আপতত সিঙ্গাপুরে রয়েছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (ছবি সৌজন্যে-ইনস্টাগ্রাম)
আপতত সিঙ্গাপুরে রয়েছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (ছবি সৌজন্যে-ইনস্টাগ্রাম)

দূরে থেকেও বাংলার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

  • আপতত সিঙ্গাপুরের বাড়িতে রয়েছেন অভিনেত্রী। সেখান থেকেই দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর কথা জানালেন তারকা।

করোনার পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হচ্ছে। এইসময় একদিকে যেমন নিজের প্রিয়জনদের সঙ্গে রয়েছেন ঋতুপর্ণা,তেমনই তার আরেক পরিবার-তাঁর প্রিয় অনুরাগীদের জন্য মন কাঁদছে অভিনেত্রীর। আপতত সিঙ্গাপুরের বাড়িতে রয়েছেন ঋতুপর্ণা। সেখানেই ছেলে-মেয়ে-স্বামীকে নিয়ে কাটছে দিন। হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকেও নিজের সামাজিক দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। করোনা মোকাবিলায় দুঃস্থ মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়ালেন নায়িকা। 'আমরা এই কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলা করব', আত্মবিশ্বাসের সুরে জানালেন ঋতুপর্ণা। জানান নিজের এনজিও এনডিভর সোস্যাইটির মাধ্যমে মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান তিনি। ঋতুপর্ণার কথায়- 'আমি শারীরিকভাবে ওখানে না থাকলেও মন দিয়ে প্রাণ দিয়ে আপনাদের পাশে আছি এবং আমি কামনা করি অন্ধকার দূর হয়ে যাবে, আমরা ভালো দিক দেখতে পাব'। অনুরাগীদের কাছে সরকারি নির্দেশ মেনে চলার আর্জি জানান অভিনেত্রী। তিনি বলেন- 'যেই সমস্যাগুলো হচ্ছে তার জন্য আমরা সবাই সবার পাশে দাঁড়াব এবং আমরা খুব ভালো দিন খুব তাড়াতাড়ি দেখতে পাব'।


সম্প্রতি হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে প্রাক্তন তারকা জানিয়েছেন ‘সিঙ্গাপুরের পরিস্থিতি অপেক্ষাকৃত ভাল। খুব গুরুত্ব সহকারে এখানকার প্রসাশন বিষয়টিকে দেখছে। মানুষজনও বেশ সচেতন। তাই আমার মনে হয় সিঙ্গাপুর এখন অপেক্ষাকৃত সেফ জোন’। তবে করোনা বিধ্বস্ত দেশগুলির জন্য চিন্তিত ঋতুপর্ণা। তিনি জানিয়েছেন-‘সিঙ্গাপুর জুড়ে আপতত কোনও লকডাউন নেই। তবে বেশিরভাগ পাবলিক প্লেসগুলো বন্ধ রয়েছে। রেঁস্তোরাগুলি খোলা থাকলেও সেখানে নিয়ম মেনে বসবার জায়গাগুলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। ছেলে-মেয়ের স্কুল বন্ধ। তবে অনলাইনে প্রত্যেকদিন ক্লাস চলছে’।

সিঙ্গাপুরে কেমনভাবে দিন কাটছে ঋতুপর্ণার? শ্যুটিংয়ের ব্যস্ততা নেই,কাজের চাপ নেই এখন তিনি সম্পূর্ন সংসারে মন দিয়েছেন। কখনও ছেলে-মেয়ের পছন্দের রান্না করছেন তো কখনও তাদের জামাকাপড় গুছিয়ে রাখছেন। কখনও তাদের নিয়ে খেলায় ব্যস্ত, কখনও আবার মেয়ের নাচ দেখে অল্প-স্বপ্ল ভুল ত্রুটিগুলো ধরিয়ে দিচ্ছেন। সময় দিচ্ছেন নিজেকেও-ছবি আঁকছেন, গল্পের বই পড়ছেন, আর রাতেরবেলা জমিয়ে নেটফ্লিক্সে চলছে সিনেমা দেখা।

হাতে বেশখানিকটা সময় থাকায় সোশ্যাল মিডিয়ায় স্মৃতি রোমন্থন পর্বটাও মাঝেসাঝে সেরে নিচ্ছেন ঋতুপর্ণা।


বন্ধ করুন