে সায় দিয়ে ফের শুরু করলেন ঋদ্ধিমা, 'হ্যাঁ, হ্যাঁ প্রেমিকা। তো হঠাৎ খেয়াল করলাম ওঁর পোশাকটা আমার ভীষণ চেনা চেনা লাগছে। 

মুখে কিছু না বললেও ব্যাপারটা ভাবিয়ে তুলেছিল আমাকে। পরে বুঝতে পেরেছিলাম এটা আমারই একটি নতুন টি শার্ট ছিল যা বহুদিন ধরেই খুঁজে পাচ্ছিলাম না। কারণ রণবীর রীতিমতো চুরি করে আমার জামাকাপড় তাঁর বান্ধবীকে উপহার হিসেবে দিয়ে দিত!'

বন্ধ করুন