বাড়ি > বায়োস্কোপ > পুলিশি জেরায় সুশান্তের বিরুদ্ধে মিটু অভিযোগ আনার খবর অস্বীকার সঞ্জনা সাংঘির,রিপোর্ট
বান্দ্রা থানায় সঞ্জনা সাংঘি (ছবি-ANI)
বান্দ্রা থানায় সঞ্জনা সাংঘি (ছবি-ANI)

পুলিশি জেরায় সুশান্তের বিরুদ্ধে মিটু অভিযোগ আনার খবর অস্বীকার সঞ্জনা সাংঘির,রিপোর্ট

  • মঙ্গলবার ৯ ঘন্টার ম্যারাথন পুলিশি জেরা মুখে পড়েন সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ ছবি দিল বেচারার কো-স্টার সঞ্জনা সাংঘি। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার তদন্তে নেমে মঙ্গলবার মুম্বই পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করল প্রয়াত অভিনেতার শেষ ছবি দিল বেচারার নায়িকা সঞ্জনা সাংঘি। এদিন প্রায় ৯ ঘন্টা ধরে ম্যারাথন জেরা করা হয় সঞ্জনাকে। প্রয়াত অভিনেতার মৃত্যুর সিবিআই তদন্তের দাবি জানাচ্ছেন অনুরাগীরা,অন্যদিকে আত্মহত্যার কারণ খুঁজতে ইতিমধ্যেই ২৮ জনের বয়ান রেকর্ড করেছে বান্দ্রা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, দিল বেচারার শ্যুটিং চলাকালীন  সুশান্তের সঙ্গে সঞ্জনার  কী কোনওরকম ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল-জানতে চায় মুম্বই পুলিশ। সঞ্জনা সাফ জানান মিডিয়ায় প্রকাশিত খবর ভুয়ো। তাঁর সঙ্গে সুশান্তের কোনওরকম সমস্যা ছিল না। বরং অভিনয়ের খুঁটিনাটি নিয়ে সুশান্ত এগিয়ে এসে সাহায্য করেছেন ডেব্যিউটান্ট সঞ্জনাকে। সূত্রের খবর নিজের বয়ানে সঞ্জনা সাফ জানিয়েছেন সুশান্তের বিরুদ্ধে তিনি মিটুর অভিযোগ কোনওদিনই আনেননি। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের পিছনে কোনও সত্যতা নেই। সে কথা সেই সময়ও জানিয়েছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত ২০১৮ সালে সংবাদমাধ্যমের একটা অংশ খবর প্রকাশিত হয়, দিল বেচারা (সেই সময় নাম ছিল কিজি অউর ম্যানি) কো-স্টার সঞ্জনা সাংঘি শ্যুটিং সেটে সুশান্তের বিরুদ্ধে অশোভন আচরণের অভিযোগ এনেছেন। সুশান্তের মাত্রাতিরিক্ত বন্ধুত্বপূর্ণ স্বভাব নাকি পছন্দ নয় নায়িকার। যদিও নিজের বিরুদ্ধে উঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করে সুশান্ত সেই সময় সঞ্জনার সঙ্গে নিজের কথোপকথনের স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন। ২০১৮-র ১৯শে অক্টোবর টুইটারের দেওয়ালে সুশান্ত লেখেন, শেষ কাজ যেটা তোমাকে  নিজের জন্য করতে হবে সেটা হল কারুর ব্যক্তিগত অ্যাজেন্ডা থেকে তৈরি গল্পে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করা। এইরকম একটা গুরুত্বপূর্ন ক্যাম্পেনকে মানুষজন নিজেদের উদ্দেশ্য পূরণের জন্য ব্যবহার করছে। ছবির শ্যুটিংয়ের সময় আমার আর সঞ্জনার মেসেজ আদান-প্রদান। আপনারা নিজেরাই ঠিক করে নিন'।

টুইটার,ইনস্টাগ্রামে সেই সব মেসেজের স্ক্রিনশট শেয়ার করে সুশান্ত আরও লিখেছিলেন,'এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক যে আমাকে ব্যক্তিগত তথ্য এইভাবে সামনে আনতে হচ্ছে কিন্তু নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে আমি আর কোনও রাস্তা খুঁজে পাচ্ছি না। এটা আমার বিরুদ্ধে তৈরি অ্যাজেন্ডা নয়? এই গুলো পড়ে আপনরাই বিচার করুন এটা কি অশোভন আচরণ?'

সুশান্ত-সঞ্জনার চ্যাটের স্ক্রিনশট, ২০১৮-র ১৯ অক্টোবর এটি টুইট করেছিলেন সুশান্ত 
সুশান্ত-সঞ্জনার চ্যাটের স্ক্রিনশট, ২০১৮-র ১৯ অক্টোবর এটি টুইট করেছিলেন সুশান্ত 

সেই সময় সুশান্তের সমর্থনে এগিয়ে এসেছিলেন ছবির পরিচালক মুকেশ ছাবড়াও। তিনি বলেন শ্যুটিং সেটে সুশান্ত কোনভাবই কারুর সঙ্গে কোনওরকম খারাপ আচরণ করেনি। এই খবর ভুয়ো। পরে যদিও সুশান্ত এই সংক্রান্ত টুইট ও ইনস্টাগ্রাম পোস্টটি ডিলিট করে দেন।

এরপর ২৩ অক্টোবর (২০১৮),সঞ্জনা সাংঘি ইনস্টাগ্রাম পোস্টে পরিষ্কার জানান, সুশান্তের বিরুদ্ধে এই ধরণের কোনও অভিযোগ তিনি করেননি। তিনি লিখেছিলেন , ইউএস থেকে ফিরে আমি গতকাল দেখলাম বেশ কিছু মাথামুন্ডুহীন এবং মিথ্যা খবর প্রকাশিত হয়েছে কিজি অ্যান্ড ম্যানির সেটে অশোভন আচরণ নিয়ে, আমি পরিষ্কার জানাচ্ছি আমার সঙ্গে এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি। এই ধরণের অনুমান বা আন্দাজ করা বন্ধ করুন'।

সূত্রের খবর,মঙ্গলবার পুলিশি জেরায় সঞ্জনা জানান, দিল বেচারা ছবির সেটেই সুশান্তের সঙ্গে তাঁর প্রথম পরিচয়। প্রসঙ্গত আগে এই ছবির নাম ছিল 'কিজি অউর ম্যানি'। 

সুশান্তের আত্মহত্যার কারণ জানতে পেশাগত বিদ্বেষের দিকটি জোর দিয়ে খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিশ। যশ রাজ ফিল্মসের সঙ্গে তাঁর চুক্তি মাঝপথে বাতিলের কারণ জানতে ইতিমধ্যেই YRF-এর বেশকিছু শীর্ষকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। অন্যদিকে সূত্রের খবর সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্টের ফল নেগেটিভ। অভিনেতার শরীরের কোনওরকম বিষ বা মাদক দ্রব্যের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি।

বন্ধ করুন