বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > পদ্মশ্রী বিতর্ক নিয়ে সরব সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় কন্যা, জানালেন ‘অভিমান নয় অপমান’
একসঙ্গে মঞ্চে গান গাওয়ার মুহূর্তে মা ও মেয়ে (ছবি- ইউটিউব) 

পদ্মশ্রী বিতর্ক নিয়ে সরব সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় কন্যা, জানালেন ‘অভিমান নয় অপমান’

  • 'সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়কে এতো বছরে পদ্মশ্রী অফার না করে যত না অপমান করা হয়েছে, তার চেয়ে চারগুণ বেশি অপমান করা হয়েছে ওইভাবে পদ্মশ্রী অফার করে', বিস্ফোরক কন্যা সৌম্যি সেনগুপ্ত। 

সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের অসুস্থতা নিয়ে উদ্বিগ্ন তাঁর গুণমুগ্ধ ভক্তরা। বৃহস্পতিবার দুপুরেই শ্বাসকষ্ট ও জ্বর নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়কে। পরবর্তীতে জানা যায় বর্ষীয়ান গায়িকার কোডিভ রিপোর্ট পজিটিভ, মুখ্যমন্ত্রী জানান হৃদযন্ত্রেরও সমস্যা রয়েছে তাঁর। করোনা চিকিত্সার জন্য বর্ষীয়ান গায়িকাকে নিয়ে যাওয়া হবে অ্যাপোলো হাসপাতালে। 

সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের শারীরিক পরিস্থিতি বিগড়ে যায় পদ্মশ্রী বিতর্কের কয়েকঘন্টার মধ্যেই। ২৫শে জানুয়ারি রাতে জানা যায়, কেন্দ্র সরকারের দেওয়া পদ্মশ্রী সম্মান প্রত্যাখ্যান করেছেন সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। সেই নিয়ে সবমহলেই হইচই কাণ্ড। একদিন যেতে না যেতেই হাসপাতালে ঠাঁই হল গায়িকার। এই নিয়ে চাপানউতোরের মাঝেই বিস্ফোক সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় ও গীতিকার শ্যামল গুপ্তর একমাত্র কন্যা সৌম্যি সেনগুপ্ত। 

সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় কন্যা বলেন, গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন ৯০ বছর বয়সী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। আজকাল এমনিতেই তিনি  ফোনে খুব বেশি কথাও বলেন না কারুর সঙ্গে। পড়ে গিয়ে চোট পেয়েছিলেন, সঙ্গে ছিল সর্দি-কাশি। মঙ্গলবার দুপুরে কেন্দ্র সরকারের দফতর থেকে ফোন আসায় তিনি নিজে সেই ফোনটি ধরেন। 

ঠিক কী কথা হয়েছিল ফোনে, কেন পদ্মশ্রী প্রত্যাখ্যান, সবকিছু নিয়ে চাপা ক্ষোভ উগড়ে দিলেন গায়িকার মেয়ে। ‘দ্য ওয়াল’কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, ‘ফোনে বলা হয় পদ্মশ্রী পুরস্কারের জন্য মনোনয়ের একটা ব্যাপার আছে, আপনি কি পুরস্কার গ্রহণ করবেন? এমনও বলা হয়, আপনি পুরস্কার গ্রহণ করতে চাইলে আপনার নাম তালিকায় দেব। তখন মা স্পষ্ট বলেন, ‘আমার শরীর ভালো নেই, আমি এই পুরস্কার গ্রহণ করব না’। পরে ফের হিন্দিতে জানতে চাওয়া হয়, এই পুরস্কার না নেওয়ার কোনও কারণ আছে কিনা। মা বলে, ‘মেরা দিল নেহি কর রাহা জি’। (আমার মন চাইছে না)।'

এখানেই থেমে যাননি সৌম্যি দেবী, তিনি ক্ষোভের সুরে বলেন-'একবার ভাবুন তো একজন শিল্পী যিনি ৭৮ বছর ধরে সংগীত সাধনা করছেন তাঁকে বলা হচ্ছে আপনি পুরস্কার নেবেন কিনা?  কেন্দ্র সরকারের তরফে কোনও পুরস্কার দেওয়া হলে সেটার চিঠি বাড়িতে আসে, সেটা কোনও কারণবশত হয়নি যদি মেনেওনি তাহলেও ওইদিন ফোনে পুরস্কার কর্তৃপক্ষের বলবার ধরণ মোটেই গ্রহণযোগ্য ছিল না। সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়কে এতো বছরে পদ্মশ্রী অফার না করে যত না অপমান করা হয়েছে, তার চেয়ে চারগুণ বেশি অপমান করা হয়েছে ওইভাবে পদ্মশ্রী অফার করে'। 

এই নিয়ে সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় কি মেয়েকে কিছু বলেছেন? কন্যার সাফ কথা- ‘মা এই নিয়ে বেশি কিছু বলেননি। উনি পুরস্কার নেবেন না , সেটা তো কেন্দ্রকে জানিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়কে ভুলভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে বলেও জানান সৌম্যি। তিনি বলেন, ‘ মা বলেছেন আমি কে তাঁরা (কেন্দ্র সরকার) কি জানেন? এর মাধ্যমে মা আমিত্ব জাহির করেননি। উনি অসম্ভব বিনয়ী মানুষ। উনি বোঝাতে চেয়েছেন আমার কর্মকাণ্ড নিয়ে যাঁরা পুরস্কার কমিটিতে আছেন তাঁরা হয়ত জানেন না, তাই হঠাত্ করে আমি পুরস্কার গ্রহণ করব না'। 

পুরস্কার বিতর্কে চুলোয় যাক! দ্রুত সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরুন শিল্পী, এমনটাই প্রার্থনা আপামর বাঙালির।

 

 

বন্ধ করুন