বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ভিডিয়ো : মদনের সঙ্গে সেলফি বিতর্কে ক্ষমা চাইলেন বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী
এবার সাফাই শ্রাবন্তীর
এবার সাফাই শ্রাবন্তীর

ভিডিয়ো : মদনের সঙ্গে সেলফি বিতর্কে ক্ষমা চাইলেন বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী

  • পায়েলের পর এবার সেলফি বিতর্কে ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টা শ্রাবন্তীর!

গোটা রাজ্যজুড়ে একুশের ভোট ঘিরে সরগরম আবহাওয়া। তৃণমূল বনাম বিজেপি লড়াই এইবারের বিধানসভা ভোটর মূল ফোকাস, নরমে-গরমে যুদ্ধ চলছে দুই শিবিরে। প্রধানমন্ত্রী,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থেকে বিজেপির হেভিওয়েট নেতারা পাখির চোখ করেছেন বাংলার বিধানসভা ভোটকে। আর এই আবহেই রবিবার দোলের দিন নতুন বিতর্ক। বিজেপির তিন তারকা প্রার্থী একফ্রেমে বন্দি হলেন তৃণমূল নেতা তথা কামারহাটির প্রার্থী মদন মিত্রের সঙ্গে। গঙ্গাবঙ্গে আয়োজিত এক দোলের অনুষ্ঠানে ‘খেলা হবে’র তালে পাও মেলালেন শ্রাবন্তী-তনুশ্রী-পায়েল সরকার। এই নিয়ে শুধু আম জনতার ক্ষোভের শিকার হন এই তিন তারকা প্রার্থী তা নয়, বিজেপির অন্দরেও এই ঘটনা নিয়ে হইচই কাণ্ড বেঁধে যায়।

সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষেিতে সোমবারই সাফাই দিয়েছিলেন বিজেপির বেহালা পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের তারকা প্রার্থী পায়েল সরকার, এবার তাঁর পাশের কেন্দ্রের প্রার্থী শ্রাবন্তী মুখ খুললেন। এদিন বিজেপি কর্মী, দলীয় সমর্থক এবং দলের নেতাদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন নায়িকা। বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের এই তারকা প্রার্থী ফেসবুকে ভিডিয়ো পোস্ট করে জানান, 'নমস্কার আমি শ্রাবন্তী চ্যাটার্জী, বেহালা পশ্চিম বিধানসভার মনোনীত প্রার্থী। গত ২৮'শে মার্চ দোল উৎসব উপলক্ষ্যে সেদিন একটি মিডিয়া চ্যানেল-এর পক্ষ থেকে একটি অনুষ্ঠান আয়োজিত করা হয়েছিল যা কোনোভাবেই রাজনৈতিক অনুষ্ঠান ছিল না, যেখানে অন্য একটি দলের প্রার্থীরাও ছিলেন যা আমি ওখানে পৌঁছে জানতে পারি। যেহেতু দোল সবার তার কোনো আলাদা রাজনৈতিক রং নেই তাই গেছিলাম। আমার যাওয়ার জন্যে যদি আমার বেহালা পশ্চিম বিধানসভার কার্যকর্তারা এবং কর্মীরা মনোক্ষুন্ন হন তার জন্যে আমি ক্ষমাপ্রার্থী, আমি যেভাবে বেহালা পশ্চিমের পাশে আছি সেভাবেই থাকবো এবং আপনারা যেভাবে এতদিন ভালোবেসে এসেছেন চাইবো সেইভাবেই ভালোবেসে যাবেন এবং আশীর্বাদ করবেন যাতে আরও এগিয়ে যেতে পারি। সবাই সুস্থ থাকবেন ভালো থাকবেন'।

মদন মিত্রর সঙ্গে শ্রাবন্তী-পায়েলদের সেলফি ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও তনুশ্রী, পায়েল, মদনদের কথায়, অনুষ্ঠানে কোনও রাজনীতির রং ছিল না। এটা নেহাতই রঙের উৎসব। তবুও ড্যামেজ কন্ট্রোলের মরিয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা। 

বন্ধ করুন