বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ইসলাম ধর্মে বিয়ে করলেও ‘নাম-পদবি বদলায়নি’, দেবলীনাকে পালটা রূপাঞ্জনার
অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত এবং রূপাঞ্জনা মিত্রের দ্বন্দ্বের মাত্রা ক্রমশ বাড়ছে। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুক)
অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত এবং রূপাঞ্জনা মিত্রের দ্বন্দ্বের মাত্রা ক্রমশ বাড়ছে। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুক)

ইসলাম ধর্মে বিয়ে করলেও ‘নাম-পদবি বদলায়নি’, দেবলীনাকে পালটা রূপাঞ্জনার

  • কথার যুদ্ধ যেন কিছুতেই থামছে না।

কথার যুদ্ধ যেন কিছুতেই থামছে না। একজন কোনও মন্তব্য করলে অন্যজন জবাব দিতে ছাড়ছেন না। পালটা আবারও ধেয়ে আসছে কথার ‘বাণ’। তার ফলে অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত এবং রূপাঞ্জনা মিত্রের দ্বন্দ্বের মাত্রা ক্রমশ বাড়ছে। 

অষ্টমীর দিন গোমাংস রান্না নিয়ে বিতর্কের মধ্যে দিনকয়েক আগে আনন্দবাজার ডিজিটালের হয়ে কলম ধরেছিলেন রূপাঞ্জনা। পালটা ‘উত্তর’ দিতে একটি কলাম লেখেন দেবলীনা। সেখানে ধর্মনিরপেক্ষতা নিয়ে রূপাঞ্জনার মন্তব্যের রেশ টেনে দেবলীনা জানান, ব্যক্তিগতভাবে রূপাঞ্জনাকে অত্যন্ত পছন্দ করতেন। কারণ বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে রূপাঞ্জনা ধর্মনিরপেক্ষতার উদাহরণ ছিলেন। কিন্তু তারপরেই লেখেন, ‘কিন্তু নিজের পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে একজন মুসলিম পুরুষকে বিয়ে করে নাম পরিবর্তন করা রূপাঞ্জনাও নাকি বলছে, ও সেক্যুলারদের’ মানুষ বলে ভাবে না! ’

সেই মন্তব্যের পর ফেসবুকে আবার দেবলীনার ‘ভুল’ শুধরে দেন রূপাঞ্জনা। ফেসবুকের দেওয়ালে তিনি লেখেন, ‘আমি সব ধর্মকে সম্মান করি। আর একটা ভুল শুধরে দিই, আমি কোনওদিনও নিজের নাম-পদবি বদলায়নি।’

তবে শুধু ধর্মনিরপেক্ষ নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় ধর্ষণের হুমকি নিয়েও দেবলীনার মন্তব্যের জবাব দিয়েছেন রূপাঞ্জনা। দেবলীনা লিখেছিলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় যে হুমকি দেওয়া হয়, তাতে রূপাঞ্জনার থেকে ‘ভয়’ না পাওয়ার উপদেশ পেয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর প্রশ্ন ছিল, কেউ যদি রূপাঞ্জনার মা'কে নিয়ে হুমকি দেওয়া হয়, তাহলে কি তিনি ভয় পাবেন না? সঙ্গে দেবলীনা যোগ করেন, ‘যদি ও এ ধরনের হুমকি পেয়ে থেকেও চুপ করে থাকে, তা হলে ওকে ভীতু তকমা দেওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় থাকবে না আমার। কিন্তু ও প্রতিবাদ করবে না বলে বাকি সকলেই চুপ করে থাকবে, এটা ভাবাও তো ভুল!’

পালটা রূপাঞ্জনা জানিয়েছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় হুমকি দেওয়ার যে প্রবণতা আছে, একাধিকবার তা নিয়ে সমালোচনা করেছেন। সেই প্রবণতার শিকার হয়েছেন তিনি নিজেও। তাঁর কথায়, ‘আর এটাও বলেছি যে দু'বছর ধরে আমিও বহু হুমকি পেয়েছি। এমনকী আমাদের সহকর্মী-বন্ধুরাও প্রচুর বাজে কথা লিখেছেন। আমাদের অনেকের বিরুদ্ধে আজও লেখেন, যেটাকে ব্যক্তিগত আক্রমণ বলে। কিন্তু তার বিরুদ্ধে এখন সুরক্ষিত হয়ে গিয়েছি (পড়ুন পাত্তা দিচ্ছেন না)।’ 

তবে শেষে ‘কাদা ছোড়াছুড়ি’ এবং ‘ঝগড়া’ থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন রূপাঞ্জনা। সঙ্গে স্ত্রী'র পাশে দাঁড়ানোর জন্য দেবলীনার স্বামী তথাগত মুখোপাধ্যায়কেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন। সঙ্গে লিখেছেন, 'তুমি যে দেবলীনার হয়ে প্রতিবাদ করেছ, আমি সেটাকে সম্মান জানাচ্ছি। এখনকান দিনে ওরকম বন্ধু পাওয়া যায় না। ভালো থেক।'

বন্ধ করুন