বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Rukmini-Ram Kamal-Dev: রামকলমের ‘নটী বিনোদিনী’ হয়ে সামনে এলেন রুক্মিণী, উপস্থাপক দেব!
নতুন ভূমিকায় রুক্মিণী

Rukmini-Ram Kamal-Dev: রামকলমের ‘নটী বিনোদিনী’ হয়ে সামনে এলেন রুক্মিণী, উপস্থাপক দেব!

  • Binodiini - Ekti Natir Upakhyan: 'দেব এই ছবিতে উপস্থাপক হিসাবে যোগ দেওয়ায় এটা সত্যিই একটা ম্যাগনাম ওপাস হয়ে গেল’, জানালেন রুক্মিণী।

পুজোয় ‘কাছের মানুষ’ নিয়ে হাজির হচ্ছেন দেব। তার আগে নতুন চমক! একের পর এক ছবির ঘোষণা সারছেন প্রযোজক দেব। এবার মুম্বইনিবাসী বাঙালি পরিচালকের সঙ্গে হাত মেলালেন দেব। পরিচালক রামকমল মুখোপাধ্যায় রুক্মিণী মৈত্রকে নিয়ে ‘নটী বিনোদিনী’র পরিকল্পনা করছে এমনটা বছর দুয়েক আগেই শোনা গিয়েছিল আর এবার আনুষ্ঠানিকভাবে সেই ছবির ঘোষণা করলেন পরিচালক। এই প্রোজেক্টের উপস্থাকের ভূমিকায় থাকছেন দেবের ‘দেব এন্টারটেনমেন্ট ভেঞ্চার্স’।

বাংলার নাট্যমঞ্চে তাঁর দাপটের কথা আজও থাকে চর্চায়। সেই বিনোদিনী দাসীর জীবন এবার পর্দায় তুলে ধরবেন রামকমল মুখোপাধ্যায়। ছবির নাম, ‘বিনোদিনী… একটি নটীর উপাখ্যান’ (Binodiini - Ekti Natir Upakhyan)। ছবির ফার্স্ট লুক দেখে অবাক হতে বাধ্য আপনি। মঞ্চে শ্রীচৈতন্যের ভূমিকায় বহুবার ধরা দিয়েছেন নটী বিনোদিনীরূপী রুক্মিণী। পরনে গেরুয়া পোশাক, ঝুলছে উপবীত, কপালে চন্দনের শ্রীকৃষ্ণ তিলক, কোঁকড়ানো চুল- এমন লুকে রুক্মিণীকে আগে কখনও দেখেননি। পোস্টারে উঠে এল গিরীষ ঘোষের ‘চৈতন্য লীলা’র ঝলক। ১৫০ বছর আগের স্টার থিয়েটার আর সেই মঞ্চে বিনোদিনী দাসী।

এই ছবির জন্য বহুদিন ধরেই তালিম নিচ্ছেন রুক্মিণী। শিখছেন ধ্রুপদী নৃত্য, সেইযুগের লেখা নানান বই পড়ছেন। বিনোদিনীকে নিয়ে এককথায় রিসার্চ করেছেন নায়িকাও। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ‘এটা আমার কাছে এটা স্বপ্নের মতো। যবে থেকে রামদা জানিয়েছেন উনি নটী বিনোদিনী বানাতে চান, আমি নিশ্চিতভাবে জানতাম ওঁনার দৃষ্টিভঙ্গি একদম অন্য হবে। রামদার উপর আমি চোখ বন্ধ করে ভরসা করছি। দু-বছর আগেই এই ছবির কাজ শুরু হতো, তবে অতিমারীর জন্য সবটা পিছিয়ে গেল। দেব এই ছবিতে উপস্থাপক হিসাবে যোগ দেওয়ায় এটা সত্যিই একটা ম্যাগনাম ওপাস হয়ে গেল’।

দেব কী বলছেন ‘নটী বিনোদিনী’ নিয়ে? অভিনেতা জানান,' রামকমল মুম্বইয়ের একজন প্রতিষ্ঠিত ফিল্মমেকার। রাম যে রুক্মিণীকে নিয়ে এই ছবিটা প্ল্যান করছে সেটা আমি জানতেই পারিনি, ওরা পোস্টারের টিজার শেয়ার করার পর আমি জানলাম গোটা ব্যাপারটা। আমার থেকে সযত্নে গোপন রেখেছিল। এই প্রোজেক্টের জন্য ওঁদের ভালোবাসা আর প্যাশন দেখে আমি মুগ্ধ, তাই এমন একটা প্রোজেক্টের সঙ্গে নিজেকে আটকে রাখতে পারলাম না। এই ধরণের ছবি আজকাল হয় না, নটী বিনোদিনীর মতো সংবেদনশীল ব্যক্তিত্বকে নিয়ে ছবি তৈরি করতে সাহস লাগে। আমি নিশ্চিত রাম আর রুক্মিণী পর্দায় ম্যাজিক তৈরি করবে'।

পরিচালক রামকমল মুখোপাধ্যায়
পরিচালক রামকমল মুখোপাধ্যায়

পরিচালক রামকমল মুখোপাধ্যায়ের কথায়, ‘দু-বছর ধরে অনেকে স্ট্রাগল করেছি এই ছবির বাজেট জোগাড় করতে। আর এই সফরে যে মানুষটা পাহাড়ের মতো অটল থেকেছে আমার সঙ্গে সেটা রুক্মিণী। ‘সিজনস গ্রিটিংস’ বা ‘এক দুয়া’র মতো আমার কাজ দেখে রুক্মিণী বিশ্বাস রেখেছে যে আমি বাংলা রঙ্গমঞ্চের এমন এক ব্যক্তিত্বের জীবনী পর্দায় তুলে ধরতে পারব। আমি সত্যিই গর্বিত যে রুক্মিণী আমার বিনোদিনী'।

ছবির সহকারী প্রযোজক অরিত্র দাস হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে জানালেন,'সবার আগে ধন্যবাদ জানাব রুক্মিণী। শিল্পী হিসাবে নয়, মানুষ হিসাবে যেভাবে পাশে দাঁড়িয়েছে আমাদের তার সেটা আর্শীবাদ। এটা আমাদের প্রথম বাংলা ফিচার ফিল্ম, তার অংশ হয়েছে দেব সেটা বড় পাওনা'। অভিনেতা হিসাবে কি দেব এই প্রোজেক্টের অংশ হবেন? অরিত্র জানালেন, ‘আমাদের ছবির কাস্টিং এখনও চূড়ান্ত হয়নি। দেবের সঙ্গে এই নিয়ে কোনও কথা হয়নি। কারণ পরিচালক এখন নিজের ভাবনা জানাননি। তবে সবকিছু খুব তাড়াতাড়ি ফাইনাল হবে’। 

এই পিরিয়ড ছবির কাহিনি, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন প্রিয়াঙ্কা পোদ্দার। সিনেমাটোগ্রাফির দায়িত্বে থাকছেন মধুরা পালিত। কলকাতা ও বেনারসে হবে এই পিরিয়ড ড্রামার শ্যুটিং। ডিসেম্বর নাগাদ ফ্লোরে যাচ্ছে এই ছবি, সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী পয়লা বৈশাখে মুক্তি পাবে ‘বিনোদিনী… একটি নটীর উপাখ্যান’। যা প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছেন শৈলেন্দ্র কুমার, সুরজ শর্মা এবং প্রতীক চক্রবর্তী।

 

বন্ধ করুন