বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বিগ বস ছাড়ছেন সলমন খান? জানুয়ারি থেকে শোয়ের নতুন হোস্ট ফারহা খান!
বিগ বসের সঞ্চালক হিসাবে আর দেখা যাবে না সলমনকে! (ছবি-এএনআই)
বিগ বসের সঞ্চালক হিসাবে আর দেখা যাবে না সলমনকে! (ছবি-এএনআই)

বিগ বস ছাড়ছেন সলমন খান? জানুয়ারি থেকে শোয়ের নতুন হোস্ট ফারহা খান!

  • শরীর ভালো যাচ্ছে না সলমন খানের। শারীরিক অসুস্থতার কারণেই শো ছাড়ছেন দাবাং খান। সলমন খানের ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে খবর, গত কয়েকমাসে ট্রাইজেমিনাল নিউরালজিয়া নিয়ে ভোগান্তি বেড়েছে অভিনেতার।
  • সল্লু মিঁয়ার জায়গায় বিগ বসের ১৩ নম্বর সিজনের সঞ্চালক হিসাবে দেখা যেতে পারে ফারহা খানকে।

টিআরপির তালিকার সব রেকর্ড আগেই ভেঙে দিয়েছে বিগ বস সিজন ১৩। এই বিতর্কিত রিয়ালিটি শোয়ের লাগামছাড়া জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ নিঃসন্দেহে সঞ্চালক সলমন খান। তবে বিগ বস ছাড়ছেন ভাইজান! খবর এমনটাই।

‘সলমন খান শো ছাড়ছেন, জানুয়ারি মাস থেকে বিগ বসের হোস্ট হিসাবে দেখা যাবে ফারহা খানকে। বিগ বসের ঘরেই নিজের জন্মদিনটা পালন করবেন সলমন খান’, খবর চ্যানেল সূত্রে।

ডিসেম্বরের ২৭ তারিখেই ৫৪য় পা দিচ্ছেন ভাইজান। শরীর ভালো যাচ্ছে না সলমন খানের। শারীরিক অসুস্থতার কারণেই শো ছাড়ছেন দাবাং খান। সলমন খানের ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে খবর, গত কয়েকমাসে ট্রাইজেমিনাল নিউরালজিয়া নিয়ে ভোগান্তি বেড়েছে অভিনেতার। তাঁর প্রিয়জনেদের মতে বিগ বস সঞ্চালনার কারণেই এই রোগ ফের মাথা ছাড়া দিচ্ছে।

সম্প্রতি মুম্বই মিররকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে সলমন জানিয়েছেন 'হ্যাঁ, আমার মনের একটা দিক চাইছে শো ছাড়তে, অন্যদিকটা এখনও এই কাজটা করে যেতে চায়'।

বিগ বস কি পছন্দ করেন না সলমন ? অভিনেতা জানান,' আমি ভীষণ পছন্দ করি, তবে এটা খুব চাপের একটা কাজ। কিন্তু অনেক কিছু শেখা যায়, আমি জানতে পারি দেশ কোন দিকে এগোচ্ছে'।

২০১৭ সালে টিউবলাইটের শ্যুটিংয়ের সময় ফেসিয়াল নার্ভ ডিসওর্ডারের এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানান সলমন। সেই সময় বিদেশে চিকিত্সা করাতেও যেতে হয়েছিল তাঁকে। এই যন্ত্রণাদায়ক রোগটি ২০০১ সাল থেকেই নাকি রয়েছে সলমন খানের সঙ্গে। এই রোগটির অন্য নাম সুইসাইড ডিজিজ, অনেকেই এর জন্য আত্মহত্যার দিকে ঝোঁকেন। চিকিত্সকদের পরামর্শ অতিরিক্ত রাগ সলমনের জন্য ক্ষতিকারক। কারণ রেগে গেলে সলমনের এই স্নায়ুর রোগ বেড়ে যাবে।

বিগ বসের ঘরে প্রতি সপ্তাহেই প্রতিযোগীদের ক্লাস নিতে গিয়ে নিজের শরীরের ক্ষতি করছেন সলমন, মত ভাইজানের শুভাকাঙ্ক্ষীদের। পরিবার এবং বন্ধুদের চাপে পড়ে শেষমেষ বিগ বসকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন সলমন।

‘বেশ কয়েক বছর ধরেই বিগ বস ছাড়ার প্ল্যানিং করছেন সলমন। তবে কোনও না কোনও ভাবে চ্যালেন কর্তৃপক্ষ এবং প্রযোজক সংস্থা ভাইজানকে রাজি করিয়ে ফেলেন, তবে আর নয়! পরিবারের কড়া নির্দেশ রয়েছে শো ছাড়তেই হবে, কারণ কোনও শো তাঁর(সলমন) স্বাস্থ্যের থেকে বড়ো হতে পারে না এবং তাঁকে আঘাত দিতে পারে না’, এমনটাই জানিয়ছে ভাইজানের ঘনিষ্ঠমহল।

সলমনের স্বাস্থ্যজনিত সমস্য তো নিঃসন্দেহে শো ছাড়ার একটা কারণ, তার পাশাপাশি রাধের শ্যুটিং শেডিউলও ভাইজানকে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছে। চ্যালেন কর্তৃপক্ষ একমাস শোয়ের মেয়াদ বাড়িয়েছে। জানুয়ারির মাঝামাঝি সময় নয়, বিগ বস চলবে ফেব্রুয়ারির ১৫ তারিখ পর্যন্ত। তার আগেই রাধের শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন সলমন খান।

প্রায় এক দশক ধরে বিগ বস সঞ্চালনা করছেন সলমন খান। ২০১১ সালে রিয়ালিটি শোয়ের চার নম্বর সিজনে বিগ বসের হোস্ট হিসাবে জার্নি শুরু হয়েছিল সলমনের।

বন্ধ করুন