বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > করোনা সংকটে বদলে গেল 'প্রেম'-এর চুমু খাওয়ার দৃশ্য, ভিডিয়ো সামনে আনলেন সলমন
মেয়নে প্যায়ার কিয়া ছবির একটি দৃ্শ্যে সলমন ও ভাগ্যশ্রী
মেয়নে প্যায়ার কিয়া ছবির একটি দৃ্শ্যে সলমন ও ভাগ্যশ্রী

করোনা সংকটে বদলে গেল 'প্রেম'-এর চুমু খাওয়ার দৃশ্য, ভিডিয়ো সামনে আনলেন সলমন

  • ২০২০-তে করোনা সংকটের সময় মেয়নে প্যায়ার কিয়া তৈরি হলে সলমনের (প্রেম) চুমু খাওয়া দৃশ্যটি কেমন হত? ভিডিয়ো প্রকাশ করে প্রেমের নতুন 'কিস কা কিসসা'-র কথা জানালেন ভাইজান।

বলিউডের চিরন্তন প্রেমের ছবির বলতে শুরুতেই যেসব ছবির কথা মাথায় আসে তার মধ্যে অন্যতম মেয়নে প্যায়ার কিয়া। ১৯৮৯ সালে মুক্তি পেয়েছিল সলমন-ভাগ্যশ্রী জুটির এই ছবি। তারপর থেকেই বি-টাউনের 'প্রেম' হয়ে উঠেছিলেন সলমন খান। ছবির প্রতিটি দৃশ্য, ডায়লগ, গান আজও গেঁথে রয়েছে নব্বইয়ের দশকে বেড়ে উঠা ছেলেমেয়েদের মনে। কিন্তু ১৯৮৯-এর বদলে যদি ২০২০-তে করোনা সংকটের সময় তৈরি হত সুরজ বরজাতিয়ার এই ছবি, তাহলে কতটা পাল্টাত প্রেমের প্রেমকাহিনি? না আপনাকে বেশি মাথায় জোড় দিতে হবে না। প্রেম মানে স্বয়ং সলমন খান নিজেই মেয়নে প্যায়ার কিয়ার ২০২০ এডিশন নিয়ে হাজির হয়ে গিয়েছেন। রবিবার অনুরাগীদের জন্য টুইটারে একটা মজাদার ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন ভাইজান। যেখানে মেয়নে প্যায়ার কিয়ার আইকোনিক কিসিং-এর দৃশ্যে দমফাটা হাসির টুইস্ট দিলেন সলমন খান।


ভিডিয়োর শুরুতে দেখা গেল মেয়নে প্যায়ার কিয়ার অরিজিন্যাল দৃশ্যে সুমনে( ভাগ্যশ্রী) চিন্তায় মগ্ন প্রেম। কাঁচের দরজায় লিপস্টিক দিয়ে তৈরি সুমনের ঠোঁটের ছাপে ঠোঁট রেখে প্রিয়তমাকে মনে করছে প্রেম। ভিডিয়োর দ্বিতীয় পর্বে দেখা গেল সেই দৃশ্যটাই রিক্রিয়েট করেছেন আজকের সলমন। কিন্তু কাঁচের উপর সেই ঠোঁটের তৈরি সেই লিপস্টিকের ছাপে ঠোঁট থেকে চুমু খাওয়া তো দূর অস্ত বরং সেটা স্প্রে করে মুছেই ফেললেন ভাইজান।

ভিডিয়োর ক্যাপশনে সলমন লিখেছেন, 'যদি মেয়নে প্যায়ার কিয়া আজকে মুক্তি পেত.. হ্যাপি ইস্টার, সুুস্থ থাকুন, সুরক্ষিত থাকুন'।

আপতত পানভলের ফার্ম হাউসে ভাইপো নির্বানের সঙ্গে আটকে রয়েছেন সলমন। ভাইজানের বাড়ির অনান্য সদস্যরা রয়েছেন মুম্বইয়ের গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টে। পরিবারকে প্রচন্ড মিস করার কথা আগেই একটি ভিডিয়ো বার্তায় জানিয়েছেন সলমন। তবে এই কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলার জন্য বাড়ির বাইরে না বার হওয়ার আর্জি জানিয়েছেন সলমন খান।


বন্ধ করুন