বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Rupankar Bagchi: 'হিন্দি ছবির গানের প্যারোডি'! গানের ভিডিয়ো পোস্ট করতেই ফের কটাক্ষের মুখে রূপঙ্কর
গান নিয়ে কটাক্ষের মুখে রূপঙ্কর।

Rupankar Bagchi: 'হিন্দি ছবির গানের প্যারোডি'! গানের ভিডিয়ো পোস্ট করতেই ফের কটাক্ষের মুখে রূপঙ্কর

  • দিন দুয়েক আগে নতুন গানটি পোস্ট করেন রূপঙ্কর। সাদা-কালো ভিডিয়োয় গিটার বাজিয়ে গাইতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসা বিতর্ক, মানসিক টানাপোড়েন— কোনও কিছুরই আভাস নেই মিনিট পাঁচেকের সেই ভিডিয়োয়। বরং দেখা মেলে নিঃসংশয়, সপ্রতিভ গায়কের।

নতুন গান বেঁধেছেন রূপঙ্কর বাগচী। ফেসবুকের মাধ্যমে সেই গান ভাগ করে নিয়েছেন সকলের সঙ্গে। তার পরেই নতুন করে কটাক্ষের শিকার জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত গায়ক।

দিন দুয়েক আগে নতুন গানটি পোস্ট করেন রূপঙ্কর। সাদা-কালো ভিডিয়োয় গিটার বাজিয়ে গাইতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসা বিতর্ক, মানসিক টানাপোড়েন— কোনও কিছুরই আভাস নেই মিনিট পাঁচেকের সেই ভিডিয়োয়। বরং দেখা মেলে নিঃসংশয়, সপ্রতিভ গায়কের। কিন্তু বিতর্ক তবু পিছু ছাড়ে না। শুরু হয় কাটাছেঁড়া। গানটি নিয়ে নানা নেতিবাচক মন্তব্য করে শ্রোতা-দর্শকদের একাংশ। আবার কারও কারও মতে, গান ভালো হলেও মানুষ হিসেবে শিল্পীকে পুরো নম্বর দেওয়া যাচ্ছে না।

রূপঙ্করের সেই পোস্টের কমেন্ট বক্সে এমনই সব বিচিত্র মতামতের বন্যা। তারই মধ্যে নজর কেড়েছে কন্টেন্ট ক্রিয়েটর সোহম মণ্ডলের মন্তব্য। নিজের জনপ্রিয় পেজ 'দ্য বং ডায়েরি' থেকে তিনি লিখেছেন, 'রেহনা হ্যায় তেরে দিল ম্যায়-র 'দিলকো তুমসে প্যায়ার হুয়া'-র এই প্যারোডিটা খুব ভালো হয়েছে। প্রথমে অরিজিনাল ভেবে ভুল করেছিলাম। ক্ষমা করবেন।'

রূপঙ্করের পোস্টে সেই মন্তব্য।
রূপঙ্করের পোস্টে সেই মন্তব্য।

২০০১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত হিন্দি ছবিটিতে 'দিলকো তুমসে প্যায়ার হুয়া' গানটি গেয়েছিলেন রূপকুমার রাঠৌর। বিখ্যাত সেই গানের সঙ্গে কি রূপঙ্করের নয়া সৃষ্টির মিল খুঁজে পেয়েছেন? সোহমের মন্তব্য দেখে আঁচ করা যায় তেমনটাই।

গত ৩১ মে ফেসবুক লাইভে কেকে-কে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন রূপঙ্কর। দাবি করেছিলেন, বলিউডের এই নেপথ্য গায়কের তুলনায় বাংলার বহু শিল্পীই ভালো গান করেন। প্রশ্ন তোলেন, কেকে-কে নিয়ে বাঙালি শ্রোতাদের মধ্যে যে উন্মাদনা, তা বাংলার শিল্পীদের জন্য কেন নেই? ঘটনাচক্রে রূপঙ্করের সেই লাইভ ভিডিয়ো পোস্ট হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যু হয় কেকে-র। এর পরেই শুরু যাবতীয় বিতর্ক। 'নিঃশর্তভাবে দুঃখপ্রকাশ' করেও মিলছে না রেহাই।

বন্ধ করুন