বাড়ি > বায়োস্কোপ > মুখোমুখি শাশ্বত-রুদ্রনীল, সত্যজিৎ রায়কে শ্রদ্ধার্ঘ জানিয়ে ফিরছে ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’
শ্বাশত ও রুদ্রনীল এবার একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী 
শ্বাশত ও রুদ্রনীল এবার একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী 

মুখোমুখি শাশ্বত-রুদ্রনীল, সত্যজিৎ রায়কে শ্রদ্ধার্ঘ জানিয়ে ফিরছে ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’

  • সত্যজিতের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য জানিয়েই সপ্তাশ্বর আগামী ডার্ক থ্রিলারে মুখোমুখি রুদ্রনীল ঘোষ ও শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়।

গল্পটা লিখেছিলেন সাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় । সিদ্ধার্থ , কেয়া, সান্যালদের নিয়ে কলকাতা ট্রিওলজির অন্যতম ছবিটাও বানিয়েছিলেন মানিক বাবু । আর বিশ্ববরেণ্য পরিচালকের জন্ম শতবর্ষের প্রাক্কালে , সত্যজিতের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি স্বরূপ নিজের আগামী ছবি হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীকেই বেছে নিলেন পরিচালক সপ্তাশ্ব বসু । টলিউডের এই নবাগত পরিচালকের দ্বিতীয় ছবিতে লিড রোলে দেখা যাবে শাশ্বত চট্টপাধ্যায় এবং রুদ্রনীল ঘোষকে ।

পরিচালকের আগের ছবি নেটওয়ার্কেও অভিনয় করেছিলেন শাশ্বত । ডার্ক থ্রিলার জঁর ছবি হতে চলেছে ‘প্রতিদ্বন্দ্বী'। শাশ্বত এবং রুদ্রনীল ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যাবে সায়নী ঘোষ, রিনি ঘোষ, মাহি কউর, রাজদীপ সরকার এবং নতুন মুখ শিরষাকে । তবে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় অর্থাৎ সিদ্ধার্থর চরিত্র কে ফুটিয়ে তুলবেন , তা এখনো স্থির করা হয়নি।

ছবিতে ডক্টর বক্সীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাশ্বত । তাঁর ছেলে অপহৃত হওয়ার পর তিনি গোয়েন্দা সিদ্ধার্থ এবং তাঁর টিমের কাছে সাহায্য চান । তদন্তে নেমে সমকালের কলকাতায় ঘটে যাওয়া বেশ কয়েকটি খুনের সাথে এই অপরহরণের মামলার যোগসাজশ খুঁজে পায় সিদ্ধার্থ । সে জানতে পারে বক্সী বাবুর সাথে ভালোমতোই বৈরিতা রয়েছে তাঁর ছেলেরই স্কুলের অঙ্কের শিক্ষক সুকুমার সেনের ( রুদ্রনীল ঘোষ ) । তাহলে সুকুমারই কি অপহরণের নেপথ্যে রয়েছেন ? নাকি এর পিছনে পাওয়া যাবে আরো গভীর কোনো চক্রান্তের হদিশ ? এই প্রশ্নের উত্তর মিলবে সিনেমায়।

সামনে এল প্রতিদ্বন্দ্বীর লোগো
সামনে এল প্রতিদ্বন্দ্বীর লোগো

আপাতত প্রকাশ্যে এসেছে ছবির লোগো । টলি ইন্ডাস্ট্রির দুই প্রবাদপ্রতিম অভিনেতা , রুদ্র - শাশ্বতর ডুয়েলের অপেক্ষায় ইতিমধ্যেই উন্মাদনা শুরু হয়ে গিয়েছে অনুরাগী মহলে । ছবিতে মিউজিকের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন সোয়েটার এবং হৃদপিন্ড খ্যাত সংগীত পরিচালক রণজয় ভট্টাচার্য । ছবির মূল গল্প লিখেছেন রিনি ঘোষ । চিত্রনাট্য নির্মাণ করেছেন অর্ণব ভৌমিক ও তাঁর টিম । ছবির প্রযোজনা সংস্থা নিও ষ্টুডিও , কাসিস এবং এস এস এন্টারটেনমেন্ট যাঁরা প্যানডেমিকের আকাল থেকে সিনেমাকে বাঁচিয়ে তুলতে এগিয়ে এসেছেন হাতে হাত রেখে । যাবতীয় কোভিড প্রোটোকল মেনে এই সেপ্টম্বর থেকেই শুরু হবে ছবির শুটিং , জানিয়েছেন পরিচালক । তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে শুটিংয়ের চ্যালেঞ্জটাকে বেশ ভালো ভাবেই উপভোগ করছে টিম ' প্রতিদ্বন্দ্বী ' ।

বন্ধ করুন