বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Salman-Kubbra: 'খালি পেটে ভোর থেকে শ্যুট শুরুর অপেক্ষায়,দুপুরে এসে সলমন লাঞ্চ ব্রেক নিল': কুবরা

Salman-Kubbra: 'খালি পেটে ভোর থেকে শ্যুট শুরুর অপেক্ষায়,দুপুরে এসে সলমন লাঞ্চ ব্রেক নিল': কুবরা

ভাইজানকে নিয়ে বিস্ফোরক কুবরা

'৫ ঘন্টা দেরিতে শ্যুটিং-এ হাজির সলমন, এসেই সটান বলে বসলেন, চলো লাঞ্চ ব্রেক নিয়ে নিই', ভাইজানের সঙ্গে ‘রেডি’ ছবিতে কাজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিলেন কুবরা। 

বলিউডের পরিচিত মুখ কুবরা সৈত। নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বরাবরই রাখঢাকহীন অভিনেত্রী। ‘সেক্রেড গেমস’-এর ‘কুকু’ হিসাবে জনপ্রিয়তা পান কুবরা, যদিও প্রথমবার কুবরাকে স্ক্রিনে দেখা মিলেছিল সলমনের ছবিতে। ২০১১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘রেডি’ ছবিতে পরিচারিকার চরিত্রে দেখা মিলেছিল কুবরার। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ভাইজানের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা ফাঁস করেন কুরবা। 

সলমন খান যে বলিউডের অন্যতম ‘লেট লতিফ’ তা কারুর অজানা নয়। কল টাইমে কোনওদিনই সেটে পৌঁছান না ভাইজান। কুবরা জানান সকালের কলটাইম ছিল, গোটা ইউনিট সকাল থেকে তৈরি হয়ে সল্লু মিঁয়ার জন্য অপেক্ষা করছিল। অবশেষে দুপুর ২.৪৫ নাগাদ সেটে আসেন সলমন। 

কুবরা জানান, ভোর সাড়ে পাঁচটার সময় একটা মাত্র আপেল হাতে হোটেল থেকে বেরিয়ে ছিলেন তিনি। স্মৃতির পাতা উলটে অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি প্রশ্ন করি জলখাবার? আমার মুখে একটা আপেল ছুড়ে দেওয়া হয়েছিল। আমি আরও একটা চাই, ফের আমার মুখে আরও একটা আপেল ছুড়ে দেওয়া হয়। শুরুতে বলা হয়েছিল সকাল ১০টা শ্যুটিং শুরু হয়েছিল, তারপর ঘড়ির কাটা ১১ ছুঁল, তারপর ১২টা, এইভাবে সময় বাড়তে থাকল’। 

কুবরা যোগ করেন, পৌনে তিনটে নাগাদ সেটের মধ্যে শোরগোল শুরু হল। যেমনটা কোনও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি সেটে পা রাখলে ঘটে। এরপর সলমনের দেখা মিলল। কুবরা বলে চলেন, ‘আমরা গলফ কোর্সে শ্যুটিং করছিলাম, তাই স্পষ্ট সবটা দেখা যাচ্ছিল। বিরাট বড় বড় কাঁচের জানালা দিয়ে দেখলাম সলমন খান এলেন। এরপর পিঠ ঠেকিয়ে বসলেন আর বললেন- লাঞ্চ ব্রেক নেওয়া যাক?

অভিনেত্রী হেসে বলেন, ‘আমি ভোর থেকে একটা আপেল খেয়ে বসে আছি,কোনও কাজই হয়নি। ভাবলাম এবার কাজ হবে কিন্তু না, আমাদের লাঞ্চ ব্রেক হল’। তবে সলমন খানের সঙ্গে কাজ করবার অনেক ইতিবাচক দিক রয়েছে। কুবরা বলেন, ‘সুপারস্টার হওয়া সত্ত্বেও প্রত্য়েক সহ-অভিনেতাকে এক টেবিলে বসিয়ে খাবার খান সলমন।’ পরবর্তীতে ‘সুলতান’ ছবিতেও সলমনের সঙ্গে কাজ করেছেন কুবরা। 

বন্ধ করুন