বাড়ি > বায়োস্কোপ > '৬ মাসে ৭টি ছবি থেকে বাদ',সুশান্তের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত চক্রান্তের তত্ত্ব সঞ্জয় নিরুপমের
ছিঁছোড়ে হিট হওয়ার পরেও কেন হাতে কাজ ছিল না সুশান্তের? বলিউডকে প্রশ্ন সাংসদের (REUTERS)
ছিঁছোড়ে হিট হওয়ার পরেও কেন হাতে কাজ ছিল না সুশান্তের? বলিউডকে প্রশ্ন সাংসদের (REUTERS)

'৬ মাসে ৭টি ছবি থেকে বাদ',সুশান্তের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত চক্রান্তের তত্ত্ব সঞ্জয় নিরুপমের

  • ছিছোড়ে হিট হওয়ার পরে সাতটি ছবি সাইন করেছিলেন সুশান্ত। কিন্তু গত ছ মাসে সব প্রজেক্ট থেকেই বাদ দেওয়া হয় তাঁকে, অভিযোগ প্রাক্তন সাংসদ সঞ্জয় নিরুপমের। 

সুশান্ত সিং রাজপুতেরর মৃত্যুর পর থেকেই একের পর চাঞ্চল্যকর প্রতিক্রিয়া সামনে আসছে। মাত্র ৩৪ বছর বয়সে এই সফল তারকার এইভাবে নিভে যাওয়াটা বোধহয় মেনে নিতে পারছে না তাঁর অনুরাগীরা। সকলেরই প্রশ্ন ‘সুশান্ত কেন এমনটা করলে?’ একদিকে যেমন প্রিয়,প্রতিভাবান,তরুণ তারকাকে হারানোর বেদনা আছে তেমনই সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ক্ষোভ পুঞ্জীভূত হচ্ছে বলিউডের একাংশের বিরুদ্ধে। নেপোটিজম বা স্বজনপোষণ বিতর্ক বলিউডে নতুন নয়,তবে সুশান্তের মৃত্যু যেন সব বিতর্ককে ছাপিয়ে গিয়েছে। কঙ্গনা রানাওয়াত বলেছেন এটা আত্মহত্যা নয় পরিকল্পিত খুন,অন্যদিকে পরিচালক শেখর কাপুর বলেছেন, ‘আমি জানি তোর এই যন্ত্রণার জন্য কারা দায়ী’। এবার শুধু বলিউডের অন্দরমহলেই নয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরাও সুশান্তের মৃত্যুর জন্য বলিউডকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করাচ্ছেন। 

প্রাক্তন সাংসদ তথা কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় নিরুপমের তরফে বলিউডের বিরুদ্ধে এসেছে একটি বিস্ফোরক অভিযোগ। তিনি টুইট বার্তায় জানান গত ছয় মাসে ৭টি ছবির কাজ হারিয়েছেন সুশান্ত সিং রাজপুত! তিনি দাবি করেন, ‘ছিছোড়ে’ হিট হওয়ার পর সুশান্ত সিং রাজপুত ৭টি ছবি সাইন করেছিল। ছয় মাসে ওর হাত থেকে এক এক করে প্রতিটা ছবি বেরিয়ে যায়। কেন? ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি নিষ্ঠুরতা একটা অন্য মাত্রায় কাজ করে। এই নিষ্ঠুরতাই প্রতিভাবান শিল্পীকে মেরে ফেলল। সুশান্তকে অন্তর থেকে জানাই শ্রদ্ধার্ঘ'।

সঞ্জয় নিরুপমের বিস্ফোরক টুইট
সঞ্জয় নিরুপমের বিস্ফোরক টুইট

 ২১৫ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল বক্স অফিসে মুক্তিপ্রাপ্ত সুশান্তের শেষ ছবি ছিছোড়ে। ৫০ কোটির বাজেটে তৈরি ছবির জন্য তা দুর্দান্ত কালেকশন বলা যায়। গত বছর নভেম্বরে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে মুক্তি পায় সুশান্তের শেষ ছবি ড্রাইভ। 

সোমবার শেখর কাপুরের টুইটও প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়েছে বলিউডের একটা বিশেষ শ্রেণিকে। শেখর কাপুর লেখেন, 'আমি জানি তুই কোন যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলিস। আমি জানি সেই সব মানুষের কথা যারা তোকে খুব বাজেভাবে ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে।তুই আমার কাঁধে মাথা রেখে কেঁদেছিস।যদি শেষ ছ’টা মাসও আমি তোর পাশে থাকতাম..যদি তুই আমার কাছে অন্তত একবার ফিরে আসতিস। তোর সঙ্গে যা হয়েছে এর কর্মফল ওদের ভোগ করতে হবে। এটা তোর দোষ নয়’।

 

মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে সুশান্তের শেষ ছবি দিল বেচারা। অভিনেতা এই ছবির শ্যুটিং সেরেছিলেন বছর দেড়েক আগে। প্রথমে ২০১৯-এর নভেম্বরে এই ছবির মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল,তারপর মুক্তির তারিখ পিছিয়ে দেওয়া হয় ৮ মে ২০২০। কিন্তু করোনা সংকটের জন্য অর্নিদিষ্ট কালের জন্য স্থগিত রাখা হয় দিল বেচারারর মুক্তি।  ১লা নভেম্বর মুক্তি পায় ড্রাইভ। এরপর থেকে সুশান্তের নতুন কোনও প্রজেক্টের ঘোষণা হয়নি। সুতরাং সেই অর্থে মার্চে লকডাউন শুরুর আগের পাঁচ মাস কোনও ছবির কাজ অন্তত ছিল না। সুশান্তের আত্মহত্যার পর পরিচালক রুমি জাফরি মুম্বই মিররকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে জানিয়েছেন,তাঁর পরের ছবি একটি রম-কম (রোম্যান্টিক-কমেডি) যেখানে প্রথমবার একসঙ্গে জুটি বাঁধবার কথা ছিল সুশান্ত-রিয়ার। মে মাসেই নাকি কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু লকডাউনের জন্য কাজ পিছিয়ে যায়।

কাই পো ছে, ব্যোমকেশ বক্সী, এম এস ধোনি..দ্য আনটোল্ড স্টোরি,ছিছোড়ের মতো দর্শকদের উপহার দিলেও বলিউড সুশান্তকে যোগ্য মর্যাদা দেয়নি, এই অভিযোগ তুলেছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। সুশান্তের আত্মহত্যার জন্য বলিউডের দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণকে দুষছেন অনুভব সিনহা,স্বপ্না ভাবানি,রণবীর শোরেরা। 

বন্ধ করুন