বিদ্যুত কর্মীদের কর্ম যুদ্ধের ছবি ‘সহযোদ্ধা’।
বিদ্যুত কর্মীদের কর্ম যুদ্ধের ছবি ‘সহযোদ্ধা’।

সহযোদ্ধা: করোনা যুদ্ধে বিদ্যুত কর্মীদের লড়াইয়ের এক সংক্ষিপ্ত প্রতিচ্ছবি

প্রচারের আলো থেকে দূরে থাকা মানুষ গুলোই কিন্তু আজ আমাদের রিয়েল হিরো। কোভিড- ১৯ যুদ্ধে আমাদের সুরক্ষিত রাখতে দিনরাত লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন রাজ্যের বিদ্যুত কর্মীরা। তাঁদের নিয়েই সংক্ষিপ্ত ছবি ‘সহযোদ্ধা’। পরিকল্পনা অসীম রায়চৌধুরী, ঘরে বসেই  ছবিটি পরিচালনা করেছেন  শ্রীজিৎ রায়। সম্পাদনায় যিশু নাথ।

 ‘সহযোদ্ধা’। একটি  সংক্ষিপ্ত ছবি।  সারা পৃথিবী জুড়ে যে করোনা আতঙ্ক চলছে  তাতে কিন্তু সাধারণ মানুষ গৃহবন্দী হয়েই যুদ্ধ করছেন কোভিড ১৯ এর সঙ্গে। কারণ এছাড়া আর কোনও উপায় নেই। নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে, এবং সমগ্র মানব জাতিকে এই পৃথিবীতে সুস্থভাবে টিকিয়ে রাখতে এটাই একমাত্র উপায়। কিন্তু যাঁদের বাড়িতে বসে থাকার উপায় নেই তাঁরা কীভাবে লড়াই করছেন এই কোভিড ১৯-এর সঙ্গে? আমাদের সুরক্ষার জন্য এবং যাতে আমাদের কোনও অসুবিধা না হয় তার জন্য জরুরী পরিষেবার কর্মীরা তাঁদের সব  আতঙ্ক বিসর্জন দিয়ে, নিজের প্রাণের পরোয়া না করে রাতদিন আমাদের জন্য সজাগ থাকছেন। ডাক্তার, নার্স, অন্যান্য স্বাস্থকর্মীরা, পুলিশ, পুরসভার কর্মীরা এবং এদের পাশাপাশি বিদ্যুত কর্মীরা যেভাবে আমাদের জন্য পরিষেবা দিচ্ছেন তা সত্যিই অসাধারণ। এই ছবিটিতে সেই বার্তাই দেওয়া হয়েছে। এই জরুরী অবস্থায় রাজ্যের বিদ্যুত কর্মীরা রয়েছেন সাধারণ মানুষের পাশে। এই লকডাউনে  যাতে ২৪ ঘন্টা নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুত সরবরাহ করা যায় সেই চেষ্টাই তাঁরা চালিয়ে যাচ্ছন সর্বক্ষণ।  প্রচার থেকে দূরে থাকা এই সকল যোদ্ধাদের কর্মদর্শন নিয়েই তৈরি হয়েছে ‘সহযোদ্ধা’। পরিচালনা শ্রীজিৎ রায়। সম্পাদনা যিশু নাথ। সমগ্র পরিকল্পনা অসীম রায়চৌধুরী, (জনসংযোগ আধিকারিক ওয়েস্ট বেঙ্গল পাওয়ার ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড)।

এই ছবিতে জনসাধারণকে বিশেষ বার্তা দিয়েছেন মাননীয় বিদ্যুত মন্ত্রী শোভনদেব  চট্টোপাধ্যায় । তিনি বলেন, ‘আপনারা কোনও রকম  দুশ্চিন্তা করবেন না। আমাদের বিদ্যুত কর্মীরা এই কঠিন সময় ২৪ ঘন্টা কাজ করছেন। আপনারা ঘরে থাকুন। ভালো থাকুন। আপনাদের প্রয়োজনে আমাদের কর্মীরা পৌঁছে যাবে আপনাদের কাছে।’

 সহযোদ্ধার লিঙ্ক দেওয়া রইল এই প্রতিবেদনের নিচে-

রাতদিন মানুষের পরিষেবায় বিদ্যুত।
রাতদিন মানুষের পরিষেবায় বিদ্যুত।
বন্ধ করুন