বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aparajito: সত্যজিৎ রায়ের জন্মবার্ষিকী, মুম্বইয়ে ‘অপরাজিত’র স্পেশ্যাল স্ক্রিনিং!
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের উদ্যোগে মুম্বইয়ে ‘অপরাজিত’র স্পেশ্যাল স্ক্রিনিং
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের উদ্যোগে মুম্বইয়ে ‘অপরাজিত’র স্পেশ্যাল স্ক্রিনিং

Aparajito: সত্যজিৎ রায়ের জন্মবার্ষিকী, মুম্বইয়ে ‘অপরাজিত’র স্পেশ্যাল স্ক্রিনিং!

  • ২৩ এপ্রিল সত্যজিৎ রায়ের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়ে প্রকাশ্যে এসেছে ‘অপরাজিত’র ট্রেলার। ২ মে পরিচালকের জন্মবার্ষিকীতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের উদ্যোগে মুম্বইয়ে ‘অপরাজিত’র স্পেশ্যাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সত্যজিৎ রায়ের শতবর্ষে অনীক দত্তর নতুন ছবি 'অপরাজিত'। মুক্তি পেয়েছে বহু প্রতীক্ষিত এই ছবির ট্রেলার। ছবি মুক্তি পাবে ১৩ মে। সাদা- কালো ফ্রেমে 'মানিক দা'... যেন ফিরে যাওয়া কয়েক যুগ আগে। কিংবদন্তী শিল্পীর 'পথের পাঁচালী' তৈরির কিছুটা নেপথ্য কাহিনি ফুটে উঠবে এই ছবিতে।

১৩ মে ছবি মুক্তির আগেই কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের পক্ষ থেকে ছবির স্পেশ্যাল স্ক্রিনিংয়ের আয়োজন করা হচ্ছে। ২ মে সত্যজিৎ রায়ের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এই বিশেষ আয়োজন।

২৩ এপ্রিল সত্যজিৎ রায়ের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়ে প্রকাশ্যে এসেছে ‘অপরাজিত’র ট্রেলার। ‘মহারাজা, তোমা-RAY সেলাম’, লিখেই সত্যজিৎ রায়ের প্রয়াণ দিবসে প্রকাশ্যে এসেছে ছবির ট্রেলার। ট্রেলার লঞ্চেই স্পেশ্যাল স্ক্রিনিংয়ের কথা জানান পরিচালক অনীক দত্ত এবং প্রযোজক ফিরদৌসুল হাসান। ফ্রেন্ডস কমিউনিকেশনে ব্যানারে মুক্তি পাচ্ছে এই ছবি।

সত্যজিৎ রায়ের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষ্যে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছিল তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। মুম্বইয়ে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। NFDC, ফিল্ম ডিভিশনের মতো সংস্থা এই অনুষ্ঠানের অংশীদার। সেখানে এই ছবি দেখানোর কথা হয়। কিন্তু উদ্যোক্তাদের ছবি এতটাই পছন্দ হয়েছে, উদ্বোধনী ছবি হিসেবে ‘অপরাজিত’কে বেছে নিয়েছেন তাঁরা। অনুষ্ঠানে লাল গালিচায় ছবির টিমকে স্বাগত জানানো হবে। আরও পড়ুন: সত্যজিৎ হতে উঠতে দাঁতের পাটিতে বদল জিতুর! ‘যন্ত্রণা’র কথা পোস্ট স্ত্রী নবনীতার

‘পথের পাঁচালী’ তৈরি করতে গিয়ে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিলেন সত্যজিৎ রায়। নামী নায়ক, নায়িকা, নাচ-গান না থাকায় অনেকেই ছবি থেকে মুখ ফিরিয়েছিলেন সেই সময়। মিলছিল না ছবির জন্য প্রযোজক। পরিচালকের স্ত্রী বিজয়া রায় সেই সময় তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। পত্র-পত্রিকায় এতদিন সেই গল্প পড়েছে মানুষ। সেই কাহিনি পরিচালক অনীক দত্ত তুলে ধরবেন সিনেমার পর্দায়।

কিংবদন্তী শিল্পীর 'পথের পাঁচালী' তৈরির কিছুটা নেপথ্য কাহিনি ফুটে উঠবে এই ছবিতে। 'পথের পাঁচালি'র নাম ছবিতে হবে 'পথের পদাবলী'। ছবির মূল চরিত্র অপরাজিত রায়ের (সত্যজিৎ রায়ের নাম পরিবর্তন করে) ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জিতু কমল। আরও অভিনয় করছেন পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সায়নী ঘোষ প্রমুখ। ছবিতে সবার নামের বদল হয়েছে। সায়নী ঘোষ অভিনয় করেছেন অপরাজিত রায়ের স্ত্রীর ভূমিকায়। তাঁর চরিত্রের নাম বিমলা রায়। বীরভূম, কলকাতার শিশির মঞ্চ, নন্দন থেকে শুরু করে আরও বেশ কিছু লোকেশনে শ্যুট করা হয় ছবির।

‘অপরাজিত’-র লুক প্রকাশ্যে আসতে চমকে গিয়েছিলেন সকলে। সত্যজিতের লুকে জিতু কমলকে দেখে চমকে উঠেছিল দর্শক। সেই বসা, সেই সিগারেট ধরার স্টাইল, সেই মুখ-- ভাষা হারিয়েছিল ‘রে-লাভার’রা। এক নজরে অনেকেই রিলের সত্যজিতকে রিয়েল লাইফের সঙ্গে ভুল করতে পারেন। লুক পারফেক্ট করতে জিতুর গালে ও থুতনিতে প্রস্থেটিক্সের সাহায্য নেওয়া হয়েছে। মেকআপ করেছেন এবিষয় দক্ষ, সোমনাথ কুণ্ডু।

 

বন্ধ করুন