বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Salman Khan: সবাই দেখবে সিনেমা! গ্রামে নিজের নামে সিনেমা হল খুলতে চলেছেন ভাইজান সলমন
নিজস্ব থিয়েটার চেইন নিয়ে ঘোষণা সলমনের। (ছবি সৌজন্যে - টুইটার)
নিজস্ব থিয়েটার চেইন নিয়ে ঘোষণা সলমনের। (ছবি সৌজন্যে - টুইটার)

Salman Khan: সবাই দেখবে সিনেমা! গ্রামে নিজের নামে সিনেমা হল খুলতে চলেছেন ভাইজান সলমন

  • অভিনয় এবং প্রযোজনা সামলে তাঁর এবারে সিনেমা হলের চেইন খুলতে চলেছেন সলমন খান।

চলতি মাসেই 'অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ' ছবির মাধ্যমে ফের একবার বড়পর্দায় ফিরছেন সলমন খান। করোনা পরবর্তী সময়ের তাঁর বড়পর্দার সফরে সঙ্গী হিসেবে থাকছেন তাঁর ভগ্নিপতি তথা বলি-অভিনেতা আয়ুষ শর্মা। অভিনয় এবং প্রযোজনা সামলে তাঁর এবারে সিনেমা হল-এর চেইন খুলতে চলেছেন 'ভাইজান'। তাঁর এই স্বপ্নের প্রজেক্টের নাম 'সলমন টকিজ'। বহু বছরের তাঁর এই স্বপ্ন কীভাবে বাস্তবায়িত করবেন তিনি তাই নিয়েই সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মুখ খুললেন এই বলি-তারকা।

টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জোর গলায় সলমন জানিয়েছেন যে বর্তমানে জোরকদমে তাঁর এই প্রজেক্টের উপর কাজ করছেন তিনি। যেহেতু এটি একটি',দু'টি সিনেমা হল চালু করার ব্যাপার নয় তাই পরিকল্পনা আরও আঁটোসাঁটো করা হচ্ছে। এবং খুব জলদি এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা সারবেন তিনি। এরপর করোনা প্রসঙ্গ উঠলে তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হয় যে বলিপাড়ায় গুঞ্জন, অতিমারির জন্যই নাকি আপাতত তাঁর এই পরিকল্পনা শিকেয় তুলে রাখা হয়েছে। ফুৎকারে এই খবর উড়িয়ে 'রাধে'-র জবাব, ' সেরকম কিছু নয়। কাজ পুরোদমেই এগোচ্ছে। তবে হ্যাঁ, করোনার ফলে যা ক্ষতি হয়েছে তারজন্য হয়তো গতি একটু কমেছে। এটুকু জেনে রাখুন থিয়েটার চেইন খুলছি আমরা। হয়তো একটু সময় বেশি লাগবে, এই যা'।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সলমনের এইসব সিনেমা হল কিন্তু মোটেই মুম্বই, কলকাতার মতো ঝাঁ চকচকে শহরে তৈরি হবে না। মফঃস্বল কিংবা বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলে যেখানে প্রেক্ষাগৃহ নেই কিংবা অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল নয় এমন মানুষদের কাছে বহু দূরে শহরে এসে সিনেমা হলে যাওয়াটা অত্যন্ত কষ্টসাধ্য, সেরকম অঞ্চলে ও প্রধানত সেই ধরণের দর্শকদের জন্যই তৈরি হবে ' সলমন টকিজ'। নিজের এই 'স্বপ্ন' যেন সফল হয় তার জন্য বিভিন্ন ছবি প্রযোজক, পরিবেশক ও হল মালিকদের সঙ্গে ইতিমধ্যেই মিটিং সারছেন 'ভাইজান'। নিচ্ছেন পরামর্শ।

শেষ পাওয়া খবরে জানা গেছে, অন্যান্য মাল্টিপ্লেক্সের তুলনায় 'সলমন টকিজ' এর টিকিটের দাম অনেকটাই কম হবে। শুধু তাই নয়, অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের শিশুদের জন্য এইসব প্রেক্ষাগৃহে প্রবেশ করতে কোনও টিকিট লাগবে না। একেবারে নিখরচায় সিনেমা দেখার মজা তারা ওঠাতে পারবে। 'সলমন টকিজ' নিয়ে এইমুহূর্তে কোনওরকমে তাড়াহুড়ো করতে নারাজ সলমন। তাই তো এখন শুধুমাত্র মহারাষ্ট্রে ‘সলমন টকিজ’ এর চেইন শুরু করবেন ‘ভাইজান’। তবে আগামী ১০ বছরে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে দেখা মিলবে ‘সলমন টকিজ’ এর।

বন্ধ করুন