করোনা মোকাবিলায় বিপুল পরিমাণ সাহায্যের প্যাকেজ ঘোষণা করলেন শাহরুখ খান  (AFP)
করোনা মোকাবিলায় বিপুল পরিমাণ সাহায্যের প্যাকেজ ঘোষণা করলেন শাহরুখ খান (AFP)

করোনা যুদ্ধে একধিক পদক্ষেপ শাহরুখ খানের, জোটবদ্ধ হয়ে লড়াই করার আহ্বান বাদশার

  • দেশবাসীর প্রয়োজনে শাহরুখ সবসময়ই এগিয়ে এসেছেন, এবার তার ব্যতিক্রম নয়। তিনি দিল্লির ছেলে, মুম্বই তাঁর কর্মভূমি আর কলকাতার সঙ্গে তাঁর অদ্ভূত ভালোবাসার বাঁধন-সবার কথা ভাবলেন বাদশা। সাতটি ফান্ডে সাহায্যের ঘোষণা করলেন কিং খান।

এতদিন ধরে বারবার প্রশ্ন উঠছে করোনা মোকাবিলায় শাহরুখের অবদান নিয়ে, নিন্দুকরা সমালোচনা করেছেন 'অক্ষয় ২৫ কোটি টাকা দিল, শাহরুখ খান কত টাকা দিচ্ছে দেশের জন্য?' অবশেষে বৃহস্পতিবার রাতে সব প্রশ্নের উত্তর এল বাদশার তরফে। একটা-দুটো নয় মোট সাতটি ফান্ডে অনুদান দিচ্ছেন কিং খান। আসলে শাহরুখের জন্মভূমি দিল্লি, কর্মভূমি মুম্বই, আর কলকাতার সঙ্গে তাঁর এক অদ্ভূত সম্পর্ক-তিনি তো বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাড়ার। তাই তিনি সবার কথা ভাবেন। বৃহস্পতিবার সবার প্রথম শাহরুখের প্রযোজনা সংস্থা রেড চিলিজ এন্টারটেনমেন্টের তরফে একটি আনুষ্ঠানিক প্রেস বিবৃতি প্রকাশ করা হয়, তারা দু' পাতার দীর্ঘ প্রেস বিবৃতিতে জানায় পিএম কেয়ারস ফান্ড, মহারাষ্ট্র চিফ মিনিস্টার’স রিলিফ ফান্ড, পার্সোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট ফর হেল্থকেয়ার প্রোভাইডারস, এক সাথ-দি আর্থ ফাউন্ডেশন, রোটি ফাউন্ডেশন, ওয়র্কিং পিপলস চার্টার, সাপোর্ট ফর অ্যাসিড অ্যাটাক সারভাইভার ফান্ডে অনুদান দিচ্ছেন বাদশা।

সেই টুইট রিটুইট করে শাহরুখ এরপর লেখেন, 'এই সময় এটা অত্যন্ত জরুরি আপনার আশেপাশের সকলে যাঁরা অক্লান্ত পরিশ্রম করছে শুধুমাত্র আপনার জন্য, যাঁদের সঙ্গে আপনার কোনও সম্পর্ক নেই, হয়ত আপনি তাঁদের চেনেনও না-কিন্তু তাঁরা যেন এই লড়াইয়ে একাকীত্ব না অনুভব করে। আসুন আমরা নিশ্চিত করি, সকলে নিজের মতো করে একে অপরের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেব। ভারত এবং প্রত্যেক ভারতবাসী একটাই পরিবার'।



কোথায় কোথায় সাহায্য করছেন শাহরুখ-

১. পিএম কেয়ারস ফান্ড- শাহরুখ খান, তাঁর স্ত্রী গৌরী, এবং তাঁর বিজনেস পার্টনার জুহি চাওলা ও তাঁর স্বামী জয় মেহতার আইপিএল টিম কলকাতা নাইট রাইডার্স পিএম-কেয়ারস ফান্ডে অর্থ সাহায্য করবে।

২. মহারাষ্ট্রের মু্খ্যমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ড- শাহরুখ ও গৌরীর যৌথ মালিকানাধীন সংস্থা রেড চিলিজ এন্টারটেনমেন্ট মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে অর্থ সাহায্য করবে।

৩. স্বাস্থ্যকর্মীদের PPE কিট প্রদান- পশ্চিমবঙ্গ ও মহারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করবে শাহরুখ খানের দুটি সংস্থা-মীর ফাউন্ডেশন ও কেকেআর। তাঁর স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তা সুরক্ষিত করতে ৫০,০০০ পার্সোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট বা পিপিই প্রদান করবে দুই রাজ্যে।

৪. এক সাথ.. দ্য আর্থ ফাউন্ডেশন- দ্য আর্থ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এসআরকে মীর ফাউন্ডেশন মুম্বইয়ে প্রায় ৫,৫০০-টি পরিবারকে অন্তত ১ মাসের জন্য সবরকমের খাদ্য সামগ্রী দেবে। পাশাপাশি একটি রান্নাঘরও চালু করা হবে এই দুই সংস্থার যৌথ উদ্যোগে। যেখানে প্রত্যেকদিন তৈরি হবে ২,০০০ প্যাকেট খাবার। যা পৌঁছে যাবে দুঃস্থ পরিবার এবং হাসপাতালগুলিতে।

৫. রোটি ফাউন্ডেশন- মুম্বই পুলিশের প্রাক্তন আধিকারিক ডঃ ডি শিবানন্দন প্রতিষ্ঠিত রোটি ফাউন্ডেশনের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাড করবে মীর ফাউন্ডেশন। করোনার জেরে আর্থিক সমস্যায় পড়া অসহায় মানুষ ও বিহারী দিনমজুরদের পাশে দাঁড়াবে এই সংস্থা।তাদের সবরকম সাহায্য করবে মুম্বই পুলিস। ৩ লক্ষ খাবারের প্যাকেটের ব্যবস্থা করবে রোটি ফাউন্ডেশন। আগামী একমাস প্রত্যেক দিন ১০ হাজার খাবারের প্যাকেট বিলি করা হবে।

৬. ওয়ার্কিং পিপলস চার্টার- এই সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে মীর ফাউন্ডেশন দিল্লির ২,৫০০ দিনমজুরকে অন্তত ১ মাসের জন্য রেশন সামগ্রী এবং প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র প্রদান করবে।

৭. সাপোর্ট ফর অ্যাসিড অ্যাটাক সারভাইভার ফান্ড- পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লি, উত্তর প্রদেশ, বিহার ও উত্তরাখণ্ড, পাঁচ রাজ্যের প্রায় ১০০ জন অ্যাসিড আক্রান্তকে আগামী এক মাসের জন্য প্রয়োজনীয় সাহায্য দেওয়া হবে। মীর ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এই সাহায্য পৌঁছে দেবেন বাদশা। অর্থ সাহায্যের পাশাপাশি তাঁদের জরুরি সমস্ত জিনিসপত্রের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।

দেশবাসীর প্রয়োজনে শাহরুখ সবসময়ই এগিয়ে এসেছেন, এবার তার ব্যতিক্রম নয়। এবং স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গতিতেই কত টাকার অনুদান শাহরুখ দিচ্ছেন তা নিয়ে কোনও মন্তব্য করলেন না বাদশা। তিনি জানিয়েছেন, এক দেশ এবং এক জাতি হিসাবে 'এটা আমাদের কর্তব্য আমাদের যা আছে সবটা উজাড় করে দেওয়া।.. আমি আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করছি, আমি জানি আপনারা সকলেই সেটা করছেন। একজোট হলে তবেই এই কঠিন এবং অভাবনীয় দিনগুলোর মোকাবিলা করতে আমরা সফল হব'।


বন্ধ করুন